BREAKING NEWS

৪ আশ্বিন  ১৪২৭  মঙ্গলবার ২২ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

পুজোয় জুলুম রুখতে তৃণমূলে গোপন নজরদারি

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: August 2, 2016 1:03 pm|    Updated: August 2, 2016 1:32 pm

An Images

ব্রতদীপ ভট্টাচার্য: পূজোকে কেন্দ্র করে তোলাবাজি বা জোরজুলুম রুখতে কাউন্সিলর ও অন্যান্য জনপ্রতিনিধিদের উপর নজরদারি শুরু করেছে তৃণমূল৷ উত্তর ২৪ পরগনা জেলা কমিটির তরফ থেকে গঠন করা হয়েছে একটি গোপন দল৷ বড় পুজো করার জন্য দলের কর্মীরা তোলাবাজি অথবা জোরজুলুম করলে জেলা কমিটির নেতৃত্বের কাছে  রিপোর্ট দেবে এই গোপন দল৷ জোরজুলুমের অভিযোগ পেলে কর্মীদের বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নেওয়ার হুঁশিয়ারি দিয়েছে জেলার নেতৃত্ব৷ এছাড়া জেলার ২৫ জন কাউন্সিলরের নামে তোলাবাজি এবং সিন্ডিকেটের সঙ্গে যুক্ত থাকার অভিযোগ পেয়েছে জেলা কমিটি৷ তাদের উপরেও এই গোপন দল নজর রাখছে বলে তৃণমূল সূত্রে খবর৷

উত্তর ২৪ পরগনার বিভিন্ন এলাকায় বড় বাজেটের দুর্গাপুজো হয়৷ এছাড়া জেলা সদর বারাসত বিখ্যাত কালীপুজোর জন্য৷ প্রতিটি পুজোর পিছনে থাকেন বিভিন্ন জনপ্রতিনিধিরা৷ তাই বড় পুজোর করতে গিয়ে যাতে জোরজুলুম না হয় সেই নিয়ে দলের কর্মী ও নেতাদের কড়া বার্তা দিয়েছে জেলা কমিটি৷ জেলা সভাপতি জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক জানান, “দলের কেউ পুজোয় জোরজুলুম করলে তাদের বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নেওয়া হবে৷” তৃণমূল সূত্রে জানা যায়, জেলার বিভিন্ন এলাকার সাধারণ কর্মীদের নিয়ে গোপন দল গঠন করে জনপ্রতিনিধিদের উপর নজর রাখা হচ্ছে৷ একেবারে গোয়েন্দাদের কায়দায় কাজ করবে এই দল৷ জেলা কমিটির শীর্ষ নেতৃত্ব ছাড়া এই দলের সদস্যদের নাম পরিচয় কেউ জানবেন না৷ জেলার কোথায় কোথায় পুজোকে কেন্দ্র করে জোরজুলুম ও তোলাবাজি হচ্ছে সে বিষয়গুলি ঘুরে ঘুরে তদন্ত করবে এই গোপন দল৷

এছাড়া সিন্ডিকেটের সঙ্গে দলের কারা কারা যুক্ত আছে সে বিষয়টিও খতিয়ে দেখবে এই দল৷

উত্তর ২৪ পরগনা জেলা তৃণমূলের কোর কমিটির কাছে জেলার ২৫ জন কাউন্সিলরের নামে তোলাবাজি এবং সিন্ডিকেটে জড়িত থাকার অভিযোগ জানিয়েছেন দলেরই একাংশ৷ তৃণমূল সূত্রে খবর, এই তালিকায় নাম রয়েছে কয়েকজন কাউন্সিলর এবং পুর পারিষদ সদস্যের৷ সূত্রের খবর, বরানগর পুরপারিষদ সদস্য দেবনারায়ণ বোস এই তালিকায় রয়েছেন৷ তাঁর বিরু‌দ্ধে এলাকায় তোলাবাজির অভিযোগ জানিয়েছেন এলাকার অন্যান্য কর্মী৷ এছাড়া কাউন্সিলর সত্যব্রত সাঁতরা-সহ কয়েকজনের নামেও অভিযোগ জমা পড়েছে৷ দক্ষিণ দমদম পুরসভার পুরপারিষদ সদস্য বাপি মিত্র, প্রদীপ মজুমদারের বিরু‌দ্ধে সিন্ডিকেটের সঙ্গে যুক্ত থাকার অভিযোগ৷

বিধাননগর পুরনিগমের বরো চেয়ারম্যান সেহনাজ আলি মণ্ডল ওরফে ডাম্পি, তাপস চট্টোপাধ্যায় এবং মণীশ মুখোপাধ্যায়ের বিরু‌দ্ধে তোলাবাজি ও সিন্ডিকেটে যুক্ত থাকার অভিযোগ৷ এ ছাড়াও পুরনিগমের কাউন্সিলর চামেলি নস্কর, জয়দেব নস্কর ও অনুপম মণ্ডলের বিরু‌দ্ধেও একই অভিযোগ তুলেছেন দলের একাংশ৷ এর পাশাপাশি কামারহাটি পুরসভার বিমল সাহা ও অজিতা ঘোষের নামেও অভিযোগ গিয়েছে জেলা কমিটির কাছে৷ একইভাবে উত্তর দমদম পুরসভার মহুয়া শীল, রাজশ্রী ঘোষ-সহ কয়েকজন পুর পারিষদ সদস্যের বিরু‌দ্ধেও অভিযোগ তোলাবাজি ও সিন্ডকেটে যুক্ত থাকার অভিযোগ উঠেছে৷

তৃণমূল সূত্রে জানা যায়, এই কয়েকজন-সহ মোট ২৫ জনপ্রতিনিধির উপর নজরদারি চালাচেছ জেলা কমিটি৷ এই জনপ্রতিনিধিদের বিষয় চূড়ান্ত রিপোর্ট দলনেত্রীর কাছে পাঠানো হবে৷ দলের কর্মীদের বিরু‌দ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত হলে শীর্ষ নেতৃত্ব তাদের বিরু‌দ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা নেবে৷

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement