BREAKING NEWS

১২ আশ্বিন  ১৪২৭  মঙ্গলবার ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

বাজপেয়ীর পথেই কাশ্মীর সমস্যার সমাধান খুঁজছেন মোদি

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: August 10, 2016 11:48 am|    Updated: August 10, 2016 11:48 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সংবিধানের পরিকাঠামোর মধ্যে থেকেই  ‘ইনসানিয়াত’ (মানবিকতা), ‘জমহুরিয়ত’ (গণতন্ত্র) এবং ‘কাশ্মীরিয়ত’ এই তিনটি বিষয়কে সামনে রেখে কাশ্মীর সমস্যা সমাধানে আলোচনা শুরু করার ইঙ্গিত দিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি৷ কাশ্মীরে শান্তি ফেরানোই তাঁর সরকারের মূল লক্ষ্য এই বার্তাও পৌঁছে দেওয়ার চেষ্টা করলেন ভূস্বর্গে৷

হিজবুল মুজাহিদিন জঙ্গি বুরহান ওয়ানির মৃত্যুর পর মাসাধিককাল ধরে উত্তপ্ত হয়ে রয়েছে কাশ্মীরের পরিস্থিতি৷ বিভিন্ন মহল থেকে কাশ্মীরের চলতি পরিস্থিতি নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করা হলেও এতদিন এ বিষয়ে একটি শব্দও খরচ করেননি মোদি৷ সোমবার রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মেহবুবা মুফতি মোদিকে কাশ্মীরের মানুষের পাশে থাকার আহ্বান জানান৷ মেহবুবার ওই আর্জির পর এদিন প্রধানমন্ত্রীর মুখ খোলা বিশেষ তাৎপর্যপূর্ণ বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহল৷ মঙ্গলবার মধ্যপ্রদেশে চন্দ্রশেখর আজাদের জন্মস্থানে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, “কাশ্মীরের নিরীহ যুবকদের হাতে ল্যাপটপ, বই, ক্রিকেট ব্যাট থাকার কথা৷ কিন্তু পরিবর্তে তাদের হাতে রয়েছে ইট-পাথর৷ কাশ্মীরের যুব সমাজের কাছে আমার আবেদন আপনারা ভূস্বর্গে শান্তি, সম্প্রীতি ও ঐক্য বজায় রাখুন৷ দেশের প্রতিটি মানুষ যে স্বপ্ন দেখেন কাশ্মীরবাসীরও সেই স্বপ্ন দেখার স্বাধীনতা আছে৷ কাশ্মীরের সব ভাই-বোনকে আমি বলতে চাই, দেশের অন্যান্য অংশের যে শক্তি ও ক্ষমতা আছে ভূস্বর্গের মানুষেরও সেই একই শক্তি ও ক্ষমতা রয়েছে৷ কাশ্মীরের উন্নয়নে এবং রাজ্যের বিভিন্ন্ সমস্যা সমাধানে কেন্দ্র মেহবুবা সরকারের সঙ্গে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে কাজ করবে৷ কিন্ত্ত কিছু মানুষের এটা সহ্য হচ্ছে না৷ তাই তাঁরা ধবংসের পথে হাঁটছেন৷ অটলবিহারী বাজপেয়ী যখন প্রধানমন্ত্রী ছিলেন তখন তিনি ‘ইনসানিয়াত’ (মানবিকতা), ‘জমহুরিয়ত’ (গণতন্ত্র) এবং ‘কাশ্মীরিয়ত’ এই তিনটি বিষয়কে সামনে রেখে কাশ্মীর সমস্যা সমাধানের চেষ্টা করেছিলেন৷ আমরাও ওই একই পথে হাঁটতে চাই৷ কাশ্মীরের যুব সম্প্রদায় যখন প্ররোচিত হয়ে হাতে পাথর নিয়ে ঘুরে বেড়ায় তা দেখে কষ্ট হয়৷ যখন মানবিকতা ও কাশ্মীরিয়ত কোনও কাজে আসে না তখন গণতন্ত্রের পথকেই আঁকড়ে ধরতে হয়৷ আলোচনার মাধ্যমে সমস্যার সমাধান খুঁজতে হয়৷”

এদিকে চলতি মাসের ১০ তারিখে কাশ্মীরের তেংপোরা এলাকায় পুলিশের গুলিতে সাবির আহমেদ মির নামে এক যুবকের মৃত্যু হয়েছিল৷ কোন পরিস্থিতিতে ওই যুবকের মৃত্যু হয়েছিল জম্মু-কাশ্মীর পুলিশের কাছে এদিন রিপোর্ট চাইল সুপ্রিম কোর্ট৷ অন্যদিকে বিদেশ সচিব জয়শঙ্কর এদিন ভারতে নিযুক্ত পাকিস্তানের রাষ্ট্রদূত আবদুল বাসিতকে ডেকে পাঠিয়ে অবিলম্বে সীমান্ত পারের সন্ত্রাস বন্ধ করতে উদ্যোগী হতে বলেন

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement