BREAKING NEWS

২ আশ্বিন  ১৪২৭  শনিবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

‘কষ্ট হলে কী করব?’ মাঠে অভিনয় বিতর্কে সপাট জবাব নেইমারের

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: July 4, 2018 8:16 pm|    Updated: April 26, 2019 4:19 pm

An Images

দুলাল দে, কাজান: প্রায় ৪৮ ঘণ্টা পেরিয়ে গিয়েছে, তবু সমালোচনা এখনও তুঙ্গে। কাঠগড়ায় তোলা হচ্ছে সেই নেইমারকেই। যেন বোঝানো হচ্ছে, তাঁর নাটুকেপনার জন্যই মেক্সিকো হার স্বীকার করতে বাধ্য হয়েছে। ব্রিটিশ মিডিয়া থেকে শুরু করে বিশ্বমহল প্রত্যেকেই নেইমারের সম্পর্কে নেতিবাচক মন্তব্য করেছেন। বুঝিয়ে দিচ্ছেন, তাঁরা নেইমারের সঙ্গে সহমত পোষণ করছেন না। আসলে, নেইমারের চোট পাওয়ার ঘটনাকে কেন্দ্র করে বিশ্ব ফুটবল যে এতটা উত্তেজিত হবে, তা বোধহয় কেউই ভাবেনি। তার উপর ব্রাজিল মিডিয়াও এই ব্যাপারে নেইমারের পাশে এসে পুরোপুরি দাঁড়ায়নি। ফলে, নেইমার কিছুটা হলেও একঘরে হয়ে গিয়েছেন। কিন্তু এদিন প্র‌্যাকটিসের পর আর চুপ করে থাকতে পারলেন না তিনি। বুঝিয়ে দিলেন, তাঁকে নিয়ে যেভাবে সমালোচনা করা হচ্ছে, তা মোটেই কাম্য নয়।

নেইমারের পরিষ্কার বক্তব্য, “ব্যাপারটা খুবই জটিল। যখন আমি চোট পাই, তখন ঠিকমতো নিজেকে নিয়ন্ত্রণ করতে পারি না। তার জন্য নিশ্চয়ই আমাকে দায়ী করা কারও উচিত নয়। প্রত্যেকের বোঝা উচিত, এক একজনের যন্ত্রণা সহ্য করার ক্ষমতা ভিন্ন ধরনের। সেখানে যদি কাউকে বিনা দোষে দোষী সাব্যস্ত করা হয়, তাহলে সত্যিই দুঃখ লাগে।”

[ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে পেনাল্টি মিস, মৃত্যুর হুমকি পাচ্ছেন কলম্বিয়ার ফুটবলাররা]

আসলে মেক্সিকোর কোচ জুয়ান কার্লোস ওজোরিও ব্রাজিলের কাছে হারার পর নেইমারের উপর ক্ষোভ উগরে দিয়েছিলেন। বলেন, ফুটবলের ক্ষেত্রে নেইমারের এই ‘নাটক’ কখনও ভাল দৃষ্টান্ত হতে পারে না। শুধু মেক্সিকো কোচ নন, মারাদোনা থেকে শুরু করে বহু ফুটবল ব্যক্তিত্ব ব্রাজিলিয়ান সুপারস্টারের চোট নিয়ে অতিরিক্ত অভিনয়ে বিরক্ত। ব্রাজিলীয় পোস্টার বয় কিন্তু এইসব সমালোচনাকে খুব একটা পাত্তা দিতে নারাজ।

এদিন তাঁর প্র‌্যাকটিস দেখে মনে হল, এসব ক্ষোভ-বিক্ষোভকে দূরে সরিয়ে রাখতেই চাইছেন। বরং শরীরী ভাষায় ফুটে উঠছিল, বিষয়টা পাত্তা না দেওয়ার মতোই। প্রথমে মুখ খুলতে চাইছিলেন না। পরে ঘনিষ্ঠমহলে বলেন, “আমি কখনও অন্যায়ের সঙ্গে আপস করে এগোইনি। যা করেছি তা সবই অফ দ্য বল। আমার মনে হয় না, একজন ফুটবলারের এসব করার মধ্যে কোনও অন্যায় আছে। চোট লাগলে যন্ত্রণা যে কোনও ফুটবলারেরই হয়। কেউ যদি বিষয়টি বড় করে দেখতে চায়, তাহলে সত্যিই আমার কিছু করার নেই।” ব্রাজিলের ঘরে ঘরে তিনি আগের মতোই সুপারস্টার। কিন্তু বিশ্ববাসীর কাছে স্বচ্ছ ভাবমূর্তি ধরে রাখতে পারছেন কই? বেলজিয়াম ম্যাচেও যদি তাঁর ‘অভিনয়’-এর পুনরাবৃত্তি ঘটে, তাহলে আবার তাঁকে কাঠগড়ায় দাঁড়াতে হবে।

[বিশ্বকাপ যাবে পেলের দেশে, চিরপ্রতিদ্বন্দ্বীদের প্রশংসায় পঞ্চমুখ মারাদোনা]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement