৪ আশ্বিন  ১৪২৭  বুধবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

ট্যুরিস্ট থেকে টেররিস্ট, পোশাকের গেরোয় আরব নাগরিক!

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: July 6, 2016 3:22 pm|    Updated: July 6, 2016 3:22 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ট্যুরিস্ট থেকে টেররিস্ট হয়ে উঠেছিলেন আরব আমিরশাহীর এক ব্যবসায়ী৷ না সত্যিই তিনি সন্ত্রাসবাদী নন, কিন্তু তাঁর পোশাক দেখে ওহাইওর এক হোটেলের নিরাপত্তারক্ষীদের সেরকমই মনে হয়েছিল৷ বন্দুক তাক করে তাঁর দিকে ছুটে এসেছিল পুলিশও৷ অনেক কষ্টে ওই ব্যবসায়ী বোঝাতে পেরেছিলেন যে, তিনি সন্ত্রাসবাদী নন৷ আর এই ঘটনার জেরেই বিদেশে যাওয়ার সময় দেশের ঐতিহ্যবাহী পোশাক পরতে নাগরিকদের মানা করল সংযুক্ত আরব আমিরশাহী প্রশাসন৷

আহমেদ-আল মেনহালি নামে ৪১ বছর বয়সি ওই ব্যবসায়ীর পরনে ছিল আরবের ট্র্রাডিশনাল পোশাক৷ আইএস জঙ্গি সন্দেহে তাঁকে মাটিতে ফেলে দেয় পুলিশ৷ হাতকড়া পরানো হয়৷ অস্ত্রের খোঁজে তল্লাশি চলতে থাকে৷ বিশেষ ক্যামেরার সাহায্যে শরীরে খুঁজে দেখা হয় কোনও আত্মঘাতী বোমা লুকনো আছে কি না৷ ভাঙা ভাঙা ইংরেজিতে তিনি শুধু বলতে পেরেছিলেন, তিনি ভ্রমণকারী এবং তাঁর সঙ্গে যা হচ্ছে তা ঠিক নয়৷ তাঁর থেকে বিপজ্জনক কোনও কিছু না পেয়ে শেষমেশ পুলিশ বুঝতে পারে কোথাও একটা ভুল হয়েছে৷ এই ভিডিও ছড়িয়ে পড়ার পর নানামহলে সমালোচনা শুরু হয়৷ সাধারণ মুসলিম নাগরিকদের প্রতি অন্যান্য দেশের বিশ্বাস যে তলানিতে এসে ঠেকেছে তা আরও একবার চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দিল এ ঘটনা৷

অবাঞ্চিত এ ঘটনার জন্য সংযুক্ত আরব আমিরশাহীর কাছে ক্ষমা চেয়ে নিয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র৷ তবে এই ঘটনার যাতে পুনরাবৃত্তি না হয় তার জন্য নাগরিকদের সতর্ক করছে আরব আমিরশাহীর বিদেশমন্ত্রক৷ বিদেশে যাওয়ার ক্ষেত্রে ট্রাডিশনাল পোশাক না পরাই শ্রেয় বলে জানানো হয়েছে মন্ত্রকের তরফে৷ মার্কিন যুক্তরাক্ত অবশ্য জানিয়েছে, প্রতিটি দেশের জাতীয় পোশাককে সম্মান জানায় তারা৷ কিন্তু জাতীয় পোশক পরেই যেরকম হেনস্তার শিকার হতে হল ব্যবসায়ীকে তা আরবের কাছে অশনিসঙ্কেত হয়েই দেখা দিয়েছে৷ ভুলবশত যে কোনও বড় দুর্ঘটনা ঘটেই যেতে পারত৷ আর তাই এই ভুল এড়াতে নাগরিকদের জাতীয় পোশাক পরে দেশের বাইরে বেরনোর আগে সতর্ক করে দিচ্ছে সংযুক্ত আরব আমিরশাহী প্রশাসন৷

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement