BREAKING NEWS

১৫  আষাঢ়  ১৪২৯  শনিবার ২ জুলাই ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

ইউনাইটেড-মোহনবাগান ম্যাচ কাল, তবু কাটল না ডার্বি জট

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: September 1, 2016 10:05 pm|    Updated: September 1, 2016 10:12 pm

United Sports and Mohunbagan fc will face each other tomorrow, but the derby remains a question

স্টাফ রিপোর্টার: ডার্বির আকাশে ঘনীভূত হওয়া পূঞ্জীবিত মেঘ সরেও সরছে না৷ মোহনবাগান জানিয়ে দিল, কাল ইউনাইটেড স্পোর্টসের বিরুদ্ধে  খেলছে৷ কিন্তু বুধবার ইস্টবেঙ্গলের বিরু‌দ্ধে  খেলবে কিনা তা জানাবে পরে৷ যেহেতু আইএফএ জানিয়েছে, লিগ সাব কমিটির সভা শনিবার ডেকে টালিগঞ্জ অগ্রগামী ম্যাচ কবে হবে তার সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে  তাই মোহনবাগান পরিস্হিতির ওপর নজর রাখার জন্য ডার্বি নিয়ে কোনও চুড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিল না৷ তবে যাইহোক না কেন, মোহনবাগানের কার্যনির্বাহি কমিটির সদস্যরা এবার পুরো বিষয়টা দেখভাল করার জন্য সভাপতি টুটু বোস ও সচিব অঞ্জন মিত্র-র ওপর দায়িত্ব দিল৷ এই দুই বর্ষীয়ান ডার্বির ব্যাপারে যা সিদ্ধান্ত নেওয়ার নেবেন৷

আজ বিকেল পাঁচটায় ক্লাব তাঁবুতে কার্যনির্বাহি কমিটির সভায় বসে মোহনবাগান৷ সভাপতি, সচিব, অর্থসচিব দেবাশিস দত্ত-সহ প্রায় জনা আঠারো সদস্য এদিন সভায় যোগ দেন৷ সভা চলে প্রায় ঘণ্টা দেড়েক৷ যদিও সেই সভা শুরু হওয়ার আগেই পৌঁছে যায় আইএফএ-র একটা চিঠি যেটায় জানিয়ে দেওয়া হয়, ‘আপনাদের পাঠানো চিঠির পরিপ্রেক্ষিতে আমরা শীঘ্রই লিগ সাব কমিটির সভা ডাকছি৷ যেহেতু আমাদের সংবিধান তুলে ধরে আপনারা জানিয়েছেন, পরিত্যক্ত ম্যাচ আগে করা বাধ্যতামূলক৷ তাই আমরা লিগ সাব-কমিটির সভা ডেকে এই ব্যাপারটা চুড়ান্ত করে ফেলতে চাইছি৷’ এই চিঠি এখন মোহনবাগানের কাছে প্রধান অস্ত্র হয়ে গেল৷ কারণ-রাজ্য ফুটবল সংস্থা প্রকারন্তরে মোহনবাগানের দাবিকেই স্বীকার করে নিচ্ছে৷ নিজেদের সংবিধানে উল্লেখ আছে, পরিত্যক্ত ম্যাচ আগে সেরে ফেলতে হবে৷ তাই ডার্বির আগে টালিগঞ্জ ম্যাচ হওয়া অনেকটাই নিশ্চিত৷ যদি শেষপর্যন্ত তাই হয়, তাহলে ডার্বি কবে   হবে তা নিয়ে দেখা দিল ঘোর সংশয়৷ এদিকে আইএফএ ডার্বির টিকিট ছাপানো থেকে শুরু করে প্রশাসনিক দিকগুলো সব সেরে রেখেছে৷ ফলে ডার্বি পিছোনও সম্ভব নয়৷ সেক্ষেত্রে মোহনবাগানকে সোমবার টালিগঞ্জ ম্যাচ খেলে ৪৮ ঘণ্টার ব্যাবধানে নামতে হবে ডার্বি খেলতে৷

প্রশ্ন হল, মোহনবাগান যে সিকোয়েন্স মেনে চলার দাবি জানিয়ে আসছিল তা থেকে সরে গেল কেন? ইউনাইটেডের সঙ্গে কাল খেলতে নামা মানেই সেই দাবি থেকে কিছুটা সরে আসা৷ সেই প্রশ্নের জবাবে সচিব অঞ্জন মিত্র বলেন, “আমরা ফুটবল বিরোধী নই৷ সাত দিনের মধ্যে টালিগঞ্জ ম্যাচ দিতেই পারে আইএফএ৷ তাই আমরা ইউনাইটেডের সঙ্গে খেলার সিদ্ধান্ত নিয়েছি এবং এই সিদ্ধান্তে আমরা অনড়৷ ডার্বির আগে টালিগঞ্জ ম্যাচ দিতেই হবে৷ ফুটবল চলুক আইন মাফিক৷” পরমূহুর্তে অর্থ সচিব  দেবাশিস দত্ত জানিয়ে দেন, “বুধবার রাত ন’টার সময় আমরা আইএফএ-কে মেলে জানিয়ে ছিলাম টালিগঞ্জ ম্যাচের নির্দিষ্ট তারিখ জানান৷ যেহেতু আমাদের সভা ডাকা হয়েছে পাঁচটায়৷ সেই চিঠি চারটে নাগাদ পাঠায় আইএফএ৷ সেখানে তারা লিখিতভাবে জানিয়েছে, আমাদের দাবি তারা একপ্রকার মেনে নিচ্ছে৷ ফলে ইউনাইটেড ম্যাচ খেলতে আমরা আর দ্বিধা করিনি৷”

ইউনাইটেড ম্যাচ হচ্ছে  ধরে নিয়ে এদিন সকালে প্র্যাকটিস করে মোহনবাগান৷ একমাত্র প্রবীর দাস কার্ড সমস্যার দরুন খেলবেন না৷ কোচ শঙ্করলাল চক্রবর্তী বলছিলেন, “ইউনাইটেড গত তিনটে ম্যাচ দশ গোল করেছে৷ দলটা ভাল খেলছেও৷ তবে আমি ছেলেদের একটা কথাই বলেছি, মাঠের বাইরে যা ঘটছে তা পুরোপুরি ক্লাবের প্রশাসনিক ব্যাপার৷ আমাদের সেদিকে তাকালে চলবে না৷ ফোকাস ধরে রেখে এগোতে হবে৷ সুতরাং ছেলেরা প্রস্তুত৷”

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে