BREAKING NEWS

১৭ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  শনিবার ৪ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

বিশ্বকাপের নক-আউট পর্বেই আসল খেলা দেখা যাবে ইসকোদের

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: July 1, 2018 2:31 pm|    Updated: July 1, 2018 2:31 pm

FIFA worldcup 2018: Spain to play against Russia in pre-quarter final

প্রসূন বন্দ্যোপাধ্যায়: ফুটবল দলের হৃৎপিণ্ড মিডফিল্ড। দলকে নিয়ন্ত্রণ করার দায়িত্ব মাঝমাঠের খেলোয়াড়দেরই। আক্রমণের সঙ্গে ডিফেন্সের যোগসূত্রও মিডফিল্ডাররাই তৈরি করে দেয়। কথাই আছে,  ফুটবলে কঠিনতম পজিশন মিডফিল্ড। স্ট্রাইকাররা যেমন মন দেয় গোল করার ওপর। ডিফেন্ডারদের দায়িত্ব থাকে গোল যাতে না হয়। মিডফিল্ডারদের কিন্তু টোটাল ফুটবলটা খেলতে হয়। মাঝে মাঝে ডিফেন্সে এসে সাহায্য করা। আবার অনবরত ফরোয়ার্ডদের বল সাজিয়ে দেওয়া। সংক্ষেপে বললে,  কোনও দলকে জিততে হলে তাদের মিডফিল্ডকে কার্যকরী হতে হয়। রবিবার বিশ্বকাপের এমনই দুই সেরা মিডফিল্ড নামবে শেষ ষোলোর ম্যাচে। স্পেনের ফ্লুইড মিডফিল্ডের সামনে রাশিয়া।

[স্পেন নয়, রবিবার বিশ্বকাপ কাঁপাবে মদ্রিচ-এরিকসন দ্বৈরথ]

খাতায় কলমে স্পেনের মাঝমাঠ খুব শক্তিশালী। ইসকো, বুস্কেটস, ইনিয়েস্তা, দাভিদ সিলভা, কে নেই! কিন্তু সত্যি বলতে এবারের বিশ্বকাপে এখনও এই স্বপ্নের মিডফিল্ডের সেরা খেলাটা দেখতে পাইনি। স্পেন মিডফিল্ড মানে ওয়াল পাস, সঠিক মুভমেন্ট, বল পজেশন, পাস ফুলঝুরিতে বিপক্ষকে ক্লান্ত করে দেওয়া। কিন্তু এখনও মনে হয়েছে স্পেন মিডফিল্ডের কম্বিনেশন ঠিকঠাক তৈরি হয়নি। মিসপাস হচ্ছে। একটু স্লো খেলছে। পাস দিতে পারছে না বেশি। ফরোয়ার্ড রান ট্র্যাক করছে না। দুটো গ্রুপ ম্যাচ ড্রয়ের পিছনে মিডফিল্ডই দায়ী। কিন্তু কথায় আছে,  ক্লাস ইজ পার্মানেন্ট। তাই আমার মনে হয় রাশিয়ার বিরুদ্ধে স্পেনের হাতিয়ার হবে এই মিডফিল্ড। কারণ টিমে যে সমস্ত প্রতিভা আছে,  স্পেনের শুধু একটা ম্যাচ লাগবে জ্বলে উঠতে। স্পেনের কিন্তু কমপ্লিট মিডফিল্ড। সের্জিও বুস্কেটসের মতো হোল্ডিং মিডিও আছে। আবার আন্দ্রে ইনিয়েস্তার মতো আর্টিস্ট। ইসকো নামক সূক্ষ্ম পাসার। আবার কোকে। যার কাজটা এখন হয়ে উঠেছে ধ্বংসাত্মক ফুটবল খেলা।

রাশিয়া আবার এখনও পর্যন্ত এই টুর্নামেন্টের বিস্ময় দল। উরুগুয়ের কাছে হেরেছে ঠিকই,  কিন্তু কেউ ভাবেনি ওরা গ্রুপ টপকে যাবে। রাশিয়া খুব গতিতে খেলে। পুরো কাউন্টার অ্যাটাক। তাই রাশিয়ার বিরুদ্ধে স্পেনের মিডফিল্ড পারফরম্যান্সই গুরুত্বপূর্ণ হবে। হ্যাঁ, স্পেন ফেভারিট ঠিকই। কিন্তু মাঝে মাঝে ঘরের মাঠে কোনও দল খেললে একটা আলাদা আত্মবিশ্বাস পায়। তাই শুরু থেকেই প্রেস করতে হবে স্প্যানিশ মিডফিল্ডকে। প্রতিটা কাউন্টারই আটকাতে হবে। কিন্তু তাতেও আমার মনে হয় নক-আউটেই ইসকোদের সেরাটা দেখা যাবে।

[বিশ্বকাপ যাবে আসবে, বেঁচে থাক স্পোর্টসম্যান স্পিরিট]

 

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে