BREAKING NEWS

১২ আশ্বিন  ১৪২৭  মঙ্গলবার ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

আবেশ মৃত্যুরহস্যে নয়া মোড়, রাজপথে বুদ্ধিজীবীরা

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: July 30, 2016 6:06 pm|    Updated: July 30, 2016 9:38 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: আবেশ দাশগুপ্তের মৃত্যুতে কলকাতা পুলিশ যতই দুর্ঘটনার তত্ত্ব খাড়া করুক না কেন, আবেশের মা রিমঝিম দাশগুপ্ত সেই দাবি মানতে নারাজ৷ তিনি ও আবেশের দিদা দাবি করেছেন, আবেশকে পরিকল্পিত ভাবেই খুন করা হয়েছে৷ এই অবস্থায় শনিবার বিকেলে সানি পার্কের বহুতলের সিসিটিভি ক্যামেরার ফুটেজের আরেকটি অংশ প্রকাশ্যে এল৷ অন্যদিকে, আজই বিকেলে রাজপথে আবেশের জন্য সুবিচার চেয়ে মৌনমিছিল করলেন বুদ্ধিজীবী, আবেশের আত্মীয়-বন্ধু-পরিজন-প্রতিবেশীরা৷ তাঁরা লেক অ্যাভিনিউ থেকে হাজরা মোড় পর্যন্ত মৌন মিছিলে পা মেলান। মিছিলে অংশ নেন উস্তাদ রাশিদ খান, পরিচালক সুদেষ্ণা রায়, অভিনেতা সম্রাট মুখোপাধ্যায়, চিত্রকর সমীর আইচ-সব বহু বিশিষ্টরা৷ কালো ব্যাজ পরে এই মিছিলে পা মেলান তাঁরা৷

সদ্য প্রকাশিত হওয়া সানি পার্কের আবাসনে ২৩ জুলাই সন্ধ্যাবেলার এই ফুটেজ দেখে মনে হচ্ছে, একজন কিশোরের পড়ে যাচ্ছে৷ দেখা যাচ্ছে বেশ কয়েকজনের ছোটাছুটির দৃশ্যও৷ তারপর ওই কিশোর ফের উঠে চলে যাচ্ছে একটি দেওয়ালের পিছনে৷ তার হাতে একটি বোতল, সম্ভবত মদের৷ তবে ক্যামেরাবন্দি এই কিশোরই আবেশ কি না, তা নিয়ে ধন্দ রয়েছে৷ তেমনই প্রশ্ন উঠছে, যদি ওই কিশোর পড়ে গিয়ে থাকে, তাহলে কোথায় পড়ল? তাও এই ফুটেজে স্পষ্ট হয়নি৷ নয়া ফুটেজে দেখা যাচ্ছে, ওই কিশোর কিছুক্ষণের জন্য একটি পাঁচিলের পিছনে চলে যায়৷ সেই জায়গার কোনও ফুটেজ নেই৷ এই ২০ সেকেন্ডের ফুটেজই এখন এই তদন্তে সবচেয়ে বড় মিসিং লিঙ্ক৷ ফরেনসিক বিশেষজ্ঞরা বলছেন, যদি আবেশ প্রথমবার পড়ে যাওয়ার পর তার বগলে বোতল ভেঙে ঢুকে যেত, তাহলে তার পক্ষে দ্বিতীয়বার উঠে দাঁড়িয়ে অত সহজে হেঁটে যাওয়া সম্ভব হত না৷  অন্তত ফুটেজে যেরকম দেখা যাচ্ছে সেরকম স্বাভাবিকভাবে তার পক্ষে চলাফেরা করা অসম্ভব হত বলেই মনে করছেন ফরেনসিক বিশেষজ্ঞরা৷ একবার দেখা যাচ্ছে, আবেশ এক বান্ধবীর পিছনে ছুটে যাচ্ছে৷ একবার পড়ে যাওয়ার পর ফের উঠে, দু’জন বান্ধবীর পিছনে ছুটে যায়৷

পুলিশের দাবি, ফুটেজে যাকে দেখা যাচ্ছে সেই কিশোরই আবেশ৷ রেলিং টপকাতে গিয়েই সে পড়ে যায়৷ গোয়েন্দাপ্রধানের এই দাবি মানলে, নেশাগ্রস্ত অবস্থায় আবেশ পার্কিং লটের পাঁচিল টপকে পাশের মাঠে পড়ে যেতে পারে৷ সেই সময় হাতে থাকা বোতলের কাঁচ বগলে ঢুকে যেতে পারে৷ যদিও এই সবই অনুমান মাত্র৷ আবেশের পরিবারের দাবি, সিসিটিভি ফুটেজ দেখে মোটেও বোঝা যাচ্ছে না ওই কিশোর আবেশ কি না! এটাও বোঝা যাচ্ছে না, দুর্ঘটনাতেই আবেশের মৃত্যু হয়েছে! পুলিশ সূত্রে খবর, মিসিং লিঙ্কের হদিশ পেতে আজ লালবাজারে আবেশের পাঁচ বন্ধুকে ফের জেরা করা হয়৷ ভাঙা বোতলে লেগে থাকা আঙুলের ছাপের সঙ্গে মেলানো হবে আবেশের আঙুলের ছাপ৷ পাশাপাশি ভিসেরা রিপোর্টের জন্যও অপেক্ষা করা হচ্ছে৷

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement