BREAKING NEWS

৭ আশ্বিন  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

রিও গেমস ভিলেজে ঘর পেলেন না লিয়েন্ডার

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: August 5, 2016 2:22 pm|    Updated: August 5, 2016 2:31 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: একমাত্র ভারতীয় হিসেবে সাত নম্বর ওলিম্পিকের মঞ্চে নামতে চলেছেন লিয়েন্ডার পেজ৷ অথচ রিও পৌঁছেই তিনি যে আতিথেয়তা পেলেন, তাতে তাঁর সঙ্গে সঙ্গে হতবাক গোটা টেনিসদুনিয়া৷ এমনটা হয়তো স্বপ্নেও ভাবেননি তিনি৷

কী এমন হল? কিংবদন্তি টেনিসতারকার নাকি রিও গেমস ভিলেজে ঠাঁই হল না! শুনতে অবাক লাগে৷ কিন্তু এটাই সত্যি৷ ৪ আগস্ট যখন নিউইয়র্ক থেকে টুর্নামেন্ট খেলে রিও পৌঁছলেন, তখন গিয়ে দেখেন গেমস ভিলেজে তাঁর জন্য কোনও ঘর নেই৷ অগত্যা শ্যেফ দ্য মিশন রাকেশ গুপ্তার ঘরটি ব্যবহার করতে দেওয়া হয় তাঁকে৷ গোটা ঘটনায় অত্যন্ত অসম্মানিত হয়েছেন লি৷ বলছেন, “খানিকটা হতাশ হলাম৷ ভারতের হয়ে ছ’বার প্রতিনিধিত্ব করেছি৷ অথচ আমারই একটা ঘর জুটল না৷ নিউইয়র্কে একটা টুর্নামেন্ট খেলতে গিয়েছিলাম৷ সকাল ৮ টায় ম্যাচ শেষ হয়েছে৷ ১০.৪৫-এর বিমানেই রিও উড়ে এসেছি৷” আর এসে দেখেন এই হাল!

দলের বাকি সদস্যরা এ মাসের ১ তারিখই ভিলেজে পৌঁছে গিয়েছিলেন৷ তবে লিয়েন্ডারের আসতে যে দেরি হবে, সে কথা নাকি তিনি আগেই সর্বভারতীয় টেনিস সংস্থাকে জানিয়ে রেখেছিলেন৷ তা সত্ত্বেও তাঁকে নিয়ে এত তর্ক-বিতর্ক হচ্ছে দেখে, তিনি রীতিমতো স্তম্ভিত৷ রিওর কোর্টে নামার আগে বাইরের নানা সমালোচনায় জর্জরিত ভারতীয় টেনিস তারকা৷ ঠিক যেমনটা হয়েছিল চার বছর আগে লন্ডন ওলিম্পিকে৷

সেবারও টেনিস দল বাছাই থেকে শুরু করে ওলিম্পিক ভিলেজের মধ্যে মন কষাকষির ব্যাপার – সবই হয়েছিল৷ এবারও হল! ওলিম্পিকে লি-কে পার্টনার হিসেবে চাননি রোহন বোপন্না৷ কিন্তু জাতীয় সংস্থার চাপে রাজি হতে বাধ্য হয়েছিলেন৷ এবার পেজের রিও পৌঁছতে দেরি হওয়া নিয়ে সরব হন ডাবলস তারকা বোপন্না ও দলের নন-প্লেয়িং ক্যাপ্টেন জিশান আলি৷ জিশানের বক্তব্য, লি না আসায় অন্য টেনিস খেলোয়াড়দের সঙ্গে অনুশীলন করতে হচ্ছে বোপন্নাকে৷ অর্থাৎ হাবে-ভাবে যেন তাঁরা বুঝিয়ে দিতে চাইছেন ওলিম্পিকের মঞ্চকে একেবারেই গম্ভীরভাবে নিচ্ছেন না লিয়েন্ডার৷ আর এখানেই আপত্তি ১৯৯৬-এ ব্রোঞ্জজয়ী তারকার৷ খানিকটা বিরক্ত হয়েই তিনি বলেন, “আমি তো আমার ক্রীড়াসূচি জাতীয় সংস্থাকে জানিয়েই গিয়েছিলাম৷ তাহলে এসব কেন হচ্ছে, বুঝতে পারছি না! কোর্টে নামার আগে দু’টো প্র্যাক্টিস সেশন তো পাবই৷”

মাঠের বাইরে লন্ডন ওলিম্পিকের ছায়া কিন্তু এবারও স্পষ্ট৷ তবে কি কোর্টেও সেই ব্যর্থতারই পুনরাবৃত্তি হতে চলেছে? শঙ্কিত টেনিসমহল৷

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement