BREAKING NEWS

১৫ মাঘ  ১৪২৮  শনিবার ২৯ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

SAI-এর গভর্নিং বডিতে জোয়ালা গুট্টা-গগন নারাং

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: March 17, 2017 10:59 am|    Updated: March 17, 2017 3:17 pm

Jwala Gutta, Gagan Narang on SAI governing body

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: অলিম্পিক থেকে শুরু করে আন্তর্জাতিক মঞ্চে ভারতের পারফরম্যান্স যাতে আরও ভাল হয় সেজন্য আরও একটি নতুন পদক্ষেপ নিল স্পোর্টস অথরিটি অব ইন্ডিয়া (সাই)। মহিলা ব্যাডমিন্টন খেলোয়াড় জোয়ালা গুট্টা, শুটার গগন নারাং এবং অবসরপ্রাপ্ত আইএএস অফিসার বি ভি পাপ্পা রাও-কে গভর্নিং বডিতে নিযুক্ত করল সংস্থাটি। এর মধ্যে জোয়ালা গুট্টা এবং গগন নারাং-এর নাম মনোনীত করেছে ক্রীড়া মন্ত্রক। আর পাপ্পা রাওয়ের নাম মনোনীত করেছে কেন্দ্র। এর আগে গর্ভনিং বডিতে আরও ছ’জন ক্রীড়াবিদকে মনোনীত করেছিল ক্রীড়া মন্ত্রক। তাঁরা হলেন প্রাক্তন ক্রিকেটার চেতন চৌহান, প্রাক্তন ক্রীড়াবিদ সাইনি উইলসন ও অশ্বিনী নাচাপ্পা, প্রাক্তন ভারোত্তলক কুঞ্জু রঞ্জি দেবী, প্রাক্তন হকি খেলোয়াড় এম পি গনেশ এবং তিরন্দাজ অভিষেক বর্মা।

[জুনিয়র ফুটবল বিশ্বকাপের সাংগঠনিক কমিটির সহ-সভাপতি হলেন বাবুল সুপ্রিয়]

সাই-এর গর্ভনিং বডির সদস্য হতে পেরে রীতিমতো উচ্ছ্বসিত জোয়ালা। বলেন, ‘ভাবিনি হঠাৎ করে এই সুযোগটা পেয়ে যাব। ক্রীড়াক্ষেত্রে দেশের হয়ে সেবা করার ফল পেয়েছি। খেলা থেকে আমি যা যা পেয়েছি, তার থেকেও বেশি কিছু ফিরিয়ে দিতে চাই। এটা আমার অনেকদিনের ইচ্ছে ছিল, যা অবশেষে পূরণ হল। এজন্য সরকারকে ধন্যবাদ।’ এখানেই না থেমে তিনি আরও যোগ করেন, ‘আমি চাই দেশের মানুষ খেলার প্রতি নিজেদের মনোভাব পরিবর্তন করুক। আমি চাই যেকোনও খেলাকে শখ বা ফিটনেস নয়, সবাই প্রফেশন হিসেবেও দেখুক। ব্যাডমিন্টন খেলার ক্ষেত্রে অনেক সময়েই বৈষম্য লক্ষ্য করা যায়। সেটা দূর করার প্রচেষ্টাও করব। প্রত্যেক খেলোয়াড়ের দিকেই আমি বিশেষ নজর দেব। যাতে অলিম্পিকে একটি বা দু’টি মেডেল নয়, দশটি মেডেলই আমাদের ছেলেমেয়েরা জিততে পারে। আর্থিক বা ফিটনেস বা ব্যক্তিগতভাবে সবসময় আমি খেলোয়াড়দের পাশে দাঁড়াতে চাই। গর্ভনিং বডির প্রত্যেকে একসঙ্গে দেশের খেলাধূলার উন্নতির কাজ করব।’

[কাশ্মীর জঙ্গিদের সঙ্গে ভয়াবহ গুলির লড়াই নিরাপত্তারক্ষীদের]

একই সুর শুটার গগন নারাংয়ের গলাতেও। ২০১২ লন্ডন অলিম্পিক ব্রোঞ্জজয়ী গগন বলেন, ‘সাইয়ের গভর্নিং বডিতে যুক্ত হতে পেরে আমি খুবই খুশি। দেশবাসীর কাছ থেকে আমি অনেক সমর্থন এবং ভালবাসা পেয়েছি। দেশকে কিছু ফিরিয়ে দেওয়াটা আমার চিরকালীন স্বপ্ন ছিল। আমি অনেক কিছুই ভেবেছিলাম কিন্তু প্রয়োগ করার জন্য সঠিক মঞ্চ পাচ্ছিলাম না। এবার সেই সুযোগ পেয়েছি। প্রত্যেকটি খেলার ক্ষেত্রেই ভারতে অনেক প্রতিভা রয়েছে। কিন্তু নিজেদের মেলে ধরার তাঁরা সুযোগ পায় না। যেহেতু আমি নিজেও একজন খেলোয়াড়, তাই আমি জানি একজন অ্যাথলিটের কী কী প্রয়োজন হয়। সেগুলিই আমি কমিটির সামনে তুলে ধরব।’

[কীভাবে লড়তে হবে জঙ্গলে, ভিয়েতনামের সেনাকে শেখাচ্ছেন ভারতীয় জওয়ানরা]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে