BREAKING NEWS

০২ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৯  মঙ্গলবার ১৭ মে ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

বিমানবন্দরে হেনস্তার শিকার প্যারা সাইক্লিস্ট, ঝরল রক্ত

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: October 13, 2016 3:50 pm|    Updated: October 13, 2016 3:50 pm

Paracyclist Aditya Mehta made to remove prosthetic limb, left bleeding

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বেঙ্গালুরু বিমানবন্দর প্যারা সাইক্লিস্ট আদিত্য মেহতার কাছে রীতিমতো আতঙ্কের জায়গা হয়ে উঠেছে৷ কেন? কারণ এই বিমানবন্দরে পা রাখলেই তীব্র হেনস্তার শিকার হতে হয় তাঁকে৷ মাস দুয়েক আগেই এই বন্দরেই চেকিংয়ের সময় আদিত্যকে তাঁর পোশাকের পাশাপাশি কৃত্রিম পাও খুলতে বলা হয়েছিল৷ সেবার নিজেকে সামলে নিলেও এবার যা হল, তা যেন কিছুতেই মেনে নিতে পারছেন না তিনি৷

বেঙ্গালুরু থেকে হায়দরাবাদ যাচ্ছিলেন ২০১৩ সালে প্যারা এশিয়ান সাইক্লিং চ্যাম্পিয়নশিপে জোড়া রুপোজয়ী সাইক্লিস্ট৷ কিন্তু ফের তাঁকে একই ঘটনার শিকার হতে হল৷ এবারও চেকিংয়ের জন্য কৃত্রিম পা খুলতে বলা হল তাঁকে৷ এর জন্য হয়তো খানিকটা মানসিক প্রস্তুতি নিয়েই এসেছিলেন তিনি৷ কিন্তু চেকিংয়ের পরেও যে তাঁর জন্য আরও কিছু খারাপ কিছু অপেক্ষা করছিল, তা হয়তো স্বপ্নেও ভাবেননি আদিত্য৷ বন্দর কর্মীদের চেকিং হয়ে গেলে বিমানে ওঠার জন্য তাড়াহুড়ো করে কৃত্রিম পা পরতে যান তিনি৷ তখনই পায়ে চোট পান৷ ক্ষত স্থান থেকে রক্ত বেরোতে শুরু করে৷

গতবার বিমানবন্দরের কর্মীদের বক্তব্য ছিল, সিকিউরিটি চেকিংয়ের জন্য নাকি কৃত্রিম পা খোলার নিয়ম রয়েছে৷ তাই কৃত্রিম পা না খুললে কোনও প্রতিবন্ধীকে বিমানে ওঠার অনুমতি দেওয়া সম্ভব নয়৷ মঙ্গলবারও একই কথা জানান কর্মীরা৷ আদিত্য জানান, “ওরা জোর করে আমার কৃত্রিম পা খোলা করালো৷ সেটা পরতে অন্তত ৪৫ মিনিট সময় লাগে৷ আমি যখন বন্দরের ভিতরের ঘরে প্রস্থেটিক পা পরছিলাম, তখন এক কর্মী এসে আমায় তাড়া দেন৷ বলেন, বিমান ছাড়ার সময় হয়ে যাচ্ছে৷ তখনই জোর করে কোনওরকমে পা পরে ফেলি৷ বাড়ি ফিরে দেখি পা থেকে রক্ত বেরোচ্ছে৷”

বিমান ছাড়তে ৩০ মিনিট বাকি ছিল৷ সিআইএসএফ আধিকারিক ঠাকুর দাসকে আদিত্য বলেছিলেন, কৃত্রিম পা খুললে তা পরতে ৪৫ মিনিট সময় লাগবে৷ তা সত্ত্বেও তাঁর অনুরোধ রাখা হয়নি৷ বিমান পরিবহন মন্ত্রককে (ডিজিসিএ) গোটা ঘটনাটি জানিয়েছেন আদিত্য৷ তাঁর অনুরোধ, প্রতিবন্ধীদের চেকিংয়ের জন্য ফুল বডি স্ক্যানার ব্যবহার করা হোক৷ কিন্তু এখনও পর্যন্ত এ বিষয়ে কোনও পদক্ষেপ নেওয়া হয়নি৷ বেঙ্গালুরুর পাশাপাশি দিল্লি বিমানবন্দরেও একই ঘটনা ঘটেছিল তাঁর সঙ্গে৷ গত দু’মাসে তিনবার বিমানকর্মীদের কাছে হেনস্তার শিকার হওয়ায় বেশ বিরক্ত ও অপমানিত ভারতীয় প্যারা সাইক্লিস্ট৷

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে