২ শ্রাবণ  ১৪২৬  বৃহস্পতিবার ১৮ জুলাই ২০১৯ 

BREAKING NEWS

Menu Logo বিলেতে বিশ্বযুদ্ধ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার
বিলেতে বিশ্বযুদ্ধ

২ শ্রাবণ  ১৪২৬  বৃহস্পতিবার ১৮ জুলাই ২০১৯ 

BREAKING NEWS

সোহম দে: ফুটবলজীবন থেকে অবসর নিয়েছিলেন। তাঁর অকাল প্রয়াণের পর প্রায় ষোলো বছর পেরিয়ে গিয়েছে। কিন্তু আজও তাঁর বাঁ-পায়ের মাদকতা ছড়িয়ে রয়েছে সমস্ত বাঙালির মধ্যে। চিরন্তন স্মৃতি হয়ে আছে সেই ঈশ্বরপ্রদত্ত ড্রিবলিং, নিখুঁত পাসিং। যা ভারতীয় ফুটবল ইতিহাসে চিরঅমর।

সেই শেষ বাঙালি শিল্পী ফুটবলার কৃশানু দে’র জীবনের উপর এবার তৈরি হচ্ছে ওয়েব সিরিজ। বঙ্গ ফুটবল সুপারস্টারের বায়োপিক নিয়ে ওয়েব সিরিজ তৈরি করতে চলেছে ‘টিভিওয়ালা মিডিয়া’। প্রযোজনায় ‘জ্যোতি প্রোডাকশন’। ক্রিয়েটিভ প্রোডিউসর হিসাবে রয়েছেন সৌভিক দাশগুপ্ত ও সারণ দত্ত। এক্সিকিউটিভ প্রোডিউসর সায়ন চক্রবর্তী ও মহাশ্বেতা চক্রবর্তী। আট এপিসোডের ওয়েব সিরিজের পরিচালনার দায়িত্বে রয়েছেন কোরক মুর্মু। যিনি পাওলি দামের ‘কালী’ ওয়েব সিরিজের পরিচালক ছিলেন। ওয়েব সিরিজের মিউজিক ডিরেক্টর গৌরব চট্টোপাধ্যায়। কৃশানু দে’র বায়োপিক মুক্তি পাবে এক্সক্লুসিভলি ‘জি ফাইভ’ প্ল্যাটফর্মে। এ বছরের আগস্ট মাসকে ওয়েব সিরিজের প্রথম সিজনের মুক্তির সময় হিসাবে টার্গেট করা হচ্ছে।

[আরও পড়ুন: ধর্ষণের অভিযোগ নেইমারের বিরুদ্ধে, উত্তাল বিশ্ব ফুটবল মহল]

প্রথম সিজনে থাকবে আটটা এপিসোড। কৃশানু দে বায়েপিকের কাহিনিকার চারজন লেখক- সৌভিক দাশগুপ্ত, কল্লোল লাহিড়ী, চন্দ্রদয় পাল ও অভ্র চক্রবর্তী। কৃশানুর ছোটবেলা থেকে শুরু করে সুপারস্টার হয়ে ওঠা, ওয়েব সিরিজে তুলে ধরা হবে। এছাড়াও ভারতীয় মারাদোনার নানা অজানা ছবিও ফুটে উঠবে। কৃশানুর চরিত্রে অভিনয় করবেন মহারাষ্ট্রের অনুরাগ উরহাম। বছর আঠাশের অনুরাগ ফিল্ম অ্যান্ড টেলিভিশন ইনস্টিটিউট অব ইন্ডিয়ার স্নাতক। উচ্ছ্বসিত অনুরাগ বলছিলেন, “প্রথমে যখন জানতে পারি এত বড় প্রোজেক্টের আমি মুখ্য চরিত্র, খুব এক্সাইটেড ছিলাম। ফুটবল অত বেশি ফলো করি না। তবে কলকাতায় এসে কৃশানু দে’র প্রতি বাঙালিদের আবেগটা ভাল রকম ভাবে বুঝতে পারছি।”

কৃশানুর চরিত্রে অভিনয় করার প্রস্তুতি হিসাবে এখন প্রায় রোজই দক্ষিণ কলকাতার এক মাঠে সকালে চার ঘণ্টা করে ফুটবল অনুশীলন চলছে অনুরাগের। সঙ্গে কৃশানুর পুরনো ম্যাচের নানা ক্লিপিংসও বারবার দেখছেন, যাতে সুপারস্টার ফুটবলারের সেই সমস্ত ট্রেডমার্ক মুভমেন্টগুলো ঠিকঠাক করতে পারেন। “আমি খুব খাটছি। আশা করছি কৃশানু দে’র ভক্তদের আমার অভিনয় ভাল লাগবে,” বললেন অনুরাগ। টিভিওয়ালা মিডিয়ার কর্ণধার অমিত গঙ্গোপাধ্যায় বললেন, “আসলে কৃশানু দে হলেন ভারতীয় মারাদোনা। কেন তাঁকে আমাদের মারাদোনা বলা হত সেই ব্যাপারটাই আমরা তুলে ধরার চেষ্টা করব এই ওয়েব সিরিজে। কোনও ভারতীয় ফুটবলারকে নিয়ে এর আগে কোনও দিন ওয়েব সিরিজ হয়নি।” কৃশানুপত্নী শর্মিলা দে আবার নস্ট্যালজিক হয়ে পড়ছেন। বলছিলেন, “রন্টু (কৃশানু) এত বড় ফুটবলার হলেও কখনও কোনও বড় পুরস্কার পায়নি। তাই এই ওয়েব সিরিজ একটা পুরস্কারের থেকে কম কিছু নয়।”

[আরও পড়ুন: ধোনি বা কোহলি নন, সৌরভকেই সেরা অধিনায়ক বাছলেন সন্দীপ পাটিল]

গত পাঁচ-ছ’মাস ধরে কৃশানু দে’র জীবন নিয়ে পুরোদমে রিসার্চের পর আগামী সপ্তাহ থেকে শুরু হচ্ছে শুটিং। আর ওয়েব সিরিজের নাম? সহজ তো। যা ছিল আটের দশকের বাঙালির চিরআবেগের নাম- ‘কৃশানু কৃশানু’!

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং