১২ আশ্বিন  ১৪২৭  বুধবার ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

২০৮ রান তাড়া করতে না পারার অজুহাত হয় না, বিরাটদের তোপ শ্রীকান্তর

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: January 11, 2018 11:51 am|    Updated: January 11, 2018 12:30 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: হোক না দক্ষিণ আফ্রিকার মাঠে খেলা। কিন্তু তা বলে হাতে যেখানে প্রায় দেড় দিনের মতো বাকি, সেখানে টেস্ট ক্রিকেটে মাত্র ২০৮ রান তাড়া করে জেতা যাবে না কেন? দক্ষিণ আফ্রিকা বনাম ভারত প্রথম টেস্টে বিরাট কোহলিদের এমন ভরাডুবির পর চুপ থাকতে পারলেন না কৃষ্ণমাচারি শ্রীকান্ত। ভারতের প্রাক্তন তারকা ওপেনার ‘অবাক’ হারের জন্য দায়ী করলেন ভারতের ব্যাটিং লাইন আপের টপ অর্ডারকে। তবে বোলারদের প্রশংসা করতে ভুললেন না তিনি।

[মেয়ের জন্য সুরেশ রায়নার নয়া গান, প্রশংসায় পঞ্চমুখ শচীন-শেহওয়াগরা]

কেরিয়ারে তিনি ছিলেন যে কোনও বোলারের কাছে ত্রাস। প্রতিপক্ষ যেই হোক না কেন, ওপেনে শ্রীকান্ত নামা মানে ঝড়ের গতিতে রান উঠবে। নিজের দিনে যে কোনও প্রতিপক্ষকে একাই শেষ করে দিতে পারতেন। এক ইংরেজি ওয়েবসাইটে সাক্ষাৎকার দিতে গিয়ে শ্রীকান্ত জানিয়েছেন, কেপ টাউনে হারের ম্যাচটা তিনি বার্বাডোজ (১৯৯৬-৯৭), এমসিজি ও এসসিজি (১৯৮৫-৮৬) টেস্টে হারের পাশে রাখতে চান। কারণ ওখানেও প্রতিপক্ষকে কম রানে আটকে দিয়ে ম্যাচ জিততে ব্যর্থ হয় ভারত। অর্থাৎ বিদেশে এমন ভরাডুবির ভারতীয় দলের কাছে নতুন নয়। কিন্তু এত কম রান তাড়া করতে গিয়ে সমস্যাটা কোথায় হল? শ্রীকান্ত বলছিলেন, “টপ অর্ডারের ব্যাটসম্যানেরা কোনও অজ্ঞাত কারণে নিজেদের গুটিয়ে রেখেছিল। এবং পরিস্থিতি যখন কঠিন তখন বোকার মতো শট খেলে আউট হয়েছে। হতে পারে ওরা অ্যাডভেঞ্চারের নেশায় ছিল। কিন্তু ওদের বোঝা উচিত, চোখ কান বুঝে অ্যাডভেঞ্চারের নেশায় দলকে ডোবানোটা বোকামি।”

[ব্যাটে নয়, অন্য যে যে কাজে বিশ্ববাসীকে চমকে দিয়েছিলেন দ্রাবিড়]

ম্যাচ হারের পর একটা প্রশ্নই বারবার ঘুরপাক খেয়েছে। ডেল স্টেইন না থাকাতেই এই অবস্থা, তিনি থাকলে কী হত? শ্রীকান্তের জবাব, “২০৮ রান তাড়া করে জিততে না পারলে, কোনও অজুহাত শুনতে ইচ্ছা করে না। সেটাও আবার ওদের সেরা পেসার ডেল স্টেইনকে ছাড়া। নিউল্যান্ডসের উইকেটে কোনও জুজু ছিল না। এই হার মানা যায় না।” তবে বোলারদের প্রশংসা করতে ভোলেননি শ্রীকান্ত। তাঁর মতে, “ওরা খুব তাড়াতাড়ি সবকিছু শিখছে। সেটা দ্বিতীয় ইনিংসে ভারতীয় বোলারদের পারফরম্যান্সেই পরিষ্কার। প্রথম ইনিংসে ওরা বেশ কিছু রান দিয়েছিল। ওটা শেষমেশ ফ্যাক্টর হল ঠিকই। কিন্তু এটাও মনে রাখতে হবে, কিছু ক্যাচও পড়েছে। বোলাররা সেরাটা দিয়েছে। এর বেশ আর কী করবে ওরা?”

[এবার ক্রোমা-ডিকাকে ছেড়ে দেওয়ার পথে মোহনবাগান!]

এদিকে, যা খবর, তাতে সেঞ্চুরিয়নে পরের টেস্টে বেশ কয়েকটা পরিবর্তন হতে চলেছে। শিখর ধাওয়ানের জায়গায় লোকেশ রাহুলের আসাটা প্রায় নিশ্চিত বলা চলে। কিন্তু রাহানে প্রথম এগারোয় আসবেন কি না, সেটা এখনই জোর দিয়ে বলা যাচ্ছে না। রাহানের পরিবর্তে রোহিতকে নিয়ে আসার একমাত্র কারণ হল সাম্প্রতিক ফর্ম। বিরাট সাংবাদিক সম্মেলনে সেকথা বলেওছেন। কোহলি বলছেন, তারা এখনকার ফর্ম বিচার করে রোহিতকে খেলিয়েছেন। শেষ তিনটি টেস্টে ও রান করেছেন। শ্রীলঙ্কার সঙ্গে ফর্মে ছিলেন। তাই রাহানের জায়গায় রোহিত। বরং শোনা যাচ্ছে আর একটা ম্যাচে রোহিতকে সুযোগ দেওয়া হতে পারে।তবে অন্য একটা অঙ্কও কাজ করছে। একজন বোলার কমিয়ে বাড়তি ব্যাটসম্যান খেলানো হতে পারে। সেক্ষেত্রে রাহানে চলে আসবেন। কিন্তু পুরোটাই সেঞ্চুরিয়নের উইকেট দেখার পর। যদি দেখা যায় একেবারে সবুজ পিচ, সেক্ষেত্রে রবিচন্দ্রন অশ্বিনকে বসানো হতে পারে।

[মোহনবাগান ডাকলে আবার কোচিং করাব: সঞ্জয় সেন]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement