৯ আশ্বিন  ১৪২৭  মঙ্গলবার ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

মাস্টার ব্লাস্টার নন, ছেলে অর্জুনের রোল মডেল অন্য দুই ক্রিকেটার

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: January 12, 2018 11:25 am|    Updated: January 12, 2018 11:25 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বাইশ গজে দুর্দান্ত পারফর্ম করে অস্ট্রেলিয়ার সংবাদ মাধ্যমের শিরোনামে উঠে এসেছেন অর্জুন তেণ্ডুলকর। শুধু বাবার নামই যে সাফল্যের চাবিকাঠি নয়, তার জন্য প্রয়োজন আত্মত্যাগ ও ভাল পারফরম্যান্স, এ কথা ভালই জানেন শচীন পুত্র। আর সেই কারণেই ব্যাটে-বলে নিজের ফর্ম দিয়েই অজি সাংবাদিকদের মন জয় করেছেন অর্জুন। কিন্তু তারই মধ্যে এমন একটি অজানা তথ্য সামনে এল, যা শুনে বেশ অবাক সকলেই। যে শচীন তেণ্ডুলকরকে দেশবাসী ক্রিকেটের ঈশ্বরের আসনে বসিয়েছে, যিনি বিরাট থেকে রোহিত শর্মা প্রত্যেকের কাছে আদর্শ ও অনুপ্রেরণা সেই শচীন কিনা নিজের ছেলেরই হিরো নন!

[২০৮ রান তাড়া করতে না পারার অজুহাত হয় না, বিরাটদের তোপ শ্রীকান্তর]

বৃহস্পতিবার বওরালের ডন ব্র্যাডম্যান ওভালে বিপক্ষকে একাই নড়বড়ে করে দিয়েছিলেন ১৮ বছরের অর্জুন। ক্রিকেট গ্লোবাল চ্যালেঞ্জে ভারতের ক্রিকেট ক্লাবের জার্সি গায়ে শুধু ২৭ বলে দুর্দান্তু ৪৮ রানই করলেন না, হাত ঘুরিয়ে তুলে নেন চারটি উইকেটও। তাছাড়া গত বছরেও কোচবিহার ট্রফিতে নজর কেড়েছিলেন অর্জুন। রেলের বিরুদ্ধে প্রথম চার ব্যাটসম্যানকে আউট করে দলের জয়ের অন্যতম কাণ্ডারি হয়ে উঠেছিলেন মাস্টার ব্লাস্টারের ছেলে।

[ব্যাটে নয়, অন্য যে যে কাজে বিশ্ববাসীকে চমকে দিয়েছিলেন দ্রাবিড়]

ক্রিকেট গ্লোবাল চ্যালেঞ্জে নিজের পারফরম্যান্সে বেশ খুশি অর্জুন। বলছিলেন, “ব্র্যাডম্যান নামাঙ্কিত স্টেডিয়ামে খেলতে পারাটাই আমার কাছে দারুণ গর্বের।” ব্যাটসম্যান নয়, ভবিষ্যতে নিজেকে বোলার হিসেবেই দেখতে চান তিনি। আর তাই বিশ্বের সর্বকালের অন্যতম সেরা ব্যাটসম্যান শচীন তথা বাবা ততটা অনুপ্রেরণা জোগায় না অর্জুনকে। তাহলে অর্জুনের আইকন কে? কাকে সামনে রেখে সফল বোলার হওয়ার স্বপ্ন দেখেন তিনি? এককালে সুলতান অফ সুইং ওয়াসিম আক্রমের থেকে বোলিং টিপস পাওয়ার সৌভাগ্যও হয়েছিল অর্জুনের। তাঁকে শ্রদ্ধা করলেও জুনিয়র তেণ্ডুলকরের রোল মডেল অন্য দুই তারকা। অর্জুনের থেকেই জানা গেল, তাঁর আদর্শ হলেন অজি পেসার মিচেল স্টার্ক এবং ইংল্যান্ডের অলরাউন্ডার বেন স্টোকস। শচীন প্রথম থেকেই চেয়েছিলেন ছেলে তাঁর পথেই এগিয়ে যাক। বাবার স্বপ্ন পূরণে বদ্ধপরিকর ছেলেও। তাই অন্য কেউ আদর্শ হলেও দুঃখ নেই। কারণ শচীনের শুধু আশা, ছেলেকে ভারতীয় জার্সি গায়ে দেখার।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement