BREAKING NEWS

৭ আশ্বিন  ১৪২৭  শনিবার ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

বাঁধের জলাধারেই অনুশীলন সারছে উঠতি সাঁতারুরা

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: August 16, 2016 2:35 pm|    Updated: August 16, 2016 2:54 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বছর চারেক পরেই টনক নড়ে দেশের৷ যখন ব্যক্তিগত চেষ্টায় দেশের নাম উজ্জ্বল করার আপ্রাণ চেষ্টা করেন দীপা কর্মকাররা৷ একটুর জন্য ফস্কে যাওয়া পদকের জন্য হা-হুতাশ ছড়িয়ে পড়ে কাশ্মীর থেকে কন্যাকুমারী৷ ব্যস, তারপরে আর কেইই বা খোঁজ রাখেন? কোথায় পড়ে রইল রেখা কুমারীরা৷

1

রেখা কুমারী৷ নামটা শোনেননি বোধহয়৷ রাঁচি থেকে ১০ কিলোমিটার দূরে এক গ্রামে বাস দেশের এই উঠতি সাঁতারুর৷ ১৬ বছরের মেয়েটার একটাই স্বপ্ন, ২০২০ সালে দেশের হয়ে ওলিম্পিকে পদক জেতা৷ এই স্বপ্নপূরণের লক্ষ্যেই দিনরাত এক করে অনুশীলন করে চলেছে সে৷ কিন্তু, একটা সুইমিং পুলও জোটেনি তার ভাগ্যে৷ সম্বল বলতে বর্ষায় টইটম্বুর স্থানীয় বাঁধের জলাধার৷

শুধু রেখা নয় বাঁধের এই ঘোলা জলেই নিয়ম করে সাঁতার কাটে তাঁর সহপাঠিরাও৷ আশেপাশের গ্রামেই বাস সবার৷ কারও সুইমিং কস্টিউম জুটেছে, কারও আবার তাও জোটেনি৷ এটাই হয়ে উঠেছে ঝাড়খণ্ডের সুইমিং অ্যাসোসিয়েশনের উঠতি সাঁতারুদের অনুশীলনের একমাত্র আস্তানা৷

এদিকে এক কিলোমিটার দূরেই রিক্ত পড়ে রয়েছে ন্যাশনাল গেমসের জন্য তৈরি করা একটি সুইমিং পুল৷ কিন্তু সাঁতারুদের প্রশিক্ষক উমেশ কুমারের অভিযোগ, ২০১২ সালে পুলটি সাঁতারুদের খুলে দেওয়া হয়েছিল ঠিকই, কিন্তু অজানা কারণে তা বন্ধ করে দেওয়া হয়৷ বার বার প্রশাসনকে চিঠি লিখেও কোনও লাভ হয়নি৷ বন্ধ হওয়ার কারণও জানা যায়নি৷ কিন্তু, এর জন্য প্র্যাক্টিস তো আর বন্ধ করা যায় না! তাই ভবিষ্যতের স্বপ্নের জন্য বাস্তবের এই লড়াই চালিয়ে যাচ্ছে তাঁর সাঁতারুরা৷

jharkhand-dam-swimmers_650x400_41471329569

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement