BREAKING NEWS

১ আশ্বিন  ১৪২৭  শুক্রবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

মেয়ের শ্লীলতাহানি রুখতে গিয়ে আক্রান্ত বাবা

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: August 3, 2016 3:57 pm|    Updated: August 3, 2016 3:57 pm

An Images

স্টাফ রিপোর্টার: মেয়ের শ্লীলতাহানি রুখতে গিয়ে আক্রান্ত বাবা৷ মঙ্গলবার রাতে ঘটনাটি ঘটেছে নদিয়ার গাংনাপুর থানার মাঝেরগ্রাম এলাকায়৷ ঘটনায় গ্রেফতার করা হয়েছে তাঁর মেয়ের গৃহশিক্ষক-সহ দু’জনকে৷ আক্রান্ত ব্যক্তির মেয়ে দশম শ্রেণির ছাত্রী৷ অভিযোগ, ওই ছাত্রীর গৃহশিক্ষক অমিত দেবনাথ দীর্ঘদিন ধরেই ওই ছাত্রীর সঙ্গে অশালীন ব্যবহার করত৷ শুধু অশালীন ব্যবহারই নয়, ওই শিক্ষক সেই মুহূর্তের ছবি ভিডিয়ো করে রাখত৷ সম্প্রতি সেই ভিডিয়ো ফেসবুকে পোস্ট করে প্রায় ৬৫ বছর বয়সি ওই শিক্ষক৷ তা দেখে ছাত্রীর বন্ধুরা৷ বিষয়টি তারা ছাত্রীটির পরিবারের লোকেদের জানায়৷

এদিকে মঙ্গলবার রাতেও অন্যান্য দিনের মতো অভিযুক্ত গৃহশিক্ষকের কাছেই পড়তে যায় ওই ছাত্রী৷ ফের তার শ্লীলতাহানির চেষ্টা করে গৃহশিক্ষক৷ সেই সময় ঘটনাস্থলে যান ছাত্রীর বাবা৷ তিনি প্রতিবাদ জানান৷ জানতে চান, কেন সে তাঁর মেয়ের অশ্লীল ছবি পোস্ট করেছে ফেসবুকে৷ আর তাতেই শুরু হয় তীব্র বচসা৷ তখনই ওই গৃহশিক্ষক এবং তার ভাই প্রভাত দেবনাথ লাঠি, লোহার রড নিয়ে ছাত্রীর বাবার উপর চড়াও হয় বলে অভিযোগ৷ বেধড়ক মারধর করা হয় তাঁকে৷ মাথা ফাটিয়ে দেওয়া হয়৷ গভীর রাতে আক্রান্ত ব্যক্তি থানায় অভিযোগ জানালে পুলিশ অভিযুক্ত ওই শিক্ষক ও তার ভাইকে গ্রেফতার করে৷ মাঝেমধ্যেই ওই নাবালিকা ছাত্রীর শ্লীলতাহানি করা হত বলে অভিযোগ৷ তা করতেন প্রবীণ ওই গৃহশিক্ষকই৷ ছাত্রীকে ভয় দেখানোর কারণে সে বাড়িতে কিছু জানাত না৷ ওই ছাত্রীকে বলা হত, সে বাড়িতে কোনও কথা বললে সেই ভিডিয়ো বাইরে প্রকাশ করে দেওয়া হবে৷ বাধ্য হয়েই চুপ ছিল নাবালিকা৷

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement