৩০ চৈত্র  ১৪২৭  মঙ্গলবার ১৩ এপ্রিল ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

করোনার জন্য শিক্ষাখাতে বরাদ্দ কমেছে ভারত-সহ একাধিক দেশের, দাবি বিশ্ব ব্যাংকের

Published by: Monishankar Choudhury |    Posted: March 1, 2021 2:21 pm|    Updated: March 1, 2021 2:21 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: করোনার দাপটে ত্রস্ত বিশ্ব। আমেরিকার মতো উন্নত দেশে ৫ লক্ষেরও বেশি মানুষের মৃত্যু হয়েছে। এহেন সময়ে উদ্বেগ বাড়িয়ে এক রিপোর্টে বিশ্ব ব্যাংক জানিয়েছে, মহামারীর কারণে নিম্ন ও নিম্ন মধ্য অর্থনীতির দেশগুলির ৬৫ শতাংশ শিক্ষাখাতে বাজেট বরাদ্দ কমিয়েছে। অন্য দিকে, এই খাতে বরাদ্দ কমিয়েছে উচ্চ এবং উচ্চমধ্য অর্থনীতির দেশগুলির ৩৩ শতাংশ।

[আরও পড়ুন: ৭ নয়, সেনার বর্বরতায় একদিনে ১৮ গণতন্ত্রকামীর মৃত্যু মায়ানমারে, দাবি রাষ্ট্রসংঘের]

বিশ্বের শিক্ষা ব্যবস্থায় করোনার প্রভাব নিয়ে ইউনেসকো’র (UNESCO) গ্লোবাল এডুকেশন মনিটরিং (GEM))-এর সঙ্গে যৌথভাবে সমীক্ষা চালিয়েছে বিশ্ব ব্যাংক। শিক্ষাবিদদের চিন্তা বাড়িয়ে সেখানে বলা হয়েছে, করোনা আবহে শিক্ষাক্ষেত্রে নিম্ন-মধ্য অর্থনীতির দেশগুলি যে পরিমাণ খরচ বরাদ্দ করেছে, তা উন্নয়নের ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে পর্যাপ্ত নয়। রিপোর্টটিতে আরও বলা হয়েছে, “করোনা মহামারীর আবহে শিক্ষা বাজেটে স্বল্প মেয়াদের কী প্রভাব পড়েছে, তা খতিয়ে দেখতে ২৯টি দেশে সমীক্ষা চালানো হয়েছে। তার মধ্যে রয়েছে তিনটি নিম্ন অর্থনীতির দেশ। সেগুলি হল– আফগানিস্তান, ইথিওপিয়া এবং উগান্ডা। রয়েছে নিম্ন-মধ্য অর্থনীতিসম্পন্ন বাংলাদেশ, মিশর, ভারত, কেনিয়া, নেপাল, পাকিস্তান, মরক্কোর মতো ১৪টি দেশ। সমীক্ষা চালানো হয়েছে আর্জেন্টিনা, ব্রাজিল, কলম্বিয়া, মেক্সিকো-র মতো ১০টি উচ্চ-মধ্য অর্থনীতিসম্পন্ন দেশে।”

করোনা সংক্রমণ রুখতে ও পরিস্থিতি সামাল দিতে যে সব দেশে শিক্ষাখাতে বরাদ্দ কাটছাঁট করা হয়েছে, তারা ফের এই খাতে কতটা বরাদ্দ বাড়াতে সক্ষম হবে, তা নিয়ে বিশ্ব ব্যাংকের ওই রিপোর্টে আশঙ্কা প্রকাশ করা হয়েছে। তবে শিক্ষাব্যবস্থাকে ফের মজবুত করতে যখন খরচ বাড়ানো জরুরি, তখন তার ঠিক উল্টোটাই করছে অনেক দেশ। ভারতের ক্ষেত্রে যেমন শিক্ষামন্ত্রকের জন্য বাজেটে ৬ শতাংশ বরাদ্দ কমানো হয়েছে। ৯৯ হাজার ৩১১ কোটি টাকা থেকে বরাদ্দ কমিয়ে করা হয়েছে ৯৩ হাজার ২২৩ কোটি। উল্লেখ্য, সোমবার অর্থাৎ আজ থেকে দেশজুড়ে দ্বিতীয় পর্যায়ের টিকাকরণের শুরু হলেও সার্বিকভাবে দেশের করোনার পরিসংখ্যান নতুন করে বাড়াচ্ছে উদ্বেগ। নতুন স্ট্রেনের হামলা এবং মহারাষ্ট্র-সহ একাধিক রাজ্যে লাগামহীন সংক্রমণের জন্যই চিন্তামুক্ত হওয়া যাচ্ছে না। রবিবারের তুলনায় এদিন করোনা আক্রান্ত এবং মৃতের সংখ্যা সামান্য কমলেও বেশ খানিকটা বেড়েছে অ্যাকটিভ কেসের সংখ্যা। বিশেষজ্ঞদের আশঙ্কা, সতর্ক না হলে দেশে করোনার দ্বিতীয় ঢেউ হানা দিতেই পারে।

[আরও পড়ুন: চিনের ‘আনারস লড়াই’, তাইওয়ানকে শায়েস্তা করতে হাস্যকর পদক্ষেপ বেজিংয়ের]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement