BREAKING NEWS

১০ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  শনিবার ২৭ নভেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

নররক্ত উৎসর্গ করা হল রাজবাড়ির বড় দেবীকে

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: October 10, 2016 12:33 pm|    Updated: October 10, 2016 12:33 pm

500 year old Durga puja in Cooch Behar stands still in time

মৃন্ময় লাহিড়ী: তুমুল বৃষ্টি উপেক্ষা করে কোচবিহার রাজপরিবারের পাঁচশো বছরেরও বড়দেবী ঠাকুরানির মহাষ্টমীর পুজোয় শামিল হলেন হাজার হাজার মানুষ৷ রাজদত্ত হনুমানদত্তের উপস্থিতিতে প্রথা মেনে বড়দেবী ঠাকুরানির মহাষ্টমীর পুজো হয়েছে সাড়ম্বরে৷ রবিবার সকালেই প্রাচীন নিয়ম মেনে রাজদত্ত হনুমানদত্তকে মদনমোহন বাড়ি থেকে নিয়ে আসা হয় দেবীবাড়ির মন্দিরে৷ মহাষ্টমীর পুজোয় অজস্র পাঁঠা ও কবুতর বলি দেওয়া হয়েছে বা উৎসর্গ করে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে৷ নির্বিঘ্নেই হয়েছে মহিষ বলি৷ মহাষ্টমীর গভীর রাতের পুজোয় নররক্ত উৎসর্গ করা হয়েছে দেবীকে৷ এবারেও পুজোর আঙুলের কর কেটে রক্ত দিয়েছেন কালজানীর শিবেন রায়৷ কোচবিহার দেবোত্তর ট্রাস্ট বোর্ডের সভাপতি তথা কোচবিহার জেলাশাসক পি উলাগানাথান বলেন, প্রতিটি নিয়ম অক্ষরে অক্ষরে পালন করে বড়দেবী ঠাকুরানির পুজো চলছে৷ এদিন তিনিও অঞ্জলি দিয়েছেন৷

পাঁচশো বছর আগে কোচবিহার মহারাজা নরনারায়ণ বন্ধুদের সঙ্গে পুজো পুজো খেলতে গিয়ে এক বন্ধুকে পাঁঠা বানিয়ে গাছের ডাল দিয়ে বলি দিলে দেখা যায় সত্যিই বলি হয়ে গিয়েছে৷ পরে স্বপ্নাদেশ পেয়ে বড়দেবী ঠাকুরানির পুজো শুরু হয়৷ দেবী এখানে রক্তবর্ণা৷ অসুরের রং সবুজ৷ বাঘ ও সিংহ দুয়েরই উপস্থিতি রয়েছে মায়ের সঙ্গে৷ তবে লক্ষ্মী, কার্তিক, গণেশ এবং সরস্বতী এখানে অনুপস্থিত৷ রয়েছেন জয়া বিজয়া৷ প্রাচীনকালে নরবলি দেওয়া হত বড়দেবী ঠাকুরানির পুজোয়৷ পরবর্তীকে তা বন্ধ হয়ে নররক্ত দেওয়ার প্রচলন শুরু হয়৷ যা আজও চলছে৷ মহাষ্টমীর রাতেই পুজো হয় রাজদত্তের৷ তারপর গভীর রাতে তা ফিরে আসে মদনমোহন বাড়িতে৷ এদিকে এত সাড়ম্বরে পুজো হলেও দেবীকে এই কয়দিন ধরে ভোগ হিসাবে নিবেদন করা হয় পায়েস৷ আজ মহানবমীর দিন চাল ডাল সবজি বলির মাংস সব একসঙ্গে দিয়ে সে করে খিচুড়ি ভোগ হিসাবে নিবেদিত হবে৷ এটাই রাজবাড়ির প্রথা৷ এখানে পুজোর পর প্রথমে সরকারি অঞ্জলি অনুষ্ঠিত হয়৷ সেখানে জেলাশাসক-সহ পদস্থ সরকারি আধিকারিক কর্মীরা দেবীর চরণে অঞ্জলি দেন৷ পরে অঞ্জলি দেন সাধারণ মানুষ৷

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে