BREAKING NEWS

১৩ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  মঙ্গলবার ৩০ নভেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

কোরিয়া সীমান্তে হাত মেলাতে পারেন ট্রাম্প ও কিম, জল্পনায় সিঙ্গাপুরও

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: May 1, 2018 2:02 pm|    Updated: May 1, 2018 2:02 pm

Breaking ice Donald Trump may shake hands with N Korea’s Kim

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: গরফ গলেছিল বেশ কিছুদিন আগেই! মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে রাজি হয়েছিলেন উত্তর কোরিয়ার সর্বাধিনায়ক কিম জং উন। তবে কোথায় হবে সেই সাক্ষাৎ পর্ব তা নিয়ে তৈরি হয়েছিল জল্পনা। সূত্রের খবর, উত্তর কোরিয়া ও দক্ষিণ কোরিয়া সীমান্তে অবস্থিত ডিমিলিটারাইজড জোনে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের সঙ্গে সাক্ষাতে ইচ্ছা প্রকাশ করেছেন কিম।

দীর্ঘ ৬৫ বছরের দ্বন্দ্ব মিটিয়ে গত শুক্রবার কাছাকাছি এসেছিল উত্তর কোরিয়া ও দক্ষিণ কোরিয়া। হাত মিলিয়েছিল দুই দেশের রাষ্ট্রপ্রধান উত্তর কোরিয়ার কিম জং উন ও দক্ষিণ কোরিয়ার মুন জে ইন। উল্লেখিত ডিমিলিটারাইজড জোনে অবস্থিত পানমুনজোমের পিস হাউসেই ঘটেছিল সেই ঐতিহাসিক ঘটনা। বৈঠকে কিমকে মার্কিন প্রেসিডেন্টের সঙ্গে পিস হাউসে সাক্ষাৎ করার প্রস্তাব দিয়েছিলেন মুন। সূত্রের খবর, মুনের প্রস্তাবে অনেকটাই সহমত কিমও। যদি সেখানে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ও উত্তর কোরিয়ার সর্বাধিনাক কিম জং উন বৈঠক করেন তবে আবারও একটা ঐতিহাসিক ঘটনার সাক্ষী থাকবে পানমুনজোমের পিস হাউস। এমনই মনে করছে আন্তর্জাতিক মহল।

[কিমের সুমতি! মে মাসেই উত্তর কোরিয়ার সব পরমাণু অস্ত্র পরীক্ষাকেন্দ্র বন্ধের ঘোষণা]

মে অথবা জুন মাসের কিমের সঙ্গে বৈঠক করতে তিনিও যে যথেষ্ট আগ্রহী, তা সোমবার করা মার্কিন প্রেসিডেন্টের টুইট থেকেই স্পষ্ট। সেই টুইটে, ট্রাম্প যেমন পিস হাউসে বৈঠক হওয়ার ইঙ্গিত দিয়েছেন, তেমনই সিঙ্গাপুরের ফ্রিডম হাউসে বৈঠকের জল্পনাও উসকে দিয়েছেন। পাশাপাশি, দীর্ঘ বিবাদ মিটিয়ে উত্তর কোরিয়া ও দক্ষিণ কোরিয়ার কাছাকাছি আসাকেও সাধুবাদ জানিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট।

টুইটের মাধ্যমে প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প সিঙ্গাপুরে বৈঠক হওয়ার যে জল্পনা তৈরি করেছেন তাকে কোনও মতেই খাটো করে দেখতে নারাজ আন্তর্জাতিক মহল। এর পিছনে যথেষ্ট গুরুত্ব রয়েছে বলে তারা মনে করছে। তাদের যুক্তি, একদিকে সিঙ্গাপুরের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক ভাল পিয়ংইয়ং-এর। সেখানে উত্তর কোরিয়ার দূতাবাসও রয়েছে। পাশাপাশি ওয়াশিংটনের সঙ্গেও সুসম্পর্ক রয়েছে সিঙ্গাপুরের। সেখানে রয়েছে মার্কিন মিলিটারি বেস।

[ইতিহাস তৈরি করে ব্রিটিশ গুপ্তচর সংস্থা ‘MI6’-এর শীর্ষপদে মহিলা]

যদিও অন্য একটি সূত্র বলছে, নিরাপত্তা কারণে উত্তর কোরিয়া থেকে বেশি দূরত্বে সফর করতে পারেন না উত্তর কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট কিম জং উন। ফলে রেলপথে উত্তর কোরিয়ার সঙ্গে যুক্ত প্রতিবেশী দেশ মঙ্গোলিয়াতেও হতে পারে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ও উত্তর কোরিয়ার সর্বাধিনায়ক কিম জং উনের সাক্ষাৎ।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে