BREAKING NEWS

১২ আশ্বিন  ১৪২৭  বুধবার ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

জিতলেও স্ট্রাইকার সমস্যা চিন্তায় রাখবে বস্ককে

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: June 14, 2016 11:27 am|    Updated: June 14, 2016 11:43 am

An Images

স্পেন: ১ (পিকে)

চেক প্রজাতন্ত্র: ০

মনোরঞ্জন ভট্টাচার্য: জানি না দেল বস্কের মাথায় কী চিন্তাভাবনা ছিল৷ কিন্তু ইউরোতে স্পেনকে প্রথম ম্যাচে দেখে মন ভরল না৷ চেক প্রজাতন্ত্রের বিরুদ্ধে ওরা হয়তো জিতল ঠিকই, কিন্তু মনে হল একজন ভাল স্ট্রাইকারের অভাবে ভালই ভুগল৷ ওদের এমন গুটিয়ে থাকার আরও একটা কারণ থাকতে পারে৷ শেষ বিশ্বকাপে স্পেন ভাল পারফর্ম করতে পারেনি৷ ইউরোর মঞ্চে সেই ভয়টা থেকে যেন খোলসে ঢুকে থাকল শেষবারের ইউরো চ্যাম্পিয়নরা৷ manaranjan_web

স্পেন আজকের ম্যাচটা যে স্ট্র্যাটেজিতে খেলল, মনে হচ্ছিল বার্সেলোনার ছক৷ নিজেদের মধ্যে প্রচুর পাস খেলে প্রতিপক্ষকে বিভ্রান্ত করে দেওয়ার চেষ্টা বা সময় বুঝে হঠাত্‍ গতি বাড়িয়ে প্রতিপক্ষ রক্ষণের দুর্গ ভেঙে আক্রমণ সবই হল৷ কিন্তু কিছুতেই গোল আসছিল না৷ হতে পারে জেরার্ড পিকের হেডে গোল প্রথম ম্যাচ জিতিয়ে দিল ওদের, কিন্তু গোটা টুর্নামেন্ট এভাবে খেললে হবে না৷ নতুন কিছু ভাবতে হবে দেল বস্ককে৷

দু’টো দল যদি জেতার জন্য মাঠে নামে তাহলে খেলাটা দেখতে ভাল লাগে৷ চেক প্রজাতন্ত্রকে দেখে মনে হল, ড্র করার জন্যই নেমেছে৷ ওদের কোচ কিন্তু কাজটা প্রায় করেই ফেলেছিল৷ সন্তুষ্ট হলাম না স্পেনের খেলা দেখে৷ ওদের বেশ কয়েকটা ভুল চোখে পড়ল৷ যেমন, নিজেদের মধ্যে এত বেশি পাস খেলছে ওরা, যে সেই সময়ের মধ্যে চেক নিজেদের রক্ষণ অনেক বেশি সংগঠিত করে ফেলছিল৷ একটা দলের প্রায় ৮-৯ জন রক্ষণ করে গেলে প্রতিপক্ষ দলের মুশকিল হয়ে যায়৷ তার উপর দাভিদ ভিয়া বা তোরেসের মতো ভাল মান নয় মোরাতার৷ ছেলেটা চেষ্টা করছিল, কিন্তু এই জায়গাটায় আরও ভাল কিছু ভাবতে হবে বস্ককে৷ তৃতীয় কারণ হিসাবে রক্ষণের কথা বলব৷ র‍্যামোস আর পিকের বয়স বেড়েছে, গতি অনেক স্লথ হয়েছে৷ প্রতিপক্ষ দ্রুতগতিতে আক্রমণ করলে কিন্তু চাপ হবে৷ এই চেকই তো বেশ কয়েকবার গোলের মুখ খুলে ফেলেছিল৷ ডি জিয়া কয়েকটা ভাল সেভ না করলে, স্কোরবোর্ড অন্যরকমও হতে পারত৷

স্পেনের ফুটবলারদের মধ্যে আলাদা করে কারও কথা বলতে হলে ইনিয়েস্তা আর বুসকেটসের কথা বলব৷ বাকিরা যখন নিজেদের মধ্যে স্কোয়ার আর ব্যাক পাস খেলতে ব্যস্ত, ইনিয়েস্তা তখন চেকের রক্ষণ ভেঙে এগোনোর চেষ্টা করছিল৷ শেষ পর্যন্ত ওর ক্রস থেকে গোলটা এল৷ ম্যাচে জাভির অভাবটা চোখে পড়ল৷ ও প্রচুর লোড নিত৷ এখন বুসকেটস সেই কাজটা করছে৷ আরও একটা ব্যাপার৷ স্পেনের দুই সাইড ব্যাক বারবার ওভারল্যাপ করছিল৷ বিশেষ করে জর্ডি আলবা৷ কিন্তু উইং হাফের দু’জন বেশি উঠছিল না৷ স্পেন যখন আক্রমণে উঠছিল, ওরা বারবার ভিতর দিকে ঢুকে যাচ্ছিল৷ ফলে উইং প্লেটাও ঠিকমতো হচ্ছিল না৷ সামনের ম্যাচগুলিতে এই বিষয়ে উন্নতির প্রয়োজন৷

প্রথম ম্যাচ বলে স্পেনের পারফরম্যান্সে এত ভুলত্রুটি চোখে পড়ছে৷ ওরা যদি শুরুতে গোল পেত, তাহলে হয়তো ইনিয়েস্তাদের আরও আক্রমণাত্মক ছন্দে পেতাম৷ যাই হোক, যে কোনও টুর্নামেন্টের প্রথম ম্যাচে জয় বড় ব্যাপার৷ স্পেন আরও বেশি আত্মবিশ্বাসী হবে৷ কিন্তু ইউরোর সামনের ম্যাচগুলিতে ওদের একজন ভাল স্ট্রাইকারের খুব প্রয়োজন৷

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement