Advertisement
Advertisement

Breaking News

বাবা-কাকার সঙ্গে কোন্দলে গদি টলমল অখিলেশের

পারিবারিক বিবাদে জেরবার উত্তরপ্রদেশের সমাজবাদী পার্টির সরকার৷

Will Akhilesh and Mulayam split Samajwadi Party?
Published by: Sangbad Pratidin Digital
  • Posted:September 14, 2016 2:56 pm
  • Updated:October 27, 2020 1:09 pm

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: যাদব বনাম যাদব৷ বাপ-কাকার সঙ্গে তীব্র সংঘাতে জড়ালেন উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী অখিলেশ যাদব৷ মুলায়ম-অখিলেশদের পারিবারিক কোন্দলের কারণে উত্তরপ্রদেশে বিধানসভা নির্বাচনের আগে ঘোরতর সংকটে পড়ল সমাজবাদী পার্টি৷ অখিলেশ মুখ্যমন্ত্রী হলেও সপার সর্বেসর্বা যে তিনিই, সমাজবাদী পার্টির রাজ্য-সভাপতি পদ থেকে ছেলেকে সরিয়ে দিয়ে তা ফের স্পষ্ট করে দিলেন মুলায়ম সিং যাদব৷ ক্ষমতার ব্যাটন নিজের হাতে রাখতে এই মুহূর্তে ছেলে অখিলেশের চেয়ে ছোট ভাই শিবপাল তাঁর বেশি প্রিয়৷ তাই শিবপাল-অখিলেশের দ্বন্দ্বে ভাইয়ের পাশেই দাঁড়িয়েছেন সমাজবাদী পার্টির সুপ্রিমো৷

সোমবার অখিলেশ তাঁর মন্ত্রিসভা থেকে শিবপালকে কার্যত সরিয়ে দেওয়ার পরই এভাবে ‘পাল্টা প্রতিশোধ’ নিলেন নেতাজি৷ সাম্প্রতিককালে অখিলেশের বেশ কিছু সিদ্ধান্তে এবং মুলায়ম-শিবপালের কথা না শোনায় বিরক্ত হচ্ছিলেন সপা-প্রধান৷ দলের একাংশের বক্তব্য, মুলায়মকে সরিয়ে সপার মুখ হয়ে ওঠার চেষ্টা করছিলেন অখিলেশ৷ সম্প্রতি মুলায়ম ও শিবপালের ঘনিষ্ঠদের মন্ত্রিসভা বা মুখ্যমন্ত্রীর মুখ্যসচিব পদ থেকে বরখাস্ত করায় বাপ-কাকার সঙ্গে অখিলেশের কোন্দল প্রকাশ্যে আসে৷

Advertisement

দলীয় সূত্রের খবর, আগামী বছর বিধানসভা নির্বাচনে অখিলেশকে মুখ্যমন্ত্রী পদপ্রার্থী নাও করতে পারেন নেতাজি৷ মুখ্যমন্ত্রী পদপ্রার্থী হওয়ার দৌড়ে শিবপালকে এগিয়ে রাখছেন মুলায়ম৷ বুধবার সকালে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হন শিবপাল৷ উত্তরপ্রদেশের গুরুত্বপূর্ণ ক্ষেত্রের মন্ত্রিত্ব খুইয়ে গত ক’দিন বিষন্ন থাকলেও দাদার আশীবার্দে দলের রাজ্য সভাপতির দায়িত্ব পেয়ে এদিন তাঁর মুখে ছিল চওড়া হাসি৷ তিনি বলেন, “নেতাজির সঙ্গে আমার কথা হয়ে গিয়েছে৷ উনি যা বলবেন আমি তাই করব৷ নেতাজি যা নির্দেশ দেবেন কেউ তার বিরুদ্ধাচারণ করতে পারবে না৷” অখিলেশ নিজের ক্ষমতা ব্যবহার করে তাঁকে সরিয়েছে বলেও জানান তিনি৷

Advertisement

কাকা-ভাইপোর মতবিরোধ শুরু হয় গ্যাংস্টার মুখতার আনসারির দল ‘কায়ামি একতা দল’কে সপার সঙ্গে সংযুক্ত করার বিষয়টি নিয়ে৷ শিবপাল মুখতারের দলের সঙ্গে সপাকে যুক্ত করতে চেয়েছিলেন৷ কিন্তু নিজের ভাবমূর্তি স্বচ্ছ রাখার জন্য গ্যাংস্টারের দলের সঙ্গে সমাজবাদী পার্টির মেলবন্ধন হোক, চাননি অখিলেশ৷ এরপর দুর্নীতির অভিযোগ ওঠায় শিবপাল-ঘনিষ্ঠ দুই মন্ত্রী ও রাজ্যের মুখ্যসচিব দীপক সিংঘালকে অপসারণ করেন অখিলেশ৷ তারপর শিবপালের হাত থেকে গুরুত্বপূর্ণ দফতরের দায়িত্ব কেড়ে নিয়ে সমাজ কল্যাণের মতো ছোট দফতরের দায়িত্ব দেন৷ এতেই বাবার রোষানলে পড়েন অখিলেশ৷ কাকার সঙ্গে মতবিরোধের জন্য অখিলেশের মুখ্যমন্ত্রী পদের গদির টলমল অবস্থা৷ সপা সমর্থকদের সংখ্যাগরিষ্ঠের মতে, এখনও মুলায়মই দলের প্রধান৷ তাঁকে দেখেই সপাকে মানুষ ভোট দেয়৷ এ অবস্থায় বাবা-কাকার বিরাগভাজন হয়ে মুখ্যমন্ত্রীর ক্ষমতায় টিকে থাকা অখিলেশের পক্ষে কঠিন হয়ে পড়বে৷

Sangbad Pratidin News App

খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ