২৩ অগ্রহায়ণ  ১৪২৬  মঙ্গলবার ১০ ডিসেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

শুভময় মণ্ডল ও মণিশংকর চৌধুরি: স্পর্ধার শতবর্ষ। বিশ্বজুড়ে ইস্টবেঙ্গল সমর্থকরা যখন ক্লাবের শতবর্ষ উদযাপনে ব্যস্ত, তখনই সুর কেটে দিয়েছিলেন মেঘালয়ের রাজ্যপাল তথাগত রায়। স্বভাবসিদ্ধভাবেই বিতর্কিত টুইট করে বসেন তিনি। এবারে তাঁর লক্ষ্য ছিল ইস্টবেঙ্গল সমর্থকরা। লাল-হলুদ সমর্থকদের উদ্দেশে তাঁর করা বিষাক্ত টুইট সমর্থকদের ব্যাথিত করেছে সেকথা বলাই বাহুল্য। শতবর্ষ উদযাপনের দিনও দেখা গেল সেই বিষাক্ত টুইটের প্রতিক্রিয়া। পোস্টার-ব্যানারে দেখা গেল মেঘালয়ের রাজ্যপালের টুইটের জবাব।

[আরও পড়ুন: শতবর্ষে ইস্টবেঙ্গলের স্পর্ধার ১০ মাইলস্টোন জানলে আপনারও গর্ব হবে]

মঙ্গলবার টুইটারে তথাগত রায় লেখেন, “ইস্টবেঙ্গল ক্লাব শতবর্ষের উৎসবে মেতে উঠেছে। কিন্তু এই ক্লাবের কর্তা বা কোনও সমর্থকদের মাথায় কি কখনও এসেছে, যে তারা পশ্চিমবঙ্গে বসে ইস্টবেঙ্গলকে কেন সমর্থন করছে?’ তথাগতর এই মন্তব্যর পরই সোশ্যাল মিডিয়ায় তাঁর সমালোচনার ঝড় ওঠে। ইস্টবেঙ্গল সমর্থকরা বলতে থাকেন এই মন্তব্য মেঘালয়ের রাজ্যপালের নিম্নরুচির মানসিকতার পরিচয়। সোশ্যাল মিডিয়ার সমালোচনার পর নিজের বক্তব্যের সাফাইও দেন তথাগত। কিন্তু, তাতে যে বিতর্ক চাপা পড়েনি, তা বোঝা গেল শতবর্ষের দুপুরে ক্লাব তাঁবুতে গিয়ে।

 

[আরও পড়ুন: ‘সম্পত্তি বিক্রি করে তৈরি করেছিলেন ইস্টবেঙ্গল ক্লাব’, সুরেশ চৌধুরির স্মৃতিচারণায় তাঁর নাতি]

শতবর্ষ উদযাপনে সমর্থকদের মধ্যে যেমন উচ্ছ্বাস রয়েছে, তেমনি রয়েছে অস্বস্তির কাঁটা। তথাগতর রায়ের ওপার বাংলা মন্তব্য যেন কিছুতেই তাঁরা মেনে নিতে পারছেন না। ভিড়ের মধ্যে জনৈক এক সমর্থক বললেন, “আমরা সবাই ইস্টবেঙ্গল। এটা এপার বাংলা বা ওপার বাংলার ব্যপার না। ব্যাপারটা ফুটবলের। মাঠের শত্রুতা মাঠের মধ্যে রাখুন, আপনি কাদের সমর্থক, কীসের সমর্থক আমরা জানি না। আপনার এই ধরনের মন্তব্য করার অধিকার নেই। আপনার পদটার অন্তত সম্মান করুন। আমরা গোল করে আপনাকে দেখাব আপনি কী ভুল করেছেন।” পাশ থেকে আর এক সমর্থক খানিকটা হুমকির সুরেই বলে উঠলেন, ‘আমাদের সামনে এমন মন্তব্য করতে বলুন.. দেখছি।’ সব মিলিয়ে তথাগতবাবুর বিতর্কিত মন্তব্য যে ইস্টবেঙ্গল সমর্থকরা সহজে ভুলতে পারবেন না তা স্পষ্ট হয়ে গেল শতবর্ষের ক্লাব তাঁবুতে।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং