BREAKING NEWS

০৯ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৯  বুধবার ২৫ মে ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

কাটল জট, ১৭ নভেম্বর থেকে একসঙ্গে শুরু হবে আই লিগ-আইএসএল

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: June 11, 2017 4:25 am|    Updated: June 11, 2017 4:25 am

I league and ISL likely to kick start jointly on 17th november

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: অবশেষে জট খুলল আইএসএল-আই লিগ নিয়ে৷ দুটো প্রতিযোগিতাই একসঙ্গে সমান্তরাল ভাবে শুরু হবে ১৭ নভেম্বর৷ ঠিক হয়েছে, আইএসএল-আই লিগ একসঙ্গে শুরু হওয়ার পর প্রথম লেগ শেষে দুটো লিগ থেকেই বেছে নেওয়া হবে প্রথম চারটি দল৷ এবার আইএসএল আর আই লিগের এই আটটি দলকে নিয়ে হবে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ৷ এই চ্যাম্পিয়ন্স লিগের বিজয়ী দল খেলবে এএফসি চ্যাম্পিয়ন্স লিগ৷ আর রানার্স খেলবে এএফসি কাপ৷ তবে সুপার কাপ কিংবা ফেডারেশন কাপ কোনওটাই হবে না৷

শেষ চারে উঠতে প্রোটিয়াদের বিরুদ্ধে এটাই বিরাটের নয়া স্ট্র্যাটেজি

কলকাতার দুই প্রধানের সরাসরি আইএসএলে খেলার সুযোগ না হলেও, লিগেই ফের একসঙ্গে খেলার সুযোগ তৈরি হওয়াতে এদিন দিল্লির সভায় ফেডারেশন সভাপতি প্রফুল্ল প্যাটেলের পরামর্শে আই লিগের ক্লাবগুলি মোটামুটি ভাবে রাজি হয়ে গিয়েছে৷ তবে ইস্টবেঙ্গল-মোহনবাগান প্রতিনিধিরা জানান, আইএফএ সচিবের উপস্থিতিতে সোমবার তারা নিজেদের মধ্যে পুরো ব্যাপারটা নিয়ে একটু আলোচনা করে বুধবার ফের ফেডারেশনের সঙ্গে বসে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিয়ে নেবে৷ তবে ফ্র্যাঞ্চাইজি ফি ছাড়াই আইএসএলের সঙ্গে খেলার সুযোগ চলে আসায়, আই লিগের ক্লাবগুলির এই প্রস্তাবে আপত্তি নেই৷

[OMG! বোল্টের সঙ্গে রেসিং ট্র্যাকে নামবেন মেসি!]

আইএসএল-আই লিগ নিয়ে জট কাটাতে কিছুদিন আগে এএফসি চারটে অপশন দিয়েছিল ভারতীয় ফুটবল কর্তাদের সামনে৷ এই চারটে অপশনের মধ্য থেকে কোনটা বেছে নেওয়া হবে তা ঠিক করতেই এদিন আই লিগের স্টেক হোল্ডারদের সঙ্গে আলোচনায় বসেছিলেন ফেডারেশন কর্তারা৷ এই মরশুমে আইএসএল আর আই লিগ ক্লাবগুলিকে নিয়ে কিছুতেই একটা লিগ করা সম্ভব নয়৷ তাই শুরুতেই আলোচনায় এএফসির প্রথম অপশন বাদ দিয়ে দেওয়া হয়৷ তখন আলোচনা হয়, এএফসির দ্বিতীয় অপশন নিয়ে৷ অর্থাৎ, যেভাবে চলছে, সেইভাবেই আগে কয়েকমাস আইএসএল, তারপর আই লিগ৷ এএফসির এই প্রস্তাবে রাজি ছিলেন আইলিগ কর্তারা৷ কিন্তু ফেডারেশন কর্তারা বলেন, জুনিয়র বিশ্বকাপের জন্য নভেম্বরের আগে শুরু হবে না আইএসএল৷ তাই আইএসএল আর আই লিগ আলাদা আলাদা করে করার কোনও সম্ভাবনাই নেই৷ তখন এএফসির তৃতীয় অপশন নিয়ে কথা হয়৷ যে পয়েণ্টে সকলের একমত হওয়া ছাড়া জট খেলার আর কোনও উপায় ছিল না৷

আই লিগের ক্লাব, আইএসএল ফ্র্যাঞ্চাইজি এবং সব থেকে গুরুত্বপূর্ণ ফুটবলারদের সারা মরশুমের বেতনের কথা ভেবে তখন ঠিক হয়, ১৭ নভেম্বর থেকে দুটো লিগই একসঙ্গে শুরু হবে৷ প্রথম লেগ শেষ হলে উভয় লিগ থেকে বেছে নেওয়া হবে প্রথম চারটি দলকে৷ তারপর চ্যাম্পিয়ন্স লিগ নাম নিয়ে শুরু হবে আট দলের লিগ৷ যেটা হতে পারে দশ দলেরও৷ যেখানে আই লিগের দলগুলির আইএসএলের দলগুলির সঙ্গে খেলার সুযোগ থাকছে৷ জানানো হয়, চ্যাম্পিয়ন্স লিগের চ্যাম্পিয়ন ক্লাব খেলবে এএফসি চ্যাম্পিয়ন্স লিগে৷ রানার্স এএফসি কাপে৷ এই নিয়মে আইএসএল দলগুলিরও সরাসরি এএফসি-তে খেলার সুযোগ থাকছে৷ তাই আইএমজিআরেরও অসন্তুষ্ট হওয়ার কথা নয়৷ সঙ্গে ঠিক হয়েছে, শুরুতে বেশি সংখ্যক বিদেশি নিয়ে খেললেও, যখন আই লিগের দলগুলির সঙ্গে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ খেলবে, তখন এএফসির নিয়ম অনুযায়ী চারজন বিদেশি নিয়েই খেলতে হবে আইএসএল দলগুলিকে৷

বিতর্কের মুখে পড়ে অবশেষে ক্ষমা চাইল সৌদি ফুটবল সংস্থা

যেহেতু দুটো লিগ একসঙ্গে শুরু হবে, তাই আই লিগের স্টেক হোল্ডাররা বলেন, “যেভাবে আইএসএলের সম্প্রচার হয়, সেভাবে আই লিগ সম্প্রচার হয় না৷ সেই কারণেই সমান্তরাল ভাবে শুরু হলে পিছিয়ে পড়বে আই লিগ৷” স্টেক হোল্ডারদের বক্তব্য শুনে প্রফুল্ল প্যাটেল কথা দেন, “যেভাবে ১৪টি ক্যামেরা দিয়ে হাই ডেফিনিশনে আইএসএলের সম্প্রচার হয়, ঠিক সেভাবেই আই লিগেরও টিভি সম্প্রচার করবে স্টার স্পোর্টস৷” তখন কথা ওঠে আই লিগের খারাপ মার্কেটিং নিয়ে৷ তাই আইএসএলের সঙ্গে পেরে ওঠে না আই লিগ৷ ফেডারেশন সভাপতি সেখানেও প্রতিশ্রূতি দেন, “যথেষ্ট গুরুত্ব দিয়েই আইলিগেরও মার্কেটিং করা হবে৷” ইস্টবেঙ্গল-মোহনবাগান প্রতিনিধিরা বলেন, এদিনের মিটিংয়ের মিনিটস নিয়ে উৎপল বাবুর সঙ্গে তাঁরা ফের সোমবার বসবেন৷ তারপর বুধবারের মধ্যে ফেডারেশনকে সব কিছু চূড়ান্ত করে জানিয়ে দেবেন তাঁরা৷ এদিনের মিটিংয়ে ফলে তিনি খুশি কী না জিজ্ঞাসা করা হলে মোহনবাগান সহ-সচিব সৃঞ্জয় বোস বলেন, “ভাল হল না, খারাপ হল, তা ভবিষ্যতই বলবে৷ আমরা আইএফএ সচিবের সঙ্গে আলোচনা করে বুধবারের মধ্যে সিদ্ধান্ত জানাব৷” ইস্টবেঙ্গল প্রতিনিধি দেবব্রত সরকার বলেন, “সরাসরি. হয়তো আইএসএলে খেলার সুযোগ হচ্ছে না৷ তবে ঘুরিয়ে আমরা কিন্তু আইএসএল দলগুলির সঙ্গেই খেলার সুযোগ পাচ্ছি৷” যেহেতু আইএসএল দলগুলির সঙ্গেই খেলার সুযোগ থাকছে, তাই আই লিগ ক্লাবগুলি মনে করছে, স্পনসর পেতে অসুবিধা হবে না৷

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে