২৮ আশ্বিন  ১৪২৬  বুধবার ১৬ অক্টোবর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সামরিক অভ্যুত্থান রুখতে গিয়ে নিজের বাসভবনে দেহরক্ষীরই গুলিতে খুন হলেন ইথিওপিয়ার সেনাপ্রধান জেনারেল সিয়ার মেকোনেন। শনিবার সন্ধেয় রাজধানী আদ্দিস আবাবাতে তাঁর সঙ্গেই খুন হয়েছেন সেনাবাহিনীর আরও এক জেনারেল, জেজাই আবেরাও। ইথিওপিয়ার প্রধানমন্ত্রী আবি আহমেদ রবিবার সকালে জানিয়েছেন, হামলাকারী ধৃত। পরিস্থিতি আপাতত নিয়ন্ত্রণে। সেনাপ্রধানের হত্যার কয়েক ঘণ্টা আগেই খুন হন ইথিওপিয়ার উত্তরের ‘আমহারা’ প্রদেশের গভর্নর। প্রশাসনের অনুমান, সেখানে সামরিক অভ্যুত্থানের চেষ্টা চলছিল যা থামাতে চেয়েছিলেন সেনাপ্রধান। সে কারণেই খুন হতে হয় তাঁকে।

[আরও পড়ুন: মার্কিন আক্রমণে আগুন জ্বলবে পশ্চিম এশিয়ায়! ট্রাম্পকে পালটা ইরানের]

বছরখানেক আগে প্রধানমন্ত্রী আবি সেনাপ্রধানের পদে বসিয়েছিলেন সিয়ারকে। একইসঙ্গে সেনাবাহিনীর নানা পদে বহু পরিবর্তনও এনেছিলেন তিনি। সম্ভবত সে কারণেই সামরিক বাহিনীর একাংশের মধ্যে আবি-র বিরুদ্ধে তীব্র ক্ষোভ তৈরি হচ্ছিল। গত অক্টোবরে আবি আবার অভিযোগ করেন, পারিশ্রমিক বাড়ানোর দাবি জানানোর অজুহাতে আসলে তাঁকে খুন করতে এসেছিল সেনাবাহিনীর একাংশ। বছরখানেক আগে আবি-র উপর একটি গ্রেনেড হামলা হয়েছিল। এবারের ঘটনায় নাম উঠে এসেছে, আসামিনিউ সিগে নামে এক উচ্চপদস্থ সেনা অফিসার তথা আমহারা-র নিরাপত্তা প্রধানের।

সামরিক অভ্যুত্থানের অভিযোগেই ন’বছর জেলবন্দি থাকতে হয়েছিল সিগে-কে। কিন্তু পূর্বতন সরকার রাজনৈতিক বন্দিদের মুক্তি দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়ায় গত বছরের গোড়ার দিকে মুক্তি পান তিনি। সম্প্রতি হাতে অস্ত্র তুলে নেওয়ার জন্য আমহারার জনগণকে প্রকাশ্যে আহ্বান জানাতে দেখা গিয়েছে সিগে-কে। তেমন একটি ভিডিও ছড়িয়ে পড়ে ফেসবুকে। সেই বিষয় নিয়ে আলোচনার জন্যই শনিবার সন্ধেয় বৈঠকে বসেছিলেন আমহারার গভর্নর-সহ সর্বোচ্চ কর্তারা। এবং সেখান থেকেই শুরু খুনের পর্ব। শনিবার গভর্নরের সঙ্গেই খুন হন বর্ষীয়ান উপদেষ্টা এজেজ ওয়াসি। আহত হন অ্যাটর্নি জেনারেল। তবে সিগে-কে গ্রেপ্তার করা হয়েছে কিনা জানা যায়নি।

[আরও পড়ুন: ফের মারাত্মক ভুল, শচীনের ছবিকে ইমরানের বলে দাবি পাক প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারীর]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং