BREAKING NEWS

২৮ আষাঢ়  ১৪২৭  বুধবার ১৫ জুলাই ২০২০ 

Advertisement

ঘরের মাঠে দাঁতনখহীন অ্যারোজের কাছেও হার, লিগের লড়াইয়ে আরও পিছোল ইস্টবেঙ্গল

Published by: Sulaya Singha |    Posted: February 1, 2020 7:03 pm|    Updated: February 1, 2020 7:09 pm

An Images

ইস্টবেঙ্গল: ০
ইন্ডিয়ান অ্যারোজ: ১ (বিক্রম প্রতাপ)

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: হাজার ডামাডোলের মধ্যেও চেন্নাই সিটি এফসির বিরুদ্ধে জয়ে ফিরেছিল ইস্টবেঙ্গল। মনে হয়েছিল, ডার্বির হতাশা-কোচ বদলের টানাপোড়েন সামলে উঠেছে দল। কিন্তু লাল-হলুদ শিবিরে সেই ভাল সময় বেশিক্ষণ স্থায়ী হল না। ঘরের মাঠে বিদেশিহীন ইন্ডিয়ান অ্যারোজের কাছে পরাস্ত হল শতবর্ষের ক্লাব। আর সেই সঙ্গে আরও ক্ষীণ হল চ্যাম্পিয়নশিপে টিকে থাকার আশা।

আই লিগে ডার্বি-সহ টানা তিনটি হারের পরই ইস্টবেঙ্গলের কোচের পদ থেকে সরে দাঁড়িয়েছিলেন স্প্যানিশ কোচ আলেজান্দ্রো গার্সিয়া। তাঁর জায়গায় এসেছেন তাঁরই সহকারী মারিও। এদিন কল্যাণীতে হাজিরও ছিলেন তিনি। আর তাঁর চোখের সামনেই অপেক্ষাকৃত অনেকখানি দুর্বল দলের কাছে হার স্বীকার করলেন কোলাডোরা। আই লিগের খেতাবি লড়াইয়ে ফিরতে হলে এই ম্যাচ জিততেই হত ইস্টবেঙ্গলকে। কিন্তু এমন গুরুত্বপূর্ণ পরিস্থিতিতেও গোলের একাধিক সুযোগ তৈরি করেও ব্যর্থ মার্কোসরা। কার্ড সমস্যা কাটিয়ে দলে ফিরেছিলেন স্টপার ক্রেসপি মার্টিও। কিন্তু সর্বশক্তি দিয়েও রোখা গেল না তরুণদের। প্রথমার্ধ গোলশূন্য থাকলেও ৫৯ মিনিটের মাথায় অ্যারোজের হয়ে গোল করেন বিক্রম প্রতাপ। তবে তারপর আর খেলায় ফিরতে পারেনি লাল-হলুদ ব্রিগেড। আক্রমণে শান দিতে নামানো হয় ক্রোমাকে। গোলের অত্যন্ত সহজ সুযোগ তিনি মিস না করলে হয়তো ফল অন্যরকম হত।

[আরও পড়ুন: ওয়েলিংটনে নিয়ম ভেঙে শাস্তির মুখে ভারত, শেষ ম্যাচে বিশ্রামে যেতে পারেন বুমরাহ]

সম্প্রতি অ্যারোজের তেমন কোনও উল্লেখযোগ্য সাফল্য নেই। তবে নিজেদের দিনে দেশের যে, যে কোনও ক্লাবকে বেগ দেওয়ার ক্ষমতা রাখে ফেডারেশনের এই জুনিয়র ফুটবলারদের, সেটাই এদিন প্রমাণ হয়ে গেল। আত্মবিশ্বাসহীন-ছন্নছাড়া ইস্টবেঙ্গলকে রীতিমতো লজ্জায় ফেলে দিলেন জুনিয়ররা। অ্যারোজ কোচ ভেঙ্কটেশের অ্যাটাকিং ফুটবল খেলার স্ট্র্যাটেজি এদিন দুর্দান্তভাবে কাজে লাগল। ইস্টবেঙ্গলের মতো হেভিওয়েট দলের বিরুদ্ধে ছেলেদের পারফরম্যান্সে দারুণ খুশি ভেঙ্কটেশ। এই নিয়ে চলতি লিগে দুটি ম্যাচ জিতল অ্যারোজ। উলটোদিকে ঘরের মাঠে মুখ থুবড়ে পড়ায় ৯ ম্যাচে এখন ইস্টবেঙ্গলের ঝুলিতে ১১ পয়েন্ট।

[আরও পড়ুন: ‘স্বপ্ন সত্যি হল’, অস্ট্রেলিয়ান ওপেন চ্যাম্পিয়ন হয়ে উচ্ছ্বসিত ২১ বছরের কেনিন]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement