BREAKING NEWS

৩ মাঘ  ১৪২৮  সোমবার ১৭ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

সুয়ারেজ কামড়ালে আমিও কামড়াব, হুমকি রাশিয়ার ডিফেন্ডারের

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: June 11, 2018 10:37 am|    Updated: June 11, 2018 10:37 am

FIFA Football WC 2018: Russian defender warns Luis Suárez against biting

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: চোখের বদলে চোখ, হাতের বদলে হাত এবং কামড়ের বদলে কামড়। লুই সুয়ারেজকে একপ্রকার হুমকি দিয়ে রাখলেন রাশিয়ার ডিফেন্ডার ইলয়া কুতেপভ।

[  ‘সুনীল’ সাগরে অবগাহন দেশবাসীর, ঘুম ভাঙছে ভারতীয় ফুটবলের ]

ব্রাজিল বিশ্বকাপে ইতালির বিরুদ্ধে ম্যাচ ছিল উরুগুয়ের। ডিফেন্ডার কিয়েলিনির ঘাড়ে কামড় বসিয়েছিলেন সুয়ারেজ। যা নিয়ে পরে বিস্তর জলঘোলা হয়। চার ম্যাচ নির্বাসিত হন সুয়ারেজ। পরে অবশ্য ক্ষমা চেয়ে নেন।  এমন ঘটনা সেবারই প্রথম হয়েছিল তা নয়। প্রতিপক্ষ ডিফেন্ডারের হাতে, কাঁধে সুয়ারেজের এই কামড়ে দেওয়ার ঘটনা আগেও হয়েছে। আয়াখসে যখন খেলতেন তখন করেছেন। লিভারপুলে আসার পর চেলসির সাইডব্যাক ইভানোভিচকেও কামড়েছেন। তারপর বিশ্বকাপ। এবার হলে কী হবে? রাশিয়ার ডিফেন্ডার কুতেপভ তৈরি।

[  প্রস্তুতি ম্যাচে চেনা ছন্দে ব্রাজিল, অপরাজিত থেকেই বিশ্বকাপের মূল পর্বে নেইমাররা ]

বিশ্বকাপে গ্রুপ ‘এ’-তে রয়েছে আয়োজক রাশিয়া ও উরুগুয়ে। বাকি দুই দল সৌদি আরব ও মিশর। গ্রুপের শেষ ম্যাচে লুঝনিকি স্টেডিয়ামে মুখোমুখি হবে রাশিয়া ও উরুগুয়ে। তা কুতেপভকে খুব সাধারণ একটা প্রশ্ন করা হয়েছিল। উরুগুয়ের তারকা সামলাতে তিনি তৈরি? রাশিয়ান ডিফেন্ডারের জবাব, “কেন ভয় পেতে যাব ওকে। সুয়ারেজকে আটকানোই তো আমার কাজ। আর অন্য আর একটা কারণ রয়েছে। অনেকে ভাবছেন, আমার সঙ্গে না পারলে ও হয়তো আবার কামড়ে দিতে পারে। তাহলে এটাই বলব, পালটার জন্য তৈরি থাকুক সু়য়ারেজ। আমিও ওকে কামড়ে দেব।” সৌদি আরব আগের দিন প্রস্তুতি ম্যাচে জার্মানিকে প্রায় আটকে দিয়েছিল। বিশ্বকাপের আগে তারা তৈরি, এটা প্রমাণ হয়ে গিয়েছে। রয়েছে মিশর। যেখানে মহম্মদ সালাহ ফিট হয়ে উঠছেন। সুয়ারেজের পর যাঁকে নিয়ে প্রশ্ন করা হলে রাশিয়ান ডিফেন্ডার বলে দিলেন, “সব দলেই তারকা ফুটবলার থাকবে। কেউ স্ট্রাইকার, কেউ ডিফেন্ডার। সালাহর ব্যাপারটাকে আমি সুয়ারেজের মতোই দেখছি। ওকে নিয়ে একটুও ভাবছি না।”

 ট্যাটু দেখে চিনতে পারবেন নিজেদের প্রিয় সাত ফুটবলারকে? ]

এখানে শেষ হলে ব্যাপারটা একরকম হত। কুতেপভ এরপর যোগ করলেন, “ওকে থামানোর উপায় আমার জানা আছে। আর না পারলে র‌্যামোসের মতো কিছু করতে হবে। সালাহকে থামানোর একটা উপায় ও আমাদের দেখিয়েছে। আরও অনেক কিছু আমরা নিজেরা ঠিক করেছি। সালাহ চোট পাওয়ায় আমি দুঃখ পাইনি। তবে চাইব বিশ্বকাপের আগে ও ফিট হয়ে যাক। কারণ সেরাদের বিরুদ্ধে খেললেই নিজের খেলার উন্নতি সম্ভব।”

বিশ্বকাপ নিয়ে খেলোয়াড়দের মধ্যে যেমন চাপা উত্তেজনা, তেমনই আগ্রহ সমর্থকদের মধ্যেও। ইতিমধ্যেই রাশিয়ার মিউজিয়ামে পেলে-মারাদোনার মূর্তির সঙ্গে সেলফি তুলতে ব্যস্ত হয়ে পড়েছেন অনুরাগীরা। হাতে মাত্র আর তিনটে দিন। তারপরই মহারণ। তার আগে উত্তেজনার আঁচে গা সেঁকে নিচ্ছেন সকলেই।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে