১ মাঘ  ১৪২৫  বুধবার ১৬ জানুয়ারি ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও ফিরে দেখা ২০১৮ ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: এএফসি এশিয়ান কাপের প্রথম ম্যাচে ভারতীয় ফুটবলারদের পাশাপাশি নজর কেড়েছেন সমর্থকরাও। প্রথম ম্যাচে থাইল্যান্ডের দিকের গ্যালারি ফাঁকা থাকলেও ভারতীয় সমর্থকদের গ্যালারি ছিল কানায় কানায় ভরতি। পুরো ম্যাচেই সুনীলদের হয়ে গলা ফাটাতে শোনা গিয়েছে ভারতীয় দর্শকদের। পরিস্থিতি এমন যেন মনে হচ্ছিল আরব আমিরশাহিতে নয়, ঘরের মাঠে খেলছে ভারত। ইউএই ম্যাচে যাতে সেই পরিস্থিতির পুনরাবৃত্তি না হয় সেই ব্যবস্থা করতে এবার উঠে পড়ে লেগেছে সেদেশের ফুটবল সংস্থা। ভারতীয় দর্শকদের দাপট কমাতে নিজেরাই পাঁচ হাজার টিকিট কিনে নিয়েছে সংযুক্ত আরব আমিরশাহির ফুটবল সংস্থা।

[থাইল্যান্ডকে উড়িয়ে দিয়ে এশিয়ান কাপে স্বপ্নের শুরু ভারতের]

এভাবে ভাবতে হবে, মাথাতেই আসেনি আমিরশাহি ফুটবল সংস্থার কর্তাদের। থাইল্যান্ডের বিরুদ্ধে ভারতীয়দের দৌড় চমকে দিয়েছে সবাইকে। আমিরশাহি কর্তাদেরও। বৃহস্পতিবার জাইদ স্পোর্টস সিটি স্টেডিয়ামে ভারতের সঙ্গে ম্যাচ আমিরশাহির। ঘরের মাঠে আমিরশাহির হয়ে গলা ফাটাবেন দর্শকরা, এটাই স্বাভাবিক। কিন্তু, এই জায়গাতেই জোর ধাক্কা লেগেছে। আমিরশাহিতে ভারতীয়দের সংখ্যা প্রচুর। দশ বছর আগের হিসাব বলছে, স্থানীয় জনসংখ্যার প্রায় ৪২ শতাংশ ভারতীয়। ফিফা র‌্যাঙ্কিং বা শক্তির বিচারে আমিরশাহিরই এই গ্রুপ থেকে এক নম্বরে শেষ করার কথা। কিন্তু, প্রথম ম্যাচে ভারতের পারফরম্যান্স প্রত্যাশার অতিরিক্ত হয়ে গিয়েছে। এই অবস্থায় বৃহস্পতিবার গ্যালারির একটা বড় অংশের সমর্থন যদি ভারতের দিকে যায়, তা হলে অস্বস্তি বাড়বে ঘরের খেলোয়াড়দের।

[কাজ শুরু খালিদের, ডিকাদের নিয়ে সভা করলেন সোনি]

এটা আটকাতে আমিরশাহি ফুটবল সংস্থা অভিনব রাস্তা নিল। পাঁচ হাজার টিকিট আলাদা করে তুলে নিল। যা বিনামূল্য বিলি করা হবে শুধুমাত্র আমিরশাহি সমর্থকদের মধ্যে। উদ্দেশ্য, ভারতীয় সমর্থকদের সংখ্যা যথাসম্ভব কম রাখা। তবে অন্য আশঙ্কাও থাকছে। ম্যাচের ফল যাই হোক, দুই তরফের সমর্থকদের মধ্যে রেষারেষির ব্যাপার সামনে আসতে পারে। যেটা ভবিষ্যতের পক্ষে হয়তো ভাল নয়। ফুটবলকে কেন্দ্র করে দাঙ্গা তো ইতিহাসে নতুন নয়।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং