BREAKING NEWS

২৮ আশ্বিন  ১৪২৭  বুধবার ২১ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

করোনা রুখতে মোটা অঙ্কের ঋণ, সীমান্তে উত্তেজনার মধ্যেও ভারতের পাশে ‘চিনা’ ব্যাংক

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: June 18, 2020 11:06 am|    Updated: June 18, 2020 11:17 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সীমান্তে যুদ্ধের আবহ। সাড়ে চার দশক পর সোমবার রাতে ফের চিন (China) সীমান্তে রক্ত ঝরেছে ভারতীয় জওয়ানদের। শহিদ হয়েছেন ২০ জন। আহত হয়েছেন আরও বেশ কয়েকজন সেনা জওয়ান। এই সংঘর্ষে সীমান্তের ওপারেও বহু প্রাণহানি হয়েছে। কিন্তু এসব উপেক্ষা করেই ভারতের পাশে এসে দাঁড়াল চিনের তত্ত্বাবধানে থাকা এশিয়ান ইনফ্রস্ট্রাকচার ইনভেস্টমেন্ট ব্যাংক। করোনা পরবর্তী অর্থনীতিকে চাঙ্গা করে তুলতে ভারতের জন্য ৭৫ কোটি ডলার বা প্রায় ৫৭ হাজার কোটি টাকা ঋণ মঞ্জুর করল এই আন্তর্জাতিক সংস্থাটি।

এশিয়ান ইনফ্রস্ট্রাকচার ইনভেস্টমেন্ট ব্যাংক (Asian Infrastructure Investment Bank) মূলত একটি আন্তর্জাতিক সংস্থা। এই ব্যাংকটি মূলত এশিয়া প্যাসিফিক এলাকায় বিভিন্ন দেশের আর্থিক এবং সামাজিক পরিকাঠামো উন্নয়নে কাজ করে। এর স্থায়ী সদস্য সংখ্যা ৭৮, আরও ২৪ জন অস্থায়ী সদস্য দেশ আছে। তাৎপর্যপূর্ণ বিষয় হল, ব্যাংকটির সদর দপ্তর বেজিংয়ে। সেই সুবাদে এর নিয়ন্ত্রণও মূলত চিনের হাতেই। AIIB চিনের মালিকানাধীন না হলেও এর গুরুত্বপূর্ণ সব সিদ্ধান্ত নির্ভর করে চিনেরই উপর। আর বর্তমানে চিন আর ভারতের কূটনৈতিক সম্পর্ক তলানিতে। পূর্ব লাদাখে দুই দেশের মধ্যে রীতিমতো যুদ্ধের আবহ। কিন্তু এসবের মধ্যেও এই তথাকথিত চিনা ব্যাংকটির ভারতের পাশে দাঁড়ানোটা বেশ অর্থবহ।

[আরও পড়ুন: কেন গালওয়ানের দখল নিতে মরিয়া চিন? জেনে নিন সত্যিটা]

বুধবার AIIB-র তরফে ঘোষণা করা হয়েছে, করোনা সংক্রমণের জেরে ভেঙে পড়া ভারতের অর্থনীতিকে জাগিয়ে তুলতেই এই ঋণ দেওয়া হচ্ছে৷ এশিয়ান ডেভেলপমেন্ট ব্যাংকের সঙ্গে যৌথ উদ্যোগে তারা ভারতীয় ব্যবসায়ীদের পাশে দাঁড়াতে চায়। এই প্রথম নয়, করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলায় ভারতকে এর আগেও ৫০ কোটি ডলার ঋণ দিয়েছিল এই ব্যাংকটি। লাদাখে অশান্তির জেরে ভারতে এখন ‘চিনা’ পণ্য বয়কটের হিড়িক চলছে। কিন্তু চিনের পক্ষে যে ভারতের সঙ্গে ব্যবসায়িক সম্পর্ক ছিন্ন করা সহজ হবে না, তা আরও একবার স্পষ্ট হল AIIB ঋণ দেওয়ার সিদ্ধান্তে।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement