০২ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৯  বৃহস্পতিবার ১৯ মে ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

‘বিশ্বকাপে কোচের হাতে হেনস্তার শিকার হয়েছি’, বিস্ফোরক মিতালি

Published by: Sulaya Singha |    Posted: November 27, 2018 8:12 pm|    Updated: November 28, 2018 11:51 am

Mithali Raj slams coach

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে ভারতীয় দল থেকে বাদ পড়া নিয়ে অবশেষে মুখ খুললেন মিতালি রাজ। মঙ্গলবার বিসিসিআই সিইও রাহুল জোহরি এবং ক্রিকেট অপারেশনসের জেনারেল ম্যানেজার সাবা করিমকে লেখা লম্বা একটি চিঠিতে নিজের ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন ওয়ানডে টিমের অধিনায়ক মিতালি। “ক্ষমতায় থাকা কিছু ব্যক্তি আমার কেরিয়ার শেষ করে দেওয়ার চেষ্টা করেছেন।” চিঠিতে এমনই বিস্ফোরক অভিযোগ তুলেছেন তিনি।

[দলে নেই তবু নেটে আছেন, অনুশীলনে স্মিথ-ওয়ার্নারকে কাজে লাগাচ্ছে অজিরা]

বিশ্বকাপের শেষ চারে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে ভারতীয় দলে রাখা হয়নি মিতালিকে। গ্রুপ পর্বে পরপর হাফ সেঞ্চুরি করার পরও তাঁকে দল থেকে ছেঁটে ফেলা নিয়ে উঠেছিল প্রশ্ন। মিতালির বাদ পড়া নিয়ে সুর চড়িয়েছিলেন প্রাক্তন ভারত অধিনায়ক সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়। তবে এই বিতর্কে অধিনায়ক হরমনপ্রিত কউরের পাশেই দাঁড়িয়েছিলেন সিওএ সদস্য ডায়না এডুলজি। সরাসরিভাবে না হলেও পরোক্ষভাবে তিনি বুঝিয়ে দেন, হরমনপ্রিতের সিদ্ধান্ত ঠিকই ছিল। উইনিং কম্বিনেশন না ভাঙতেই মিতালিকে বাইরে রাখার সিদ্ধান্ত। তাই এ নিয়ে প্রশ্ন অবান্তর। এমনিতে বেশ শান্ত স্বভাবেরই ক্রিকেটার হিসেবেই পরিচিত মিতালি রাজ। কিন্তু এবার আর মুখ বুজে সবকিছু সহ্য করতে পারলেন না তিনি। কোচ রমেশ পওয়ার এবং বিসিসিআইয়ের প্রশাসনিক কমিটির (সিওএ) মহিলা সদস্য ডায়না এডুলজির উপর ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন তিনি।

[বিশ্বকাপে বিতর্কের জের, মিতালি রাজের অবসর নিয়ে জল্পনা]

মিতালির কথায়, “কুড়ি বছরের কেরিয়ারে প্রথমবার এতটা কষ্ট পেলাম। এতখানি হতাশ হলাম। এখন ভাবতে হচ্ছে, দেশের জন্য যা করেছি, তার আদৌ কোনও মূল্য আছে তো? কারণ ক্ষমতার আসনে বসে থাকা অনেকেই আমার আত্মবিশ্বাস ভাঙতে চেয়েছেন।” এখানেই থামেননি তিনি। এডুলজিকে একহাত নিয়ে তিনি বলেন, “সিওএ-র সদস্য হিসেবে আমি সবসময় এডুলজিকে সম্মানই করেছি। কিন্তু আমাকে এতদিন ধরে চেনা সত্ত্বেও আমায় বাদ দেওয়ার ঘটনাকে তিনি সমর্থন জানিয়েছেন। এই বিষয়টাই খারাপ লেগেছে।” এদিকে কোচ পাওয়ার তাঁকে নানা অছিলায় এড়িয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেছেন বলে জানান মিতালি। তিনি বলেন, “বিশ্বকাপ চলাকালীন নেটে আমি প্র্যাকটিস করলেই তিনি সেখান থেকে সরে যেতেন। তাঁর সঙ্গে কোনও কথা বলতে গেলে ফোন নিয়ে ব্যস্ত হয়ে পড়তেন। লজ্জাজনক পরিস্থিতিতে পড়তে হত। বোঝাই যেত আমায় এড়িয়ে যাচ্ছেন। তবে কখনওই নিজের মেজাজ হারাইনি।” তবে হরমনপ্রিতের বিরুদ্ধে তাঁর কোনও অভিযোগ নেই। তবে কোচ যে তাঁকে বাদ দিচ্ছেন, এই সিদ্ধান্ত হরমন মেনে নেওয়ায় আঘাত পেয়েছেন মিতালি।

 

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে