BREAKING NEWS

৯ আশ্বিন  ১৪২৭  সোমবার ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

সৎকারের বদলে কবরে ঠাঁই প্রবাসী হিন্দু ভারতীয়র!

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: July 18, 2016 7:42 pm|    Updated: July 18, 2016 8:13 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: দুর্ঘটনায় প্রাণ হারিয়েছেন মার্কিন নিবাসী ভারতীয় চন্দন গাভাই৷ ওই একই দুর্ঘটনায় প্রাণ হারিয়েছেন তাঁর মা অর্চনা গাভাই এবং বাবা কমলনয়ন গাভাই৷ কিন্তু এই দুর্ঘটনায় কোনওরকমে প্রাণে বেঁচে গিয়েছেন চন্দনের স্ত্রী মনীষা৷ গাড়ি দুর্ঘটনায় ঘোরতর জখম হয়ে বর্তমানে তিনি কোমায় রয়েছেন৷ আর তাই চন্দনের মা ও বাবার সৎকার প্রক্রিয়া সম্পন্ন করার প্রস্তাব গৃহীত হলেও চন্দনের সৎকার প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে রাজি হল না মার্কিন প্রশাসন৷ স্ত্রী’র অনুমতি ছাড়া স্বামীর অন্ত্যেষ্টি ক্রিয়া সেদেশে সম্ভব নয়, এ কথাই সাফ জানিয়ে দেওয়া হল মার্কিন প্রশাসনের পক্ষ থেকে৷ বিদেশমন্ত্রী সুষমা স্বরাজের হস্তক্ষেপেও সমস্যার সমাধান মিলল না৷ নিউ ইয়র্কে দায়িত্বরত ভারতীয় কনসাল জেনারেল রিভা গঙ্গোপাধ্যায় জানিয়েছেন স্ত্রী মনীষার অনুমতি ছাড়া চন্দনের অন্ত্যেষ্টি ক্রিয়া সম্পন্ন করা সম্ভব নয়৷ তাই মনীষার সুস্থ হয়ে ওঠা অবধি কবরে রাখা হবে চন্দনের দেহ৷ মনীষার অনুমতি পেলে তবেই শাস্ত্র মতে সৎকার করা হবে ৩৮ বছরের আইটি প্রফেশনাল চন্দন গাভাইয়ের৷

প্রসঙ্গত, গত ৪ জুলাই নিউ ইয়র্কে স্বাধীনতা দিবস উৎযাপন উপলক্ষ্যে আতসবাজির উৎসব দেখতে গিয়েছিলেন চন্দন ও তাঁর পরিবার৷ অনুষ্ঠান থেকে ফেরার সময় একটি পিক-আপ ট্রাকের সঙ্গে ধাক্কা লাগায় দুর্ঘটনার শিকার হন তাঁরা৷ গাড়িতে চন্দন, তাঁর মা-বাবা, তাঁর স্ত্রী এবং ১১ মাসের সন্তান ছিল৷ ভয়াবহ দুর্ঘটনায় চন্দন ও তাঁর মা-বাবার মৃত্যু হয়৷ গুরুতর জখম হয়ে কোমায় চলে যান চন্দনের স্ত্রী মনীষা৷ কিন্তু খুব অদ্ভুতভাবেই ১১ মাসের সন্তানটি বেঁচে যায়৷ তাঁর বিশেষ চোটও লাগেনি৷

গাভাই পরিবারের পাশাপাশি ওই পিক-আপ ট্রাকের চালকও দুর্ঘটনায় প্রাণ হারান৷ জানা গিয়েছে, মহারাষ্টের কল্যাণের বাসিন্দা গাভাই পরিবার বহুদিন ধরেই আমেরিকায় বসবাসকারী৷ মনীষার পরিবারও মার্কিন নীতি মেনে অন্ত্যেষ্টি ক্রিয়া সম্পন্ন করায় সম্মতি জানিয়েছে৷ এই ঘটনায় বিদেশমন্ত্রী সুষমা স্বরাজ শোকবার্তা জানিয়ে টুইট করেছেন এবং জানিয়েছেন মনীষা সুস্থ হয়ে উঠলেই চন্দনের অন্ত্যেষ্টি ক্রিয়া সম্পন্ন হবে৷ পাশাপাশি মৃত পরিবারের ব্যক্তিদের ডেথ সার্টিফিকেট ইস্যু এবং জীবনবিমা সংক্রান্ত বিষয়গুলি যাতে যাতে দ্রুত সম্পন্ন হয় সেই বিষয়টিতেও লক্ষ্য রাখা হবে বলে তিনি জানিয়েছেন৷

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement