BREAKING NEWS

১৩  আষাঢ়  ১৪২৯  মঙ্গলবার ২৮ জুন ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

জঙ্গি হানায় নিহত পূণ্যার্থীদের শ্রদ্ধা জানিয়ে কটাক্ষের শিকার শচীন

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: July 11, 2017 1:17 pm|    Updated: July 11, 2017 1:17 pm

Terrorists should be burnt alive: Geeta Phogat on Amarnath attack

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: অমরনাথ দর্শন করে ফেরার পথে পূণ্যার্থীদের উপর লস্কর জঙ্গিদের হামলা। মৃত্যু হয়েছে সাত পূণ্যার্থীর। জখম বেশ কয়েকজন নিরাপত্তাকর্মী। সন্ত্রাসবাদের ঘটনার নিন্দা করছে গোটা দেশ। জঙ্গিদের বিরুদ্ধে নিজের ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন কুস্তিগির গীতা ফোগাটও। তাঁর মতে, সন্ত্রাসবাদীদের জীবন্ত জ্বালিয়ে দেওয়া উচিত।

কমনওয়েলথ গেমসে দেশকে সোনা এনে দিয়েছেন। তাঁর কঠোর পরিশ্রম ও সাফল্য নিয়ে বলিউডে তৈরি হয়েছে ‘দঙ্গল’। দেশ ছাড়িয়ে চিনেও সে ছবি সুপারহিট তকমা পেয়েছে। নিজের প্রতিভার মধ্যে দিয়েই দেশের প্রতি ভালবাসার প্রতিনিয়ত প্রমাণ দিয়ে গিয়েছেন এই কুস্তিগির। আর তাই নিরীহ দেশবাসীর উপর জঙ্গিদের হামলা কোনওভাবেই মেনে নিতে পারছেন না তিনি। টুইটারে নিজের রাগের কথা জানিয়েছেন তিনি। লিখেছেন, “সন্ত্রাসবাদ নিয়ে অনেক নিন্দা হয়েছে। এবার জঙ্গিদের জীবন্ত জ্বালিয়ে মেরে ফেলার সময় এসে গিয়েছে।”

[আসন্ন বিশ্বকাপ পর্যন্ত বিরাটদের ‘হেডস্যার’ হলেন শাস্ত্রী]

গীতার পাশাপাশি টুইটারকে হাতিয়ার করে গোটা ঘটনার প্রতিবাদ জানিয়েছেন বীরেন্দ্র শেহবাগও। তিনি লেখেন, “সেনাবাহিনীতে কর্মরত ছেলে শহিদ হলে কান্নায় ভেঙে পড়েন মা। আর তীর্থযাত্রা থেকে মায়ের মৃতদেহ এলে ছেলের চোখে জল। এমন অপেক্ষা যেন কাউকে না করতে হয়।” মৃতদের পরিবারকে সহানুভূতি জানিয়েছেন প্রাক্তন ভারতীয় ক্রিকেটার অনিল কুম্বলে, ভিভিএস লক্ষ্মণরাও। কিন্তু মৃতদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে গিয়ে কটাক্ষের শিকার হতে হল শচীন তেণ্ডুলকরকে। তিনি টুইট করেছিলেন, “অমরনাথের ঘটনা অত্যন্ত দুঃখজনক। জঙ্গিহানায় আক্রান্ত তীর্থযাত্রী ও তাঁদের পরিবারের প্রতি আমার প্রার্থনা ও সহানুভূতি জানাই।” আর এই টুইটের পরই তোপ দাগেন ভারতীয় শুটার জয়দীপ কর্মকার। শচীনের টুইটকে কটাক্ষ করে পালটা তিনি লেখেন, “কী নিখুঁত বিবৃতি। সত্যি আপনি ভারত রত্ন পাওয়ারই যোগ্য।” কিন্তু মাস্টার ব্লাস্টারকে এভাবে আক্রমণের কারণও খুঁজে পাননি অনেকে। শচীনের পাশে দাঁড়িয়ে অনেকেই বলছেন, তিনি তো ভুল বা খারাপ কিছু বলেননি। তাই তাঁকে এভাবে কটাক্ষ করার কোনও যুক্তি নেই।

[অমরনাথ যাত্রীদের উপর হামলার ‘মাস্টারমাইন্ড’ কে এই ইসমাইল?]


উল্লেখ্য, একটি বিজ্ঞাপনী প্রচারের জন্য টুইটারে সাধারণ মানুষের থেকে ফোন নম্বর চাওয়ায় বিতর্কের মুখে পড়তে হয়েছিল শচীনকে। প্রকাশ্যে ফোন নম্বর চাওয়ায় অনেকেরই ব্যক্তিগত তথ্য সোশ্যাল মিডিয়ায় উঠে এসেছিল। বিতর্ক এড়াতে শেষমেশ টুইটটি ডিলিট করে দেন লিটল মাস্টার। এবার অমরনাথে জঙ্গিহানা প্রসঙ্গেও টুইট করে কটাক্ষের শিকার হতে হল তাঁকে।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে