BREAKING NEWS

১২ আশ্বিন  ১৪২৭  বুধবার ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

আগে মানুষ বাঁচুক পরে ISL, সংকটের সময় ইস্টবেঙ্গলকে বার্তা আসিয়ান জয়ীদের

Published by: Sulaya Singha |    Posted: July 26, 2020 3:54 pm|    Updated: July 26, 2020 4:19 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: চলতি বছরই যাতে আইএসএলে (ISL) দলকে নামিয়ে দেওয়া যায়, তার জন্য আদা-জল খেয়ে নেমেছিল ইস্টবেঙ্গল। কোয়েসের সঙ্গে সম্পর্কের বিচ্ছেদ থেকে নতুন ইনভেস্টর হিসেবে কোন শর্তে কাকে নেওয়া যেতে পারে, সব নিয়েই চলে বিস্তর আলোচনা। কিন্তু এত কিছু সত্ত্বেও এবারের মতো দেশের এক নম্বর লিগের দরজা লাল-হলুদের জন্য কার্যত বন্ধই হয়ে গিয়েছে। আর তারপরই লাল-হলুদ প্রাক্তনীদের গলা থেকে ভেসে এল উলটো সুর। আইএসএল নয়, বর্তমানে করোনা পরিস্থিতিতে নাকি সাধারণের পাশে দাঁড়ানোই সববেশি গুরুত্বপূর্ণ বলে মনে করছেন আসিয়ান জয়ী দলের তারকারা!

ফেডারেশন কিংবা FSDL এখনও পর্যন্ত কোনও সরকারি ঘোষণা করেনি। তবে দলগুলোর সঙ্গে বৈঠকে মোটামুটি ঠিক হয়ে গিয়েছে ২০-২১ মরশুমে দশ দলেই হবে লিগ। অর্থাৎ ইস্টবেঙ্গলের (East Bengal) অপেক্ষা দীর্ঘায়িত হল। আর ঠিক এই বিষয়টা একপ্রকার বোধগম্য হতেই আঙুর ফল টক হয়ে গেল! ২০০৩ সালে আশিয়ান জয়ী ফুটবলাররা রবিবার একটি চিঠি দিয়ে ক্লাবকে জানান, এখন করোনা মোকাবিলা ছাড়া তাঁরা আর কিছুই ভাবতে চাইছেন না। বাংলা তথা গোটা দেশের এই সংকটের দিনে সাধারণ মানুষ ও সমর্থকদের পাশে দাঁড়ানোই এখন তাঁদের প্রধান উদ্দেশ্য। 

[আরও পড়ুন: ‘আইসিসি চেয়ারম্যান হওয়ার জন্য আদর্শ সৌরভ’, এবার ‘দাদা’র হয়ে ব্যাট ধরলেন সঙ্গাকারা]

চিঠিতে বলা হয়েছে, “শতবর্ষে ইনভেস্টর এনে আইএসএল (ISL) খেলার আপ্রাণ চেষ্টা করেছিল লাল-হলুদ শিবির। কিন্তু এখন আমাদের সকলের কাছে বেশি গুরুত্বপূর্ণ এই কোভিড পরিস্থিতির মোকাবিলা করা। যাঁরা এই সময় সমস্যায় পড়ছেন, তাঁদের দিকে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেওয়া। অতীতেও ইস্টবেঙ্গল মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছে, এবারও থাকার প্রতিশ্রুতি দিচ্ছে।” এই চিঠির পরই নিন্দুকরা প্রশ্ন তুলছে, ইস্টবেঙ্গলের প্রাক্তনীরা কি এতদিন করোনা মহামারীর কথা ভুলে গিয়েছিলেন? এবারের মতো লিগের দরজা বন্ধ জেনেই সেটা মনে পড়ে গেল?

উল্লেখ্য, এটিকের (ATK) সঙ্গে হাত মিলিয়ে আসন্ন মরশুমে আইএসএল খেলা নিশ্চিত করে ফেলেছে মোহনবাগান (Mohun Bagan)। তারপর থেকেই আই লিগ ছেড়ে আইএসএলের পথে হাঁটার তাগিদ বাড়ে পড়শি ক্লাবের। গত কয়েকদিন ধরেই যে কোনও সংস্থার সঙ্গে গাঁটছড়া বেঁধে আইএসএল খেলতে উঠে পড়ে লেগেছিলেন লাল-হলুদ কর্তারা। এমনকী রাজনৈতিক চাপ সৃষ্টি করেও পথ তৈরির চেষ্টা করা হয়েছিল। কিন্তু কোনওভাবেই সুবিধা করতে না পারায় এখন আইএসএলের ‘উঠোন বাঁকা’ বলেই যেন দাবি করে বসলেন শতবর্ষের ক্লাবের প্রাক্তন ফুটবলাররা।

[আরও পড়ুন: ধোনিকে দেখতে আইপিএল নিয়ে উত্তেজনার পারদ চড়ছে, কবে আমিরশাহী যাচ্ছে CSK?]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement