Advertisement
Advertisement
Igor Stimac

‘কলকাতায় কুয়েত ম্যাচ হারলে পদত্যাগ করব’, সাফ জানালেন সুনীলদের কোচ স্টিমাচ

যার অর্থ, ১১ জুন শেষ লড়াইয়ে কাতারের বিরুদ্ধে অ্যাওয়ে ম্যাচে তিনি আর ভারতীয় দলের কোচ থাকবেন না।

If Indian football team loss against Kuwait, Igor Stimac will resign

ফাইল চিত্র।

Published by: Sulaya Singha
  • Posted:March 29, 2024 2:57 pm
  • Updated:March 29, 2024 2:57 pm

দুলাল দে: ৬ জুন কলকাতায় কুয়েতের বিরুদ্ধে ম্যাচটাই ভারতীয় ফুটবলে জাতীয় কোচ ইগর স্টিমাচের ভবিষ্যৎ নির্ণায়ক ম্যাচ হতে চলেছে। প্রথমে ড্র। তার পর ঘরের মাঠেও আফগানিস্তানের কাছে হারের পর যেভাবে চারিদিকে সমালোচনার ঝড় উঠেছে, তাতে ইগর স্টিমাচ ভারতীয় ফুটবলে নিজের ভবিষ্যৎ নিয়ে একটা পাকাপাকি সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলেছেন। ঠিক করে ফেলেছেন, ৬ জুন যুবভারতী ক্রীড়াঙ্গনে কুয়েতের বিরুদ্ধে হেরে গেলে, ম্যাচের পরেই পদত্যাগ করে দেবেন তিনি। যার অর্থ, ১১ জুন শেষ লড়াইয়ে কাতারের বিরুদ্ধে অ্যাওয়ে ম্যাচে তিনি আর ভারতীয় দলের কোচ থাকবেন না। তবে কলকাতার মাঠে কুয়েতের বিরুদ্ধে ম্যাচটা যে তিনি জিতবেন, সে ব্যাপারে যথেষ্ট আশাবাদী ভারতীয় দলের ক্রোয়েশিয়ান কোচ।

এশিয়ান কাপের আগে ভারতীয় দলের কোচ ইগর স্টিমাচের সঙ্গে ফুটবল ফেডারেশনের নতুন করে যে চুক্তি হয়েছে, তাতে প্রথমে ২ বছরের চুক্তি দেওয়া হয়েছে ইগরকে। তার পর চুক্তিতে বলা আছে, ভারতীয় দল যদি বিশ্বকাপের কোয়ালিফাইং পর্বে তৃতীয় রাউন্ড পর্যন্ত যায়, তাহলে আরও ২ বছরের চুক্তি নবীকরণ হবে। গ্রুপে কাতারের পাশে কুয়েত আর আফগানিস্তানকে পেয়ে ইগর স্টিমাচ নিশ্চিত ছিলেন, ভারতীয় দলকে তিনি তৃতীয় রাউন্ডে তুলবেনই। ফলে ভারতীয় ফুটবলের সঙ্গে তাঁর যে চুক্তি ২০২৬ পর্যন্ত থাকবে, তিনি একপ্রকার নিশ্চিত ছিলেন। তার উপর কুয়েতের সঙ্গে অ্যাওয়ে ম্যাচ জিতে নিশ্চিত ছিলেন যে, আফগানিস্তানকে হারাবেনই। তাহলে কাতারের পর গ্রুপের দ্বিতীয় দল হিসেবে তৃতীয় রাউন্ডে চলে যাবেন।

Advertisement

[আরও পড়ুন: রাজ্যে প্রথম দফার ভোটে সব বুথে কেন্দ্রীয় বাহিনী থাকবে তো? সংশয়ে কমিশন কর্তারাও]

কিন্তু আফগানিস্তানের বিরুদ্ধে প্রথমে অ্যাওয়ে ম্যাচে ড্র। তারপর ঘরের মাঠে হার। ফলে অনায়াসে তৃতীয় রাউন্ডে যাওয়ার হিসেব সব ওলট-পালট হয়ে গিয়েছে। এই কিছুদিন আগে ভারতীয় ফুটবল ফ্যানরা যেভাবে তাঁর নামে জয়ধ্বনি দিচ্ছিলেন, হঠাৎই ১৮০ ডিগ্রি ঘুরে গিয়ে সবাই মিলে সমালোচনায় জর্জরিত করে দিচ্ছেন তাঁকে। ভারতীয় কোচের হট সিটে বসে সবই নজর রাখছেন তিনি। আর নিজে তৈরি হচ্ছেন জুন মাসে কলকাতায় কুয়েত ম্যাচের জন্য। কারণ, কুয়েতের বিরুদ্ধে জিততে পারলে ফের পরের রাউন্ডে যাওয়ার একটা সম্ভাবনা তৈরি হয়ে যাবে ভারতীয় দলের সামনে। ঘনিষ্ঠমহলে ইগর বলছেন, ভারতীয় দল যে কলকাতায় কুয়েতকে হারাবে, এক প্রকার নিশ্চিত তিনি।

Advertisement

কিন্তু যারা আফগানিস্তানকে হারাতে পারে না, তারা কুয়েতকে হারাবে কী করে? পরিস্থিতি থেকে বের হওয়ার জন্য ইতিমধ্যে ফেডারেশনকে জানিয়েছেন, ৬ জুন কুয়েত ম্যাচের আগে অন্তত তিন সপ্তাহ জাতীয় শিবির করতে চান। আইএসএলের প্লেঅফ ম্যাচ শেষ হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে সুনীল ছেত্রীদের নিয়ে জাতীয় শিবির শুরু করে দেবেন তিনি। একই সঙ্গে বিশ্বাস করছেন, জাতীয় দলের ফুটবলারদের টানা তিন সপ্তাহ অনুশীলন করাতে পারলে নিশ্চিতভাবেই কুয়েতের বিরুদ্ধে ফের তাঁর কোচিংয়ে ভেল্কি দেখাবেন ভারতীয় ফুটবলাররা। ঘনিষ্ঠমহলে ইগরের দাবি, এর আগেও এরকম পরিস্থিতির মধ্যে দিয়ে ভারতীয় ফুটবলে যেতে হয়েছে তাঁকে। বিশেষ করে মালদ্বীপে সাফ কাপের সময়। সেদিন সাফ চ্যাম্পিয়ন হতে না পারলে, তখনই চাকরি যেত ভারতীয় কোচের। পরে সেখান থেকে উন্নতি করে এশিয়ান কাপে কোয়ালিফাই করেন সুনীলরা। এবারও মে মাসে শেষের দিকে দীর্ঘ জাতীয় শিবির করে পরিস্থিতি ঘুরিয়ে দিতে পারবেন বিশ্বাস করছেন তিনি।

কিন্তু কেন হারতে হল আফগানিস্তানের বিরুদ্ধে? এই প্রসঙ্গে সরকারি ভাবে কিছুই বলতে চান না ইগর। কারণ, ব্যর্থতার কারণ নিয়ে তিনি মুখ খুললে ফের বিতর্ক শুরু হয়ে যাবে। তবে ঘনিষ্ঠমহলে বলছেন, ফের কোনও কোনও ফুটবলারের ব্যক্তিগত ভুলে ডুবতে হয়েছে পুরো দলকে। তবে কোনও ফুটবলারের নামই আলাদা করে বলতে চান না তিনি। এখনও মনে করছেন, দলের পরিকল্পনায় কোনও সমস্যা নেই। কিন্তু কোনও কোনও ফুটবলারের ছোটখাটো ভুলে সমস্যায় পড়তে হচ্ছে পুরো দলকে। এমনকী বেশ কয়েকজন ফুটবলার ঠিকমতো ফর্মেও নেই। তবুও তাঁদের টানতে হচ্ছে কারণ, হাতে বিকল্প ফুটবলারও নেই। তবে আশা করছেন, পুরো পরিস্থিতিটাই বদলে যাবে মে’মাসের শিবিরে। আর তা না হলে কলকাতায় ম্যাচের পরই পদত্যাগ করে দেবেন ইগর স্টিমাচ।

[আরও পড়ুন: কঙ্গনার অনুপ্রেরণাতেই রাজনীতিতে কৃতী স্যানন? ভোটের মুখে বড় কথা অভিনেত্রীর!]

Sangbad Pratidin News App

খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ