১৪ আশ্বিন  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ১ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

সানসিরোয় আজ মাদ্রিদ ডার্বি

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: May 28, 2016 4:19 pm|    Updated: August 21, 2020 7:25 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ফের একটা মাদ্রিদ ডার্বি৷ ফের ইতিহাস গড়ার মুখে দাঁড়িয়ে রিয়াল মাদ্রিদ৷ প্রতিপক্ষকে মাটি ধরিয়ে নিজেদের রেকর্ড ভাঙার লক্ষ্যেই আজ সান সিরোয় নামবেন জিদানের ছেলেরা৷ দ্বিমুকুট জিতে মরশুম শেষ করেছে মেসির বার্সেলোনা৷ কিন্তু রিয়ালের ভাঁড়ার এখনও শূন্য৷ তাই চ্যাম্পিয়ন্স লিগ খেতাব জিতেই মরশুম শেষ করতে মরিয়া রোনাল্ডো৷
এদিকে, ১৬০ মিলিয়ন ইউরোর অ্যাটলেটিকো দল! নামজাদা ক্লাবে বিখ্যাত মুখ তেমন নেই৷ সেই দল নিয়েই হেভিওয়েটদের সঙ্গে টক্কর দিয়ে ফাইনালে পৌঁছেছেন সিমিওনে৷ এবার তাঁর সামনে ৫৬০ মিলিয়ন ইউরোর রিয়াল৷ ২০১৪-র বদলার ম্যাচে নামতে প্রস্তুত তাঁরা৷
শনিবাসরীয় সান সিরোতে কে বাজিমাত করবে? সেই উত্তর জানতেই মুখিয়ে রয়েছে গোটা বিশ্ব৷ ফের ফুটবলপ্রেমীদের রাত জাগার পালা৷ শনিবার মিলানের মেজাজটাও আর পাঁচটা দিনের থেকে অনেকটাই অন্যরকম৷ সপ্তাহান্তে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ফাইনালে ডার্বি ম্যাচ দেখতে চটপট সব কাজ সেরে ফেলছেন ফুটবলপ্রেমীরা৷
২৮ মে সান সিরোতে কি সিআর সেভেনকে দেখা যাবে? সপ্তাহ দুয়েক আগে এটাই ছিল লাখ টাকার প্রশ্ন৷ সেই পর্ব মিটে গিয়েছে৷ স্টিম সেল চিকিৎসার মধ্যে দিয়ে হ্যামস্ট্রিংয়ের চোট সারিয়ে সুস্থ হয়ে ওঠেন তিনি৷ মঙ্গলবার প্র্যাক্টিসে আবার পায়ে চোট পেয়েছিলেন৷ কিন্তু রিয়াল কোচ জানাচ্ছেন, ১০০ শতাংশ ফিট হয়েই মাঠে নামবেন রোনাল্ডো৷ ট্রফি জয়ের লড়াইয়ে নামবে দল, আর রিজার্ভ বেঞ্চে থাকবেন পর্তুগিজ স্ট্রাইকার! এও সম্ভব? দলের সেরা তারকার এখন একটাই লক্ষ্য, ক্লাবকে ১১তম ইউরোপ সেরার শিরোপা দেওয়া৷ দু’বছর আগে এই ডার্বিতেই ১-৪ গোলে হেরে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি হাতছাড়া হয়েছিল অ্যাটলেটিকোর৷ এবার মধুর প্রতিশোধ নিয়ে প্রথমবার খেতাব জিততে মরিয়া সিমিওনে৷

3231142
ভারতীয় সময় রাত ১২ টা বেজে ১৫ মিনিটে শুরু হবে “ক্ল্যাশ অফ দ্য টাইটান্স৷” তার আগে একবার জেনে নেওয়া যাক, চ্যাম্পিয়ন্স লিগ সংক্রান্ত কিছু মূল্যবান তথ্য৷
১. এই নিয়ে ১৪ বার চ্যাম্পিয়ন্স লিগ অথবা ইউরোপীয় কাপ ফাইনালে পৌঁছেছে রিয়াল৷ অন্য কোনও ক্লাব এতবার এই লিগের ফাইনালে ওঠেনি৷ সবচেয়ে বেশিবার লিগ জয়ের রেকর্ডও (১০) রয়েছে তাদের ঝুলিতেই৷ অর্থাৎ ধারে ও ভারে অনেকটাই এগিয়ে রিয়াল৷
২. শেষ চার বছরের মধ্যে তিনবারই একই দেশের দুই ক্লাব ফাইনালে উঠেছে৷
৩. গত ১৬ ম্যাচে রিয়ালের বিরুদ্ধে ৭ টিতে জয়ী অ্যাটলেটিকো৷ ৫টি ড্র ও চারটিতে হার৷ আবার এক্ষেত্রে খাতায়-কলমে এগিয়ে অ্যাটলেটিকোই৷ তবে এখানেও রয়েছে ‘টুইস্ট’৷  ১৬টি ম্যাচের আগের ২৫ টি ম্যাচে আবার রিয়ালকে একবারও হারাতে পারেনি তারা৷
৪. দুই দলের শেষ চার ম্যাচে মোট গোল সংখ্যা চার (প্রতিটি দল দু’টি করে)৷
৫. ২০১৪ সালে কোনও দলের দায়িত্বে প্রথমবারই লিগের ফাইনালে পৌঁছেছিলেন সিমিওনে৷ এবার কোচ হিসেবে প্রথম মরশুমেই রিয়ালকে ফাইনালে তুললেন জিদান৷
উপরের পরিসংখ্যান থেকে স্পষ্ট লড়াইটা হবে সেয়ানে-সেয়ানেই৷

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement