২০ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  মঙ্গলবার ৭ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

পৃথ্বী আলাদা জাতের, টেস্ট জিতে বললেন বিরাট কোহলি

Published by: Tanumoy Ghosal |    Posted: October 7, 2018 8:55 am|    Updated: October 7, 2018 8:56 am

Prithvi is special Cricketer: Virat Kohli

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ভারত বনাম ওয়েস্ট ইন্ডিজ প্রথম টেস্ট যতই একপেশে হোক না কেন, একজন ক্রিকেটারকে ঘিরে তুমুল আকর্ষণের বলয় সৃষ্টি হয়েছে। তিনি, আঠারো বছরের পৃথ্বী শ। রাজকোটে অভিষেক টেস্টেই সেঞ্চুরি করে তীব্র হইচই ফেলে দিয়েছেন তিনি। এবং আঠারো বছরের মুম্বই ওপেনারকে ঘিরে মুগ্ধতা এতটাই যে, স্বয়ং ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহলির পর্যন্ত মনে হচ্ছে, পৃথ্বী আলাদা জাতের ক্রিকেটার।

[আড়াই দিনেই শেষ রাজকোট টেস্ট, রেকর্ড ব্যবধানে জয়ী টিম ইন্ডিয়া]

“পৃথ্বী আর জাড্ডুর (রবীন্দ্র জাদেজা) জন্য দারুণ লাগছে। জীবনের প্রথম টেস্ট ম্যাচে পৃথ্বীকে খেলতে দেখে, ওরকম দাপটের সঙ্গে ব্যাট করতে দেখে একটাই কথা মনে হচ্ছে, পৃথ্বী আলাদা জাতের ক্রিকেটার,” শনিবার টেস্ট জয়ের পর পুরস্কার বিতরণী মঞ্চে এসে বলে দেন কোহলি। সঙ্গে যোগ করেন, “জাড্ডুর কথাও আমি বিশেষ ভাবে বলতে চাই। আমাদের জন্য আগেও ও গুরুত্বপূর্ণ সব রান করেছে। আমরা চেয়েওছিলাম যে, ও সেঞ্চুরি করুক। আমরা বিশ্বাস করি, জাড্ডু একাই ম্যাচ ঘুরিয়ে দিতে পারে।”

ভারত অধিনায়ককে জিজ্ঞাসা করা হয়, ইংল্যান্ড সফরের সঙ্গে ওয়েস্ট ইন্ডিজের টেস্টের কতটা আলাদা? কোহলির জবাব, “দু’টোর কোনও তুলনা হয় না। ইংল্যান্ড সফর অবশ্যই চ্যালেঞ্জের দিক থেকে অনেক কঠিন ছিল। এখানকার পারফরম্যান্স নিয়ে বলতে পারি, আমরা নিখুঁত ক্রিকেট খেলেছি। জানতাম যে, আমাদের ক্ষমতা আছে এই পরিবেশে প্রতিপক্ষকে শাসন করার।” রাজকোট টেস্টের সেরা বাছা হয় পৃথ্বী শ’কে। অভিষেক টেস্টেই ম্যান অব দ্য ম্যাচ—এর পুরস্কার নিতে এসে তিনি বলে যান, “দারুণ একটা জয় পেলাম। আমি নিজে রান পেয়েছি। টিমকে সাহায্য করতে পেরেছি টেস্ট জিততে। নিজের অভিষেকেই যে সেটা করতে পারব, ভাবতে পারিনি। আমি শুধু নিজের স্বাভাবিক খেলাটা খেলতে চেয়েছিলাম। ঠিক করেছিলাম, প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে যে ভাবে খেলি, সে ভাবেই খেলব।”

রাজকোট স্টেট জয়ের পর একটা গুরুত্বপূর্ণ দাবি তুলেছেন ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহলি। তা হল, পরিবেশ পরিস্থিতির কথা ভেবে জল বিরতি বাড়ানো। আইসিসির সর্বশেষ নিয়ম অনুযায়ী, উইকেট পড়লেই এখন জল বিরতি নেওয়া যায়। ওভারের মাঝখানেও নেওয়া যায়, কিন্তু তার জন্য আম্পায়ারের অনুমতি প্রয়োজন। রাজকোটে আম্পায়ারদের দেখা যায়, ভারত এবং ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেটারদের জল বিরতির আবেদনের উপর কড়া নজরদারি চালাতে। রাজকোটের চল্লিশ ডিগ্রি গরমে কাহিল হয়ে পড়েন ক্রিকেটাররা। চেতেশ্বর পুজারার মতো কাউকে কাউকে পকেটে ছোট জলের বোতল ঢুকিয়েও ব্যাট করতে দেখা যায়। ভারত অধিনায়কের মনে হচ্ছে, পরিবেশ-পরিস্থিতি বিচার করে জল বিরতির নিয়মকানুন চালু করা উচিত। “এটা আম্পায়ারদেরই দেখতে হবে। আইসিসির নিয়ম অনুযায়ী এখন বেশি জল বিরতি নেওয়া যায় না। কিন্তু আমরা কী পরিবেশে খেলছি, ভাবা দরকার,” বলে দেন কোহলি। “প্রচণ্ড গরমে চল্লিশ-পঁয়তাল্লিশ মিনিট জল না খেয়ে ব্যাট করাটা খুব কঠিন। আশা করছি, এটা নিয়ে ভাবা হবে।”

[ক্রিকেটের নয়া নক্ষত্র পৃথ্বীকে নিয়ে বিজ্ঞাপনী চমক কলকাতা পুলিশের]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে