BREAKING NEWS

৯ আশ্বিন  ১৪২৭  সোমবার ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

বিরাটের হতশ্রী পারফরম্যান্স দেখে আত্মহত্যার চেষ্টা, হাসপাতালে মৃত্যু প্রৌঢ়র

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: January 9, 2018 12:59 pm|    Updated: January 9, 2018 12:59 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: জীবনযুদ্ধে লড়াই করে শেষমেশ হার মানলেন মধ্যপ্রদেশের রত্লাম জেলার বাসিন্দা বাবুলাল বৈরভ। কোহলির বিরাট ভক্ত নিজের প্রিয় খেলোয়াড়ের হতাশাজনক পারফরম্যান্সের জন্যই নিজেকে শেষ করে দিলেন তিনি। ভারত অধিনায়কের আর কোনও ইনিংসই দেখা হবে না তাঁর।

বিশ্বজোড়া বিরাট কোহলির ফ্যান। বাইশ গজে তাঁর বিধ্বংসী পারফরম্যান্স দেখলে যেমন গর্বে তাঁদের ছাতি চওড়া হয়, ঠিক তেমনই ভারতীয় অধিনায়ক ব্যর্থ হলে হতাশায় ডুবে যান অনুগামীরা। সে প্রমাণ মিলেছে বারবার। শুধুমাত্র বিরাট কোহলির দুর্দান্ত ব্যাটিংয়ের সাক্ষী থাকতে সুদূর ব্রিটেন থেকেও কেপ টাউন পৌঁছে গিয়েছিলেন প্রৌঢ় কাপল। যদিও হতাশ হয়েই বাড়ি ফিরেছেন তাঁরা। আর ভারতে টিভির পর্দায় চোখ রেখে চূড়ান্ত হতাশ হয়েছিলেন ৬৫ বছরের অবসরপ্রাপ্ত রেলকর্মী। দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে ক্যাপ্টেন কোহলির মাত্র পাঁচ রানে আউট হয়ে যাওয়ার বিষয়টা কিছুতেই মেনে নিতে পারেননি। নিজের প্রিয় তারকার এমন ব্যর্থতা দেখার চেয়ে আত্মহননকে বেছে নিয়েছিলেন তিনি।

[বিরাটের বিশ্রী পারফরম্যান্সে হতাশ, আত্মহত্যার চেষ্টা প্রৌঢ়ের]

কেপ টাউনে ভারতীয় বোলাররা দুর্দান্ত খেলে ২৮৬ রানে গুটিয়ে দিয়েছিলেন প্রোটিয়াবাহিনীকে। কিন্তু ব্যাট হাতে প্রথম ইনিংসের শুরুতেই মুখ থুবড়ে পড়ে টিম ইন্ডিয়া। অনুষ্কা শর্মার সঙ্গে সাত পাকে বাঁধা পড়ার সেদিনই পর প্রথমবার বাইশ গজে নেমেছিলেন বিরাট। স্বাভাবিকভাবেই তাঁর থেকে ভক্তদের প্রত্যাশা ছিল অনেকখানি। অনেকেই ভেবেছিলেন, দলের করুণ পরিস্থিতিতে ত্রাতা হয়ে উঠবেন নেতাই। যে উদাহরণ আগেও বহুবার রেখেছেন তিনি। কিন্তু তেমনটা হয়নি। মর্নি মর্কেলের বলে ক্যাচ আউট হয়ে পাঁচ রানেই প্যাভিলিয়নে ফেরেন তিনি। আর এতেই ভেঙে পড়েন ওই প্রৌঢ়।

গত শুক্রবারই গায়ে কেরোসিন তেল ঢেলে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন। তবে সবকিছু শেষ হয়ে যাওয়ার আগে পরিবার তা দেখতে পেয়ে ছুটে আসে। প্রতিবেশীরাও ঘটনাস্থলে পৌঁছে ক্রিকেটপাগল প্রৌঢ়কে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যান। মাথা, হাত ও মুখের অনেকটা অংশ পুড়ে গিয়েছিল। সোমবার চিকিৎসকরা জানিয়েছিলেন তাঁর অবস্থা স্থিতিশীল। কিন্তু মঙ্গলবার সকাল ৭.৫০ নাগাদ খবর এল জীবনযুদ্ধে হার মেনেছেন তিনি। রত্লাম থানার সাব-ইন্সপেক্টর রাম সিং জানান, হাসপাতালে ভরতি হওয়ার সময়ই তাঁর দেহের ৬০ শতাংশ অংশ পুড়ে গিয়েছিল। তিনি স্বীকারও করেছিলেন বিরাটের হতশ্রী পারফরম্যান্স দেখার পরই নিজেকে শেষ করে দিতে চেয়েছিলেন তিনি।

[ডোপ কেলেঙ্কারিতে নাম জড়িয়ে পাঁচ মাস নির্বাসিত পাঠান, কবে শেষ শাস্তির মেয়াদ?]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement