২ আশ্বিন  ১৪২৭  সোমবার ২১ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

এশিয়ার বৃহত্তম বটলিং প্ল্যান্ট পানাগড়ে

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: August 15, 2016 2:00 pm|    Updated: August 15, 2016 2:00 pm

An Images

স্টাফ রিপোর্টার: পানাগড়ে ১৯০ কোটি টাকা ব্যয়ে এশিয়ার বৃহত্তম বটলিং প্ল্যান্ট গড়তে চলেছে কেন্দ্রীয় পেট্রোলিয়াম মন্ত্রক৷ শহরে এসে রাজ্যকে নতুন উপহার দিয়ে গেলেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী ধর্মেন্দ্র প্রধান৷

আশার খবর শোনালেন শহরের মানুষের জন্যও৷ আগামী তিন বছরের মধ্যে কলকাতা শহরে পাইপের মাধ্যমেই সমস্ত বাড়িতে পৌঁছে যাবে রান্নার গ্যাস৷ এর জন্য ১২ হাজার কোটি টাকা লগ্নি করতে চলেছে কেন্দ্রের পেট্রোলিয়াম মন্ত্রক৷ প্রধানমন্ত্রী উজ্জ্বলা যোজনার সূচনার শেষে  এমনটাই জানালেন কেন্দ্রের পেট্রোলিয়াম এবং প্রাকৃতিক গ্যাস মন্ত্রণালয়ের রাষ্ট্রমন্ত্রী৷

মন্ত্রী বলেন “পুরসভা যেভাবে পানীয় জল দেয় সেই একই উপায়ে রান্নার গ্যাস দেবে কেন্দ্রীয় সরকার৷” জানা গিয়েছে, জগদীশপুর-হলদিয়া পাইপ লাইন হয়েই রান্নার গ্যাস আসবে কলকাতায়৷ গ্যাসের পাইপ লাইন বসানোর খরচের চল্লিশ শতাংশ দেবে কেন্দ্রীয় সরকার৷ বাকি ষাট শতাংশ বহন করবে গ্যাস অথিরিটি অফ ইন্ডিয়া লিমিটেড৷ জগদীশপুর থেকে হলদিয়া ২০০০ কিলোমিটার পাইপ লাইন বসলে পশ্চিমবঙ্গের শিল্প পরিস্থিতির আমূল বদল ঘটবে বলেও আশা প্রকাশ করেছে মন্ত্রী৷

পাশাপাশি রাজ্যের অর্থনৈতিকভাবে পিছিয়ে পড়া মানুষকে বিনামূল্যে এলপিজি সংযোগ দেবে কেন্দ্র ৷ শুধুমাত্র পশ্চিমবঙ্গের এলপিজি সংযোগের জন্য তিন হাজার কোটি টাকা লগ্নি করতে চলেছে দিল্লির পেট্রোলিয়াম মন্ত্রক৷ এদিন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বলেন, “এ রাজ্যের অনেকেই রান্নার জন্য কাঠ, কয়লা, ঘুঁটে ব্যবহার করেন৷ এইসব দিয়ে রান্নার সময় যে ধোঁয়া বেরোয় তা একদিকে যেমন পরিবেশ দূষণ করে অন্যদিকে তা মহিলাদের স্বাস্থ্যের পক্ষেও ক্ষতিকর৷” সে কারণে রাজ্যের দারিদ্রসীমার নিচে থাকা মানুষকে বিনামূল্যে এলপিজি সংযোগ দেবে কেন্দ্র সরকার৷ এদিন রাজ্যের ১২০ জন দারিদ্র মানুষের হাতে এলপিজি সংযোগ তুলে দেন মন্ত্রী৷

রাজ্যের দরিদ্র মানুষের জন্য কাজ করতে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সহযোগিতা চেয়েছেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী৷ নিজেকে ‘মুখ্যমন্ত্রীর ছোট ভাই’ হিসাবে পরিচয় দিয়ে মন্ত্রী বলেছেন, “রাজ্যের এক কোটিরও বেশি দারিদ্রসীমার নিচে থাকা মানুষকে বিনামূল্যে এলপিজি সংযোগ দিতে চায় কেন্দ্র৷ ভারতে প্রতি একশো জনের মধ্যে ৫২ জন এলপিজি গ্যাস ব্যবহার করেন সেখানে পশ্চিমবঙ্গের মালদহে ১০০ জনে মোটে ২৮ জন এলপিজি গ্যাস ব্যবহার করেন৷ মন্ত্রীর কথায়, “পশ্চিমবঙ্গের সমস্ত জেলাতেই সংখ্যাটা খুবই দুঃখজনক৷”

তবে রাজ্যের পাশাপাশি প্রতিবেশী দেশের দিকেও সাহায্যের হাত বাড়িতে দিতে চলেছে কেন্দ্রের পেট্রোলিয়াম মন্ত্রক৷ ইতিমধ্যেই বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে প্রাথমিক কথা হয়ে গিয়েছে৷ ওড়িশার ধামড়ায় লিকুইড ন্যাচারাল গ্যাসের একটি কেন্দ্র গড়ে উঠছে৷ সেখান থেকে প্রতিবেশী দেশ বাংলাদেশে ‘এলএনজি’ সরবরাহ করা হবে৷

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement