BREAKING NEWS

১৫  আষাঢ়  ১৪২৯  শনিবার ২ জুলাই ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

কুম্বলের পদত্যাগে বিতর্কের ঝড়, বিরাটকে তুলোধোনা প্রাক্তনদের

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: June 21, 2017 7:57 am|    Updated: May 15, 2021 11:54 am

Shun post as Captain has 'reservation': Anil Kumble

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: কার জন্য ভারতীয় দলের কোচিংয়ের পদ থেকে ইস্তফা দিতে হল অনিল কুম্বলেকে? স্বয়ং জাম্বো না বলে দিলেও এ উত্তর সকলেরই জানা। তিনি বিরাট কোহলি। আর তাই ভারতীয় কিংবদন্তি পদত্যাগ করার পরই দেশ জুড়ে বিরাট কোহলিকে নিয়ে উঠেছে তীব্র সমালোচনার ঝড়। কুম্বলের পাশে দাঁড়িয়ে ভারতীয় ক্রিকেটের এমন হতাশাজনক পরিস্থিতির জন্য বিরাটকেই দুষছে নেটদুনিয়া। বিদায় বেলায় কোহলির বিরুদ্ধে বোমা ফাটালেন কুম্বলেও।

মঙ্গলবারই বিসিসিআই-কে চিঠি দিয়ে নিজের সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছেন কুম্বলে। আর সেই চিঠিতেই কোহলি-কুম্বলে সম্পর্ক স্পষ্ট হয়ে গেল। প্রাক্তন ভারতীয় স্পিনার লিখেছেন, “বিসিসিআই মারফত জানতে পারলাম যে আমার কোচিংয়ের ধরন নিয়ে আপত্তি ছিল ক্যাপ্টেন কোহলির। তাই কোচ হিসেবে আর আমায় চাইছিল না। বিষয়টা জেনে বেশ অবাক হয়েছি। কারণ আমি সবসময়ই কোচ এবং ক্যাপ্টেনের মাঝখানের সীমানাকে সম্মান জানিয়ে এসেছি। বিসিসিআই এই সমস্যা মেটানোর চেষ্টা করেছিল ঠিকই। কিন্তু আমার মনে হয় শৃঙ্খলা, স্বচ্ছতা, পেশাদারিত্ব, একাগ্রতা দিয়েই দলের সঙ্গে ভাল পার্টনারশিপ তৈর করা সম্ভব। ক্যাপ্টেনের আপত্তি ও অপছন্দ থাকলে তা কখনওই শক্তিশালী হয় না। তাই আমার বিশ্বাস, পদত্যাগের সিদ্ধান্ত একদম সঠিক। বোর্ড এবং ক্রিকেট উপদেষ্টা কমিটি (সিএসি) এবার ইচ্ছা মতো কোচ বেছে নিতে পারে।” তাঁকে সমর্থন জানানোয় চিঠিতে সিএসি-কে ধন্যবাদও জানিয়েছেন জাম্বো। তাঁর এই চিঠি প্রকাশ্যে আসতেই গোটা দেশে কোহলির বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন প্রাক্তন ক্রিকেটার থেকে ভক্তরা।

গোটা ঘটনায় ক্ষুব্ধ কিংবদন্তি সুনীল গাভাসকর। দলের ক্রিকেটারদের প্রতি বিষোদ্গার করলেন তিনিও। বলেন, “যদি কোনও ক্রিকেটার মনে করে সেই কোচই ভাল, যিনি বলবেন, আজ আর প্র্যাকটিস করতে হবে না ছুটি নিয়ে নাও বা শপিং করতে চলে যাও, তাহলে সেই ক্রিকেটারকেই দল থেকে বাদ দিয়ে দেওয়া উচিত। এমনটা হলে গত এক বছরে ভারতীয় দল এত ভাল ফর্মে থাকত না।” বিরাটের কড়া সমালোচনা প্রাক্তন ক্রিকেটার মদনলালের মুখেও। তিনি বলছেন, “ভারতীয় দল বোধহয় এমন একজন কোচ চায়, যিনি মুখে কুলুপ এঁটে থাকবেন।”


সোশ্যাল মিডিয়াতেও এ নিয়ে শুরু হয়েছে তোলপাড়। অনেকেই কুম্বলের প্রতি বিরাটের আচরণের সমালোচনা করেছেন। বলছেন, কুম্বলে একজন শান্ত স্বভাবের ব্যক্তি। এটাই কি তাঁর অপরাধ? তাঁকে নিয়ে কোহলির সমস্যা হলে শেহবাগ কোচ হলে কী করবেন কোহলি? পরিসংসখ্যান টেনে এনে অনেকে বলছেন, প্রাক্তন ভারতীয় বোলারের কোচিং কালেই ১৫০৩ রান করেছেন বিরাট। এমনকী টেস্টে ব্যাটসম্যানদের তালিকায় শীর্ষস্থানও ধরে রাখতে পেরেছেন। সে সব কৃতিত্বর মধ্যে কি কুম্বলের কিছুই প্রাপ্য নয়? অনেকের মতে, বিসিসিআই, কোহলি এবং অশ্বিনের ষড়যন্ত্রেই সরতে হল কুম্বলেকে। তবে রবি শাস্ত্রীর সঙ্গে বিরাটের সুসম্পর্কেও নেপথ্য কারণ হিসেবে তুলে ধরা হচ্ছে। আম আদমি থেকে বিশেষজ্ঞমহল, বিরাটের কথায় বোর্ডের নয়া কোচ খোঁজের সিদ্ধান্ত নেওয়া উচিত হয়নি। সকলেই মনে করছেন অনিল কুম্বলের পদত্যাগে ভারতীয় ক্রিকেটের বড়সড় ক্ষতি হয়ে গেল। যার প্রভাব দলের খেলাতেও পড়বে।

এদিকে, কুম্বলের অবসর নেওয়ার পরই টিম ইন্ডিয়ার নয়া কোচ হিসেবে উঠে আসছে পাঁচজনের নাম। তালিকায় সবার উপরে রয়েছেন বীরেন্দ্র শেহবাগ। যাঁর আবেদন জমা দেওয়া নিয়ে ইতিমধ্যেই নানা জলঘোলা হয়েছে। তালিকায় রয়েছে আরও দুই ভারতীয় লালচাঁদ রাজপুত এবং দোদ্দা গণেশের নাম। বিদেশি কোচদের মধ্যে উঠে এসেছে প্রাক্তন অজি ক্রিকেটার টম মুডি এবং ব্রিটিশ তারকা রিচার্ড পাইবাসের নাম। তবে সকলের মধ্যে পাল্লা ভারী শেহবাগেরই বলে মনে করছে ক্রিকেটমহল।

[টিম ইন্ডিয়ার কোচের পদ থেকে ইস্তফা কুম্বলের]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে