৪ ভাদ্র  ১৪২৬  বৃহস্পতিবার ২২ আগস্ট ২০১৯ 

BREAKING NEWS

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

৪ ভাদ্র  ১৪২৬  বৃহস্পতিবার ২২ আগস্ট ২০১৯ 

BREAKING NEWS

মোহনবাগান: ২ (মোরান্তে, বেইতিয়া) 

এটিকে: ১ (আশিস)

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ডুরান্ড কাপের গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে আইএসএলের ক্লাব এটিকেকে ২-১ গোলে হারিয়ে দিল মোহনবাগান। ঘরের মাঠে জয়ের ফলে ডুরান্ডের সেমিফাইনালের দোরগোড়ায় পৌঁছে গেল সবুজ-মেরুন শিবির। অন্যদিকে, মোহনবাগানের কাছে হারের ফলে ডুরান্ড কাপের সেমিফাইনালের দৌঁড় থেকে কার্যত ছিটকে গেল এটিকে।

[আরও পড়ুন: জামশেদপুরকে গোলের মালা পরিয়ে কার্যত ডুরান্ডের সেমিফাইনালে ইস্টবেঙ্গল]

প্রথম ম্যাচে মহামেডানের বিরুদ্ধে জয় পেলেও রক্ষণ নিয়ে চিন্তা ছিল মোহনবাগান কোচের। গত দু’দিন প্র্যাকটিসে তিনি বেশি সময় খরচ করেছেন ডিফেন্ডারদের নিয়ে। ভিডিও দেখিয়ে ভুল ধরানো থেকে শুরু করে প্র্যাকটিসে পজিশন বোঝানো, সবকিছুই ছিল তাঁর প্রেসস্ক্রিপশনে। পিয়ারলেস ম্যাচে ডিফেন্সে মোরান্তে ছিলেন না। বৃহস্পতিবার ডুরান্ডে প্রতিপক্ষ এটিকের বিরুদ্ধে তিনি দলে ফেরেন। অন্যদিকে, প্র‌্যাকটিসে বেইতিয়াকে নিয়েও বেশ সময় ব্যয় করেন মোহনবাগান কোচ। আগের ম্যাচে গোলরক্ষক শিল্টন পালের ভূমিকা নিয়েও প্রশ্ন ছিল। তাই এদিন তাঁর পরিবর্তে সুযোগ পেলেন শংকর রায়। এই তিন ফুটবলারই এদিন এটিকে এবং মোহনবাগানের মধ্যে পার্থক্য গড়ে দিলেন।

প্রথমজন অর্থাৎ মোরান্তের আগমনে আগের দিনের তুলনায় অনেক সংগঠিত দেখাল মোহনবাগানের ডিফেন্স। পুরোপুরি নিশ্চিন্ত হতে না পারলেও পিয়ারলেস ম্যাচে যেমন হতশ্রী দেখিয়েছিল রক্ষণকে সে তুলনায় অনেকটাই ভাল খেলল সবুজ মেরুন রক্ষণ। ম্যাচের সেরাও নির্বাচিত হলেন মোরান্তে। শেষদিকে গোলরক্ষক শংকরও বেশ কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ সেভ করলেন। অন্যদিকে, মোহনবাগান যে দু’টি গোল পেল সেই দুই গোলেই ভূমিকা ছিল বেইতিয়ার। একটি গোল হল তাঁর করা কর্ণার থেকে মোরান্তের হেডারে। আরেকটা গোল তিনি নিজেই করলেন। ডান দিক থেকে আসা ক্রস থেকে দুর্দান্ত ফিনিশে। এই বেইতিয়াই যে এই মরশুমে মোহনবাগানের সেরা অস্ত্র হতে চলেছেন, এ বিষয়ে আর কোনও সন্দেহই থাকল না সবুজ মেরুন সমর্থকদের মধ্যে।

[আরও পড়ুন: আজই ডুরান্ডে শেষ চার নিশ্চিত করতে চান আলেজান্দ্রো]

অন্যদিকে, এটিকের এই দল তাদের সবচেয়ে শক্তিশালী একাদশের ধারেকাছেও নেই। দলে বিদেশি নেই। কেভিন লোবো, কোমল থাটালরা অবশ্য শেষদিকে বেশ খানিকটা চাপে ফেলে দিয়েছিলেন মোহনবাগানকে। ৭৮ মিনিটে আশিস প্রধান একটি গোল শোধও করেন। তবে, তাতে ফলাফলের উপর কোনও প্রভাব পড়েনি। জয়ের ফলে ডুরান্ডের সেমিতে কার্যত নিশ্চিত মোহনবাগান।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং