৮ ফাল্গুন  ১৪২৬  শুক্রবার ২১ ফেব্রুয়ারি ২০২০ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

স্টাফ রিপোর্টার: না। আর কোনও বিভ্রান্তি নেই। ইস্টবেঙ্গলকে অবনমনের হাত থেকে বাঁচাতে ফের আসছেন বিশ্বকাপার জনি অ্যাকোস্টা (Johnny Acosta)।

EB-Mario
যেদিন থেকে ইস্টবেঙ্গল (East Bengal FC) কোচ মারিও মার্টিকে ছাড়ার সিদ্ধান্ত নেন, সেদিনই ঠিক হয়ে যায় প্রাক্তন বিশ্বকাপার জনি অ্যাকোস্টাকে ডিফেন্সে ফিরিয়ে আনা হবে। জনিকে ফিরিয়ে আনার পিছনে কারণ হল, মারিওর খেলানোর স্টাইলের সঙ্গে পরিচিত তিনি। তা ছাড়া এই মুহূর্তে ভাল বিদেশি স্টপার যিনি আবার ফ্রি রয়েছেন, খুঁজে পাওয়াও মুশকিল। সমস্যা আরও রয়েছে। নতুন স্টপার কাউকে নিয়ে এলে তাঁকে দলের সঙ্গে মানিয়ে নিতেও অনেকটা সময় দিতে হবে। এসব কারণেই কোচের মতোই টিম ম্যানেজমেন্ট ঠিক করে নেয়, মার্টিকে যখন ছেড়েই দেওয়া হচ্ছে তখন জনি অ্যাকোস্টাকে নিয়ে আসাই সবচেয়ে সেফ।

[আরও পড়ুন: জয় অধরাই, পাঞ্জাবের কাছে আটকে লিগে দুঃসময় অব্যাহত ইস্টবেঙ্গলের]

কিন্তু কবে আসবেন জনি? ইস্টবেঙ্গলের পরের ম্যাচ ১৭ ফেব্রুয়ারি, ইন্ডিয়ান অ্যারোজের বিরুদ্ধে। সেই ম্যাচ থেকে বিশ্বকাপারের খেলা অসম্ভব। ভারতে আসার জন্য জনি অ্যাকোস্টার যে যে কাগজপত্র লাগে, ক্লাবের তরফে তারই প্রস্তুতি চলছে। যে কারণে নিশ্চিতভাবে বলা যাচ্ছে না কবে তিনি ভারতে আসছেন। তবে আশা করাই যায়, ২৩ ফেব্রুয়ারি চার্চিল ব্রাদার্স ম্যাচ থেকে মাঠে নামবেন ইস্টবেঙ্গলে খেলে যাওয়া প্রাক্তন বিশ্বকাপার।

eb-acosta_web

[আরও পড়ুন: মার্টির বদলে ইস্টবেঙ্গলে স্প্যানিশ ডিফেন্ডার, টিকিট বিক্রি নিয়ে চিন্তায় কর্তারা]

মার্টির জায়গায় জনি অ্যাকোস্টার নাম ভাবা হলেও যে মুহূর্তে বেঙ্গালুরুর স্প্যানিশ মিডফিল্ডার কাম ডিফেন্ডার ভিক্টর পেরেজের নাম ঘোষণা হয়, সবাই ভেবেছিলেন জনি আসার সম্ভাবনা হয়তো বন্ধ হয়ে গেল। কিন্তু ঘটনা হচ্ছে, জনিকে কোনও মিডফিল্ডার নয়, স্টপারে মার্টির বিকল্প হিসাবেই ভাবা হয়েছে। এখন প্রশ্ন হল, মার্টির পর তা হলে দল থেকে বাদ পড়বেন কোন বিদেশি? এক্ষেত্রে ভাসছে কোলাডোর নাম। চোট এবং খারাপ ফর্মে জর্জরিত ইস্টবেঙ্গলের একসময়ের ত্রাতা। অ্যাকোস্টা আসার পর কোলাডোকে ছেড়ে দেওয়া হলে অবাক হওয়ার কিছু থাকবে না।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং