BREAKING NEWS

১ আশ্বিন  ১৪২৭  শুক্রবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

কেন্দ্রের বিরুদ্ধে অসহযোগিতার অভিযোগ, সরব মুখ্যমন্ত্রী

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: August 13, 2016 10:31 am|    Updated: August 13, 2016 10:31 am

An Images

বিপ্লব দত্ত: কেন্দ্রীয় বঞ্চনায় বাদ নেই এইমস-ও৷ এবার তা নিয়েও সরব হলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ কল্যাণীতে দাঁড়িয়ে তাঁর অভিযোগ, জমিতে পাঁচিল ঘেরা ছাড়া এ ক’বছরে কোনও কাজ হল না কেন? বস্তুত, মমতার ব্যক্তিগত উদ্যোগে কল্যাণীতে অল ইন্ডিয়া ইনস্টিটিউট অফ মেডিক্যাল সায়েন্সের আদলে তৈরি হবে নতুন হাসপাতাল৷ রাজ্য জমি দিয়ে দিয়েছে৷ কিন্তু, কাজের কাজ যে কেন্দ্র এখনও কিছুই করতে পারেনি, তা নিয়ে শুক্রবার কল্যাণীতে ক্ষোভে ফেটে পড়েন মমতা৷ কীভাবে কেন্দ্রীয় সরকার রাজ্যের প্রতি বঞ্চনা করছে, সেই কথাগুলি বলতে গিয়েই এইমসের প্রসঙ্গে আসেন৷ তিনি বলেন, “কবে থেকে শুনছি এইমস হবে৷ আমরা জমি দিয়ে দিয়েছি৷ এখন শুনছি ওরা শুধু সীমানা দেওয়ালের জন্য টাকা দিয়েছে৷ এত কিছু সত্ত্বেও কল্যাণীতে ট্রিপল আইটি হয়েছে৷ আইটি পার্ক-সহ প্রচুর কাজ হচ্ছে৷”

এদিন ছিল নদিয়া জেলার প্রশাসনিক বৈঠক৷ মুখ্যমন্ত্রী এই বঞ্চনার বিরু‌দ্ধে সমস্ত বঞ্চিত রাজ্যকেই কার্যত একজোট হওয়ার কথা বলেছেন৷ প্রশাসনিক বৈঠকের পর সাংবাদিক সম্মেলনে তিনি বলেন, “এ এক ভয়াবহ পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে৷ আর্থিকভাবে বঞ্চিত করে রাজ্যগুলিকে মৃত্যুফাঁদের মধ্যে ফেলে দেওয়া হচ্ছে৷ আমি মনে করি, এর বিহিত হওয়া দরকার৷ শুধু তাই নয়, রাজ্যগুলির প্রতি যে কেন্দ্রের রাজনৈতিক বৈষম্য চলছে, এরও বিহিত হওয়া দরকার৷ এগুলি নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা চলছে৷” তাঁর স্পষ্ট কথা, “এই রাজ্যের প্রতি কেন্দ্রের আর্থিক বঞ্চনা দুর্বিষহ হয়ে উঠেছে৷ কেন্দ্র চালাকি করছে৷ রাজ্যের খেটে যাওয়া মানুষের জন্য বিভিন্ন কেন্দ্রীয় প্রকল্পের টাকা রাজনৈতিক খবরদারি করে বন্ধ করে দেওয়া হচ্ছে৷” বিগত বাম সরকারের ঋণের টাকা মেটাতে হিমশিম হওয়ার পর গোদের উপর বিষফোঁড়ার মতো কেন্দ্রের আর্থিক বঞ্চনাতে মুখ্যমন্ত্রী যে যথেষ্ট বিরক্ত, এদিন তার বহিঃপ্রকাশ ঘটে৷ বামেদের পাপের বোঝা টেনে নিয়ে যাওয়া বর্তমান কেন্দ্রীয় সরকারের ‘চালাকি’-র কাছে যে তিনি আর মাথা নত করবেন না, তাও বুঝিয়ে দিয়েছেন৷

এদিন তিনি ৩৪নং জাতীয় সড়কের কাজ নিয়ে কেন্দ্র সরকারের প্রতি সরব হন৷ পাশাপাশি কেন্দ্রের প্রকল্প চালু করেও সাধারণ মানুষকে সেই প্রকল্পের পরিষেবা থেকে বঞ্চিত রাখার বিরুদ্ধেও মুখ খুলেছেন তিনি| বলেছেন, “ওরা কিষান ক্রেডিট কার্ডের সংখ্যা বাড়াচ্ছে৷ অথচ যারা পাচ্ছে তারা ব্যাঙ্ক লোন পাচ্ছে না৷ ওদের লোন দিচ্ছে না৷ ওরা শুধু বিজ্ঞাপন দিয়ে কেন্দ্র সরকারের প্রচার চালাচ্ছে৷ অথচ মানুষকে প্রকল্পের পরিষেবা দিচ্ছে না৷”

এদিনের বৈঠকে নদিয়া জেলা পরিষদের আনা নতুন প্রকল্প ‘সুকন্যাশ্রী’ এখন আপাতত বন্ধ রাখ‌তে বলেছেন মুখ্যমন্ত্রী৷ এদিন সভাধিপতি বাণীকুমার রায়কে সেই নির্দেশ দিয়েছেন৷ কেন্দ্রের আর্থিক বঞ্চনার জন্যই এই সিদ্ধান্ত বলে জানা গিয়েছে৷

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement