৪ শ্রাবণ  ১৪২৬  শনিবার ২০ জুলাই ২০১৯ 

Menu Logo বিলেতে বিশ্বযুদ্ধ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: দীর্ঘদিনের সবুজ-মেরুন সম্পর্কে ইতি। বিচ্ছেদের কানাঘুষো আগেই শোনা গিয়েছিল। শেষপর্যন্ত তাইই সত্যি হল। ফিজিও গার্সিয়ার পর এবার ইস্টবেঙ্গলে সই করলেন মোহনবাগানের গত মরশুমের অধিনায়ক কাটসুমি। তবে কলকাতা লিগ নয়, আইলিগের জন্য লাল-হলুদের সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ হলেন তিনি।

[প্রথম প্যারালিম্পিয়ান হিসেবে খেলরত্নে সম্মানিত হতে চলেছেন দেবেন্দ্র]

ময়দানের বহু যুদ্ধের সাক্ষী তিনি। একার কাঁধে বহু ম্যাচ জিতিয়েছেন সবুজ-মেরুনকে। দীর্ঘ কয়েকবছর ধরেই খেলছেন বাগানে। স্পনসর সমস্যায় যখন দল গড়তে হিমশিম খাচ্ছেন কর্তারা, তখনও দায়বদ্ধতার পরিচয় দিয়ে দলেই থেকে গিয়েছেন তিনি। মোহনবাগান সমর্থকদের কাছেও তিনি অন্যতম ফেভরিট খেলোয়াড়। দলের প্রতি তাঁর কর্তব্য কিংবা নিষ্ঠা নিয়ে কেউই কখনও প্রশ্ন তোলেননি। কিন্তু চলতি মরশুমের শুরুতেই ময়দানে কান পাতলে শোনা যাচ্ছিল সবুজ-মেরুনের সঙ্গে বহুদিনের সম্পর্ক ছিন্ন করতে চলেছেন কাটসুমি। এমনকী কলকাতা লিগ শুরুর আগেই গতবারের আই লিগ জয়ী আইজলের অন্যতম সেরা খেলোয়াড় ইউটা কিনওয়াকিকে এশীয় কোটায় সই করিয়ে নিয়েছিলেন বাগান কর্মকর্তারা। অনেকেই প্রশ্ন তুলেছিলেন, তবে কি কলকাতা ময়দানকে বিদায় জানাচ্ছেন জাপানি মিডিও কাটসুমি? কিন্তু এদিনের এই  সব জল্পনার অবসান ঘটল।

[ঝুলন গোস্বামীকে বিশেষ সম্মান ফ্যানাটিক স্পোর্টস মিউজিয়ামের]

মরশুম শুরুর আগেই মোহনবাগান থেকে ফিজিও গার্সিয়াকে তুলে সবুজ-মেরুন শিবিরকে ধাক্কা দিয়েছিল ইস্টবেঙ্গল। এখন দেখার গঙ্গাপাড়ের ক্লাবের হয়ে আই লিগ জিতলেও লাল হলুদের হয়ে গত ১৪ বছরের অধরা কাপটি জিততে পারেন কিনা কাটসুমি।

[সোশ্যাল মিডিয়ায় মিতালির শরীর নিয়ে ‘বাঁকা’ মন্তব্য, কড়া জবাব ক্যাপ্টেনের]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং