BREAKING NEWS

৯ আশ্বিন  ১৪২৭  রবিবার ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

সেঞ্চুরিয়ন টেস্টে টিম ইন্ডিয়ার ভরসা এখন বিরাটের চওড়া ব্যাট

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: January 14, 2018 3:45 pm|    Updated: January 14, 2018 3:48 pm

An Images

দক্ষিণ আফ্রিকা (প্রথম ইনিংস)- ১১৩.৫ ওভারে ৩৩৮ 

ভারত (প্রথম ইনিংস)- ৬১ ওভারে ১৮৩/৫

ভারত পিছিয়ে ১৫২ রানে।

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: এক ম্যাচ দেখেই কেন বাদ শিখর ধাওয়ান? কেন দলে ঠাঁই পেলেন না আজিঙ্ক রাহানে? কেন বাদ পড়লেন ঋদ্ধিমান সাহা? সেঞ্চুরিয়ন টেস্টে ভারতের প্রথম একাদশ দেখে এই প্রশ্ন তুলতে শুরু করেছিলেন সুনীল গাভাসকরের মতো প্রাক্তন ক্রিকেটাররা। আরেক প্রাক্তনী বীরেন্দ্র শেহবাগ তো বলেই দিলেন, এই টেস্টে ব্যর্থ হলে বসা উচিত বিরাট কোহলিরও। তবে ভারত অধিনায়ক পরের ম্যাচে বসবেন কিনা সেটা পরের প্রশ্ন, দ্বিতীয় দিনের শেষে কিন্তু বলাই যায় যে সেঞ্চুরিয়ন টেস্টে ভারতের ঘুরে দাঁড়ানোটা নির্ভর করছে সেই বিরাটের উপরেই। যদিও পাঁচ উইকেট হারিয়ে চাপে রয়েছে টিম ইন্ডিয়া। তবে যতক্ষণ ক্রিজে কোহলি নামক ব্যাটসম্যান রয়েছেন, ততক্ষণ আশায় বুক বাঁধতেই পারেন দেশের ক্রিকেটপ্রেমীরা। দিনের শেষে ভারতের রান পাঁচ উইকেটে ১৮৩। টিম ইন্ডিয়া পিছিয়ে ১৫২ রান।

[টি-টোয়েন্টিতে সেঞ্চুরি হাঁকিয়ে নয়া রেকর্ড গড়লেন ঋষভ]

প্রথম দিনের ২৬৯/৬ উইকেট থেকে খেলা শুরু করে দক্ষিণ আফ্রিকার প্রথম ইনিংস শেষ হয় ৩৩৫ রানে। সৌজন্যে প্রোটিয়া অধিনায়ক ফাফ ডু প্লেসিসের দুর্দান্ত ৬৩ রান। মহারাজ, রাবাদারাও তাঁকে যোগ্য সঙ্গত দেন। জবাবে ব্যাট করতে নেমে শুরুটা ভালই করেছিলেন লোকেশ রাহুল এবং মুরলি বিজয়। কিন্তু ব্যক্তিগত ১০ রানের মাথায় মর্কেলকে তাঁর বলেই ক্যাচ দিয়ে প্যাভিলিয়নে ফেরেন রাহুল। এরপর তিন নম্বরে নামা পূজারা এক বল খেলেই আউট হন। বিজয়ের সঙ্গে ভুল বোঝাবুঝিতে রানআউট হন তিনি। এরপরই দলের হাল ধরেন বিজয় এবং ভারত অধিনায়ক কোহলি। দু’জনে মিলে ম্যাচে ফেরার লড়াই চালাতে থাকেন।

[কেন বাদ ভুবি-ঋদ্ধি? কিংবদন্তিদের তীব্র সমালোচনার মুখে বিরাট]

তাঁদের ৭৯ রানের পার্টনারশিপের পর ফের একবার খেলায় ফেরে দক্ষিণ আফ্রিকা। মহারাজের বলে ডি’কককে ক্যাচ দিয়ে প্যাভিলিয়নে ফেরেন বিজয়। ডানহাতি এই ব্যাটসম্যানের সংগ্রহ ৪৬ রান। এরপর একে একে রোহিত (১০), পার্থিবও (১৯) অল্প রানে আউট হয়ে যান। একদিকে যখন উইকেট পড়ছে, অপরদিকে পালটা লড়াই চালিয়ে যান কোহলি। দিনের শেষে ৮৫ রানে অপরাজিত রয়েছেন ভারত অধিনায়ক। তাঁর সঙ্গে ক্রিজে রয়েছেন হার্দিক পাণ্ডিয়া(১১)।

[পৃথ্বীর চওড়া ব্যাটে অজি বধ, যুব বিশ্বকাপে দুর্দান্ত শুরু ভারতের]

প্রথম টেস্টের মতো বলের সিম মুভমেন্ট নেই এই টেস্টে। স্পিনাররাও সাহায্য পাচ্ছেন পিচ থেকে। যার প্রমাণ, রবিচন্দ্রন অশ্বিন এবং দক্ষিণ আফ্রিকার কেশব মহারাজ। বিশেষজ্ঞদের মতে, ভারত যদি প্রোটিয়াদের থেকে ১০০ রানও বেশি করতে পারে, তাহলে অ্যাডভান্টেজ পেতে পারে টিম ইন্ডিয়া। তবে তৃতীয় দিনের শুরুটা ভাল না হলে, প্রাক্তনদের কড়া প্রশ্নের উত্তর দিতে হবে বিরাটকে।

 

[দঃ আফ্রিকায় বিরাটদের হোটেল লাগোয়া মলে ভাঙচুর, বাড়ল নিরাপত্তা]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement