BREAKING NEWS

১০ মাঘ  ১৪২৮  সোমবার ২৪ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

এবার রোলাঁ গারোও জোকারের

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: June 6, 2016 11:45 am|    Updated: July 11, 2018 2:18 pm

novak-djokovic-caps-career-grand-slam

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: তিন-তিনবার চেষ্টার পর চতুর্থবার মাধুরী তাঁর হাতের মুঠোয়৷

অ্যান্ডি মারের রিটার্ন নেটে আছড়ে পড়তেই আকাশে ব়্যাকেট ছুড়ে দিলেন৷ যেন বিশ্বাসই হচ্ছিল না তাঁর৷ রোলাঁ গারোর লাল কোর্টে প্রথমবার ফরাসি ওপেন চ্যাম্পিয়ন নোভাক জকোভিচ৷ দীর্ঘদিনের প্রচেষ্টা অবশেষে সফল৷ ২০১২, ২০১৪, ২০১৫ ফরাসি ওপেনের ফাইনালে উঠেও শূন্যহাতে ফিরে যেতে হয়েছিল তাঁকে৷ ২০১৬-তে রোলাঁ গারো কিন্তু তাঁকে খালি হাতে ফেরাল না৷ আর ছাত্রের চ্যাম্পিয়ন হওয়ার উচ্ছ্বাসে ভেসে গেলেন কিংবদন্তি বরিস বেকারও৷ মনে হল তিনিই যেন ছাত্রের সঙ্গে  ট্রফিটা জিতলেন! আসলে দীর্ঘদিনের স্বপ্নপূরণ৷ উচ্ছ্বাস স্বাভাবিক৷ বেকারের সঙ্গে স্টেডিয়ামে ছিলেন গুস্তাভ কুয়ের্তেনও৷ উঠে দাঁড়িয়ে তাঁরা দু’জনেই অভিনন্দন জানালেন ফরাসি ওপেনের নতুন চ্যাম্পিয়নকে৷

দ্বাদশ গ্র্যান্ড স্লাম৷ একইসঙ্গে কেরিয়ার স্লামও হয়ে গেল তাঁর৷ এর আগে  অস্ট্রেলিয়ান ওপেন জিতেছেন ছ’বার৷ উইম্বলডন তিনবার৷ ইউএস ওপেন দু’বার৷ রবিবার বিশ্বের দু’নম্বর টেনিস তারকা অ্যান্ডি মারেকে ৩-৬, ৬-১, ৬-২, ৬-৪ গেমে হারিয়ে ফরাসি ওপেনও নিজের সাম্রাজ্য তৈরি করে ফেললেন তিনি৷

ডোনাল্ড বাজ এবং লড লেভারের ১২টি গ্র্যান্ড স্লাম জয়ের রেকর্ড একইসঙ্গে জকোভিচ টপকে গেলেন৷  শুধু তাই নয়, দুনিয়ার অষ্টম টেনিস  তারকা হিসাবে সবকটি গ্র্যান্ড স্লাম জিতলেন৷ এর আগে রাফায়েল নাদাল, রজার ফেডেরার, আন্দ্রে আগাসি, রয় এমারসন, রড লেভার, ডোনাল্ড বাজ এবং ফ্রেড পেরি চারটি গ্র্যান্ড স্লামই জিতেছিলেন৷ তবে  একটি রেকর্ড তাঁর এখনও অধরাই রয়েছে৷ এক মরশুমে চারটি গ্র্যান্ড স্লাম জয়ের রেকর্ড মাত্র দু’জন জিতেছিলেন৷ একজন রড লেভার৷ অন্যজন ডন বাজ৷ তবে জকোর সামনে চলতি মরশুমে এই রেকর্ড গডার সুয়োগ আছে৷ মরশুমের দুটি গ্র্যান্ড স্লাম ইতিমধ্যেই তাঁর দখলে এসে গিয়েছে৷ বাকি রয়েছে দুটি৷ উইম্বলডন এবং ইউএস ওপেন৷ জিততে পারলেই স্পর্শ করবেন সেই বিরল নজির৷

চ্যাম্পিয়ন হওয়ার পর জকোভিচ বলছিলেন, “অদ্ভুত এক অনুভূতি হচ্ছে৷ রোলাঁ গারোতে যা আগে কখনও মনে হয়নি৷ এটা একটা বিশেষ মুহূর্ত৷ যা কোনওদিন ভুলতে পারব না৷” চ্যাম্পিয়ন হয়ে কোর্টেই শুয়ে পড়ার আগের মুহূর্তে ‘লাভ সাইন’ দেখিয়েছিলেন জকো৷ এর কারণ ব্যাখ্যাও করলেন বিশ্বের একনম্বর তারকা৷ বললেন, “আমি কোর্টে ‘হৃদয়’ এঁকেছিলাম৷ কারণ, কুয়ের্তেন আমাকে অনুমতি দিয়েছিলেন৷ আসলে এই কোর্টের সঙ্গে যে আমার হৃদয়ের বন্ধন তৈরি হয়েছে, তা বোঝানোর জন্যই এই চিহ্ন এঁকেছি৷ ব্যাপারটা আর কিছুই নয়৷” এদিন আরও একটি নজির ছুঁলেন জকো৷ ১৯৯২ সালে জিম কুরিয়র পরপর অস্ট্রেলিয়ান ওপেন ও ফরাসি ওপেন জিতেছিলেন৷ তার এই প্রথম কোনও সার্বিয়ান এই নজির গড়লেন৷

ফাইনালে উঠেই নজির গড়েছিলেন মারেও৷ ১৯৩৭ সালে ফরাসি ওপেন শেষবার ফাইনালে উঠেছিলেন বানি অস্টিন৷ তারপর মারে৷ চেষ্টা করেছিলেন জকোভিচকে চাপে ফেলার৷ প্রথম সেট জিতেও ছিলেন৷ কিন্তু শেষপর্যন্ত আর পারলেন না৷ গ্র্যান্ড স্লামে দশবার সাক্ষাতে জকোর কাছে মারে হারলেন আটবার৷ মোট সাক্ষাৎকারেও জকো এগিয়ে ২৪-১০ ব্যবধানে৷ হতাশ মারে বলছিলেন, “চেষ্টা করলাম৷ পারলাম না৷”

 

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে