২০ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  মঙ্গলবার ৭ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

চলন্ত ট্রেনে খালি হাতে সাপ মারলেন যুূবক, ভাইরাল ভিডিও

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: November 23, 2017 3:08 pm|    Updated: September 22, 2019 6:35 pm

A brave Indonesian man kills snake with his bare hands in running train, video goes viral

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ব্যস্ত অফিস টাইম। গন্তব্যের পথে ছুটছে ভিড়ে ঠাসা ট্রেন। কিন্তু, এ কী! কামরার ভিতরে যাত্রীদের ব্যাগ রাখার জায়গায় যে উঁকি মারছে একটি আস্ত সাপ! মুহূর্তে আতঙ্কিত হয়ে পড়লেন যাত্রীরা। সেটাই স্বাভাবিক। কিন্তু, এরপর যা ঘটল, তার জন্য বোধহয় প্রস্তুত ছিলেন না কেউ। এক তরুণ যাত্রী এগিয়ে এলেন। সম্পূর্ণ খালি হাতে সাপটিকে লেজ ধরে নামিয়ে আছাড় মারলেন কামরার মেঝেতে। এক আঘাতে মৃত্যু হল সরীসৃপের। সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে এমনই ভিডিও।

21 November | Penemuan ular di KRL jurusan Bogor-Angke. Peristiwa ini terjadi di stasiun Manggarai dan ditangani oleh salah seorang penumpang. info @hafidzradhi video @satriyack #jktinfo

A post shared by JKT INFO (@jktinfo) on

[চাঁদে মানুষ পাঠানোর দাবি ভুয়ো, অ্যাপোলো ১৭-এর সাফল্যকে নস্যাৎ করল নয়া ভিডিও]

ঘটনাটি ঘটেছে ইন্দোনেশিয়ায়। বোগার শহর থেকে রাজধানী জার্কাতায় যাচ্ছিল ওই ট্রেনটি। মাঝপথে, চলন্ত ট্রেনের কামরায় সাপ দেখে আঁতকে ওঠেন যাত্রীরা। কামরায় যাত্রীদের ব্যাগ রাখার রেকে ছিল সাপটি। রেলকর্তাদের অনুমান, কোনও যাত্রীর ব্যাগের ভিতরই সাপটি লুকিয়ে বসেছিল। পরে সুযোগ বুঝে ব্যাগ থেকে বেরিয়ে আসে। ঘটনার পর তড়িঘড়ি ট্রেনটি থামিয়ে দেন চালক। কিন্তু, ট্রেনের নিরাপত্তারক্ষীরা সাপটি ধরার সাহস পাননি। ভিডিও-তে দেখা গিয়েছে, ব্যাগ কাঁধে এক যুবক এগিয়ে এসে লেজ ধরে সাপটি রেক থেকে নামান। তারপর সজোরে প্রাণীটিকে ট্রেনের মেঝেতে আছাড় মারেন। পরক্ষণেই মারা যায় সাপটি। গোটা ঘটনাটি মোবাইলে রেকর্ড করেন ওই ট্রেনেরই এক যাত্রী। ভিডিওটি সোশ্যাল মিডিয়ার পোস্ট করতেই তা ভাইরাল হয়।

[গ্রহাণুর সঙ্গে সংঘর্ষেই ধ্বংস হবে মানব সভ্যতা! এবার দাবি নাসারই]

এদিকে, এই ঘটনার জন্য যাত্রীদের কাছে ক্ষমা চেয়েছে ইন্দোনেশিয়ার রেল-কর্তৃপক্ষ। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, সাপটি লম্বায় প্রায় তিন ফুট ছিল। তবে সেটি বিষধর কিনা, তা জানা যায়নি। পরিচয় জানা যায়নি সাহসী যুবকটিরও। প্রসঙ্গত, ইন্দোনেশিয়ার গ্রামীণ এলাকায় পোষ্যদের নিয়েই বাস বা ট্রামে সফর করেন স্থানীয় বাসিন্দারা। তবে শহরের পাবলিক ট্রান্সপোর্টে জন্তু বা প্রাণীকে নিয়ে সফর করা নিষিদ্ধ।

[স্তনের বৃদ্ধি থামছে না, অস্ত্রোপচারের জন্য অর্থ সংগ্রহে এই যুবতী]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে