BREAKING NEWS

২৮ আষাঢ়  ১৪২৭  মঙ্গলবার ১৪ জুলাই ২০২০ 

Advertisement

কিছুতেই সারছে না কিমের অসুখ, চিকিৎসক দল পাঠাল ‘বন্ধু’ চিন   

Published by: Monishankar Choudhury |    Posted: April 25, 2020 12:14 pm|    Updated: April 25, 2020 12:14 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: অস্ত্রোপচারের পর থেকেই গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়েছেন কিম জং উন। কিছুতেই তাঁকে সুস্থ করে তুলতে পারছেন না চিকিৎসকরা। তাই এবার পরিস্থিতি সামাল দিতে উত্তর কোরিয়ায় বিশেষজ্ঞ ডাক্তারদের একটি দল পাঠিয়েছে চিন। 

[আরও পড়ুন: পাকিস্তানে ফের হিন্দু নির্যাতন, ২ নাবালিকাকে অপহরণ করে ধর্মান্তকরণ]   

দু’সপ্তাহ আগে হৃদপিণ্ডে অস্ত্রোপচার হয় উত্তর কোরিয়ার একনায়ক কিম জং উনের। তারপর থেকেই মধ্য তিরিশের নেতার শরীর ভাল যাচ্ছে না। এরমধ্যেই দক্ষিণ কোরিয়ার সংবাদমাধ্যমের তরফে জানানো হয়, সংকটজনক অবস্থায় রয়েছেন কিম। অত্যধিক ধূমপান, স্থূলতা-সহ বেশ কিছু সমস্যা নিয়ে দীর্ঘদিন ধরেই ভুগছিলেন কিম জং উন। তার উপর ছিল মাত্রাতিরিক্ত কাজের চাপ। এর জেরেই হৃদযন্ত্রে অস্ত্রোপচার এবং তারপর থেকেই গুরুতর অসুস্থ কিম জং উন। সংবাদ সংস্থা রয়টার্স সূত্রে খবর, গত বৃহস্পতিবারই পিয়ংইয়ংয়ের উদ্দেশে রওনা দেয় দু’জন চিকিৎসক-সহ চিনা প্রতিনিধি দল। ওই দলটির নেতৃত্বে রয়েছেন চিনের কমিউনিস্ট পার্টির আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের এক শীর্ষ নেতা।   

সম্প্রতি, উত্তরে কোরিয়ার রাষ্ট্রপ্রধানের শাসনভার সাময়িকভাবে হাতে নিতে পারেন কিম জং উনের সহোদর বোন কিম ইও জং বলে খবর ছড়িয়েছে। উত্তর কোরিয়ার কমিউনিস্ট পার্টি, সরকার ও সেনাবাহিনীতে কিম ইও-র বিরাট প্রভাব রয়েছে। তিনি দাদা কিমের প্রতি অনুগত এবং বিশ্বস্ত। শোনা যায়, কিম কোনওদিন কোনও পুরুষ আত্মীয় বা পরিবারের সদস্যকে বিশ্বাস করেননি। তাঁর একাধিক নারীসঙ্গী বা স্ত্রীকেও বিশ্বাস করেননি কখনও। কিন্তু বোনের প্রতি অগাধ আস্থা তাঁর। এর আগে কিমের পাশে জরুরি বৈঠকগুলিতে বোন ইও-কে উপস্থিত থাকতে দেখা গিয়েছে। ফলে কিমের শারীরিক অবস্থা সংকটজনক বলে যখন রটেছে এবং সেই রটনা যখন সরকারিভাবে উত্তর কোরিয়া খণ্ডন করেনি, তখন পশ্চিমী সংবাদমাধ্যম, জাপান ও দক্ষিণ কোরিয়ার গুপ্তচর সংস্থাগুলির পেশ করা রিপোর্টে বলা হয়েছে, কিম অসুস্থ বা মৃত হলে সরকার ও কমিউনিস্ট পার্টির প্রথম পছন্দ কিমের বোন কিম ইও জং। কারণ তিনি বরাবরই সর্বাধিনায়ক কিমের পছন্দ।

[আরও পড়ুন: করোনা রুখতে WHO-এর ডাকে একজোট গোটা বিশ্ব, সাড়া দিল না আমেরিকা]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement