BREAKING NEWS

৪ আশ্বিন  ১৪২৭  সোমবার ২১ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

ভারতীয় বায়ুসেনায় যুক্ত হল সুপারসনিক ফাইটার জেট তেজস

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: July 1, 2016 12:32 pm|    Updated: July 1, 2016 12:36 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ৩৩ বছরের অপেক্ষার অবসান! ভারতীয় বায়ুসেনার অস্ত্রভাণ্ডারে নয়া সংযোজন৷ লাইট কমব্যাট এয়ারক্রাফট (এলসিএ) হ্যাল তেজস-এর আনুষ্ঠানিক অন্তর্ভুক্তি হল বায়ুসেনায়৷ তেজস মূলত সিঙ্গল ইঞ্জিন মাল্টি-রোল ফাইটার জেট৷ বিশ্বের সবচেয়ে ছোট ও হালকা সুপারসনিক ফাইটার জেট দুটি আপাতত থাকবে বেঙ্গালুরুর স্টেশনে৷ তেজস-এর প্রথম স্কোয়াড্রনের নাম হতে চলেছে ‘ফ্লাইং ড্যাগার্স’৷

৩৩ বছর পর আজ, শুক্রবার সম্পূর্ণ দেশীয় প্রযুক্তিতে তৈরি তেজস যুক্ত হল বায়ুসেনায়৷ যদিও তার ইঞ্জিনকে আরও উন্নত করার কাজ চলছে৷ ‘ফ্লাইং ড্যাগার্স’-এ তেজস-এর এসপি ১ ও এসপি ২ -এই দুটি ভার্সন উড়তে দেখা যাবে৷ ২০১৮-২০ সালের মধ্যে এই স্কোয়াড্রন পুরোপুরি তৈরি হয়ে যাবে৷ চলতি অর্থবর্ষের শেষের দিকে আরও ৬টি তেজস হাতে পাবে বায়ুসেনা৷

এবার দেখে নেওয়া যাক, কী রয়েছে এই লাইট কমব্যাট এয়ারক্রাফট তেজস-এ!

তেজস-এ রয়েছে ইজরায়েলে তৈরি অত্যাধুনিক মাল্টি-মোড রেডার, ‘এলটা ২০৩২’৷ আকাশে শত্রুপক্ষের সঙ্গে সংঘাতে জড়িয়ে পড়লে রয়েছে ‘এয়ার টু এয়ার’ মিসাইল৷ উড়ন্ত অবস্থায় মাটিতে টার্গেট করে শত্রুঘাঁটি ধ্বংস করার জন্য তেজস-এ রয়েছে লেজার ও টার্গেটিং পডস৷ সবচেয়ে বড় কথা, তেজস-এর চেয়ে নিরাপদ যুদ্ধবিমান খুব কমই রয়েছে৷ ৩০০০ বারেরও বেশি টেস্ট ফ্লাইংয়ের সময় একবারও মাঝ-আকাশে ভেঙে পড়েনি এই বিমান৷ ফ্রান্সের তৈরি মিরাজ ২০০০ মডেলের সঙ্গে একাসনে বসানো যায় তেজসকে৷ সাধে এই বিমানকে বায়ুসেনার ‘ব্লু-আইড বয়’ বা ‘আদরের সন্তান’ বলে!

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement