×

৪ চৈত্র  ১৪২৫  বুধবার ২০ মার্চ ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও #IPL12 বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

ইস্টবেঙ্গল: ১ (এনরিকে)

মিনার্ভা পাঞ্জাব: ০

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ইস্টবেঙ্গল, আ টিম অন আ মিশন। আলেজান্দ্রোর লাল-হলুদ সৈন্যদের দেখে অন্তত তেমনটাই মনে হচ্ছে। পরিস্থিতি যাই হোক, এবারের আই লিগ লড়াইয়ের শেষ দেখতে চাইছে ইস্টবেঙ্গল। অ্যাওয়ে ম্যাচে মিনার্ভাকে ১-০ গোলে হারিয়ে তারই প্রমাণ দিলেন এনরিকে, বোরহা, রক্ষিত ডাগররা। এনরিকের গোলে লিগ জয়ের স্বপ্ন বাঁচিয়ে রাখল লাল-হলুদ শিবির।

 [চেন্নাইকে হারিয়ে ইস্টবেঙ্গলের মুখে হাসি ফোটালেন লাল-হলুদেরই প্রাক্তনী]

পদস্খলন মানেই আই লিগ জেতার যাবতীয় আশা শেষ। জিততেই হবে। ড্র-তেও চলবে না। এই পরিস্থিতিতে খেলতে নেমে ৭৫ মিনিট পর্যন্ত গোল পায়নি লাল হলুদ। এমনিতেই চাপ ছিল পাহাড় প্রমাণ। প্রথম ৭৫ মিনিট গোল না পাওয়ায় চাপ আরও বাড়ছিল। কিন্তু, তাতে কুঁচকে না গিয়ে নিজেদের জাত চিনিয়ে দিল আলেজান্দ্রো ব্রিগেড। এনরিকের পা থেকে এল সেই কাঙ্ক্ষিত গোল। যা আই লিগের লড়াইয়ে নতুন করে অক্সিজেন জোগাল ইস্টবেঙ্গলকে। দলের ফিটনেস আর ফুটবলারদের অপরাজেয় মানসিকতার ফল পেল হলুদ শিবির।

এদিন অ্যাওয়ে ম্যাচেও শুরু থেকেই আক্রমণাত্মক খেলছিল ইস্টবেঙ্গল। কারণ, জেতার ইচ্ছেটা তাদেরই বেশি ছিল। শুরু থেকে মিনার্ভার দূর্গে একের পর এক আক্রমণও শানায় ইস্টবেঙ্গল। কিন্তু যেভাবেই হোক ফাইনাল থার্ডে গিয়ে চূড়ান্ত পাস বা গোলের শটটা আসছিল না এনরিকে-টোনিদের পা থেকে। তাছাড়া প্রথম দিকে গোল না পাওয়ার জন্য মিনার্ভার গোলরক্ষক অক্ষদীপকেও কৃতিত্ব দিতে হয়। একের পর এক দুর্দান্ত সেভ করে তিনি দলকে ম্যাচে রাখেন। কিন্তু ৭৫ মিনিটে এনরিকের ওই শট তাঁর পক্ষেও বাঁচানো সম্ভব হয়নি। দুর্দান্ত মুভ থেকে দুর্দান্ত গোল। ইস্টবেঙ্গলের এই দলটি যেন ‘ওয়েল ওয়েলড মেশিন’। ১৬ বছরের অপেক্ষার অবসান ঘটাতে তাঁরা যেন বদ্ধপরিকর। এনরিকের গোলের পর কয়েকটা সুযোগ তৈরির চেষ্টা করেছিল মিনার্ভা। কিন্তু তাতে কোনও লাভ হয়নি। খেলা শেষ হয় ১-০ গোলেই।

[মেহতাবের বিদায়ের ম্যাচেও হতাশাজনক হার মোহনবাগানের]

তবে, এদিন জিতলেও খুব বেশি উচ্ছ্বসিত অবশ্য হতে পারছেন না কোচ আলেজান্দ্রো। কারণ, আই লিগের ভাগ্য এখনও ঝুলে রয়েছে চেন্নাইয়ের হাতেই। শেষ ম্যাচে চেন্নাই যদি এই মিনার্ভাকে হারিয়ে দেয়, তাহলে লিগ তাদের ঘরেই উঠবে। চেন্নাই যদি পয়েন্ট নষ্ট করে তবেই সুযোগ থাকছে লাল হলুদের। সেক্ষেত্রেও, শেষ ম্যাচে গোকুলামের বিরুদ্ধে পয়েন্ট নষ্ট করা চলবে না ইস্টবেঙ্গলের।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং