BREAKING NEWS

১২ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৯  রবিবার ২৯ মে ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

শচীন কন্যার ‘টুইট’ ঘিরে তীব্র বিতর্ক, আসরে মাস্টার ব্লাস্টার

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: October 17, 2017 12:40 pm|    Updated: October 17, 2017 12:40 pm

Sachin Tendulkar’s daughter Sara’s ‘tweet’ almost sparked political battle

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সেলেব সন্তান হয়ে যেমন সহজেই জনপ্রিয়তার শিখরে পৌঁছনো যায়, তেমন এর বিড়ম্বনাও কম নয়। ঠিক কয়েনের উলটো পিঠের মতোই সমস্যাতেও পড়তে হয় সেলেব সন্তানদের। তেমনই ঘটনা ঘটল শচীন কন্যা সারা তেণ্ডুলকরের সঙ্গে। একটি পোস্ট ঘিরে নেটদুনিয়ায় ছড়াল তীব্র বিতর্ক।

sara

ঠিক কী হয়েছিল? টুইটারে সারা তেণ্ডুলকরের নামে একটি অ্যাকাউন্ট রয়েছে। সারার ছবি দিয়েই তৈরি সেই অ্যাকাউন্ট। শচীন কন্যা হওয়ার সুবাদে তার ফলোয়ারের সংখ্যা চোখে পড়ার মতো। আর সেই অ্যাকাউন্ট থেকেই করা হয়েছে একটি টুইট। প্রাক্তন বিসিসিআই চেয়ারম্যান শরদ পাওয়ারের বিরুদ্ধে তোপ দেগে লেখা হয়, “এনসিপি-র (ন্যাশনালিস্ট কংগ্রেস পার্টি) শরদ পাওয়ার যে মহারাষ্ট্রকে লুট করেছে সে কথা সবাই জানে। কিন্তু অনেকেই জানেন না, কেন্দ্রকেও লুট করতে চেয়েছিলেন তিনি।” আর এই টুইট ঘিরেই বিতর্ক শুরু হয়। অনেকেই প্রশ্ন তোলেন, শচীন কন্যা কেন এমন রাজনৈতিক বিষয় নিয়ে টুইট করলেন। ধোঁয়াশা দূর হয় মাস্টার ব্লাস্টারের টুইটে।

[কলম্বিয়াকে উড়িয়ে দিয়ে যুব বিশ্বকাপের শেষ আটে জার্মানি]

sara1

শচীন জানান, “এমন মন্তব্যে বিতর্কের সৃষ্টি হয়েছে। কিন্তু আমার দুই সন্তান সারা এবং অর্জুনের কোনও টুইটার অ্যাকাউন্টই নেই। তাঁদের নাম দিয়ে এমন অ্যাকাউন্ট খুলে বিতর্ক ছড়ানোর চেষ্টা করা হয়েছে।” তাই টুইটার কর্তৃপক্ষের কাছে তিনি আবেদন জানান, যত দ্রুত সম্ভব এ ধরনের সমস্ত নকল অ্যাকাউন্ট যাতে বন্ধ করে দেওয়া হয়। শচীন পুত্র অর্জুন তেণ্ডুলকরের নামেও রয়েছে একটি টুইটার অ্যাকাউন্ট। শচীনের টুইটের পরই অবশ্য টুইটারের তরফে সারা ও অর্জুনের ফেক অ্যাকাউন্ট দুটি সরিয়ে ফেলা হয়েছে। তবে মজা করে নেটিজেনরা লিখেছেন, সারার নকল অ্যাকাউন্ট অনেক সত্যি প্রকাশ্যে আনল।

[দিন্দা-সামির আগুনে স্পেলে ছারখার কাইফরা, সাত পয়েন্ট বাংলার]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে