১৭ অগ্রহায়ণ  ১৪২৯  রবিবার ৪ ডিসেম্বর ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

বিয়ে করল ওসামা পুত্র হাজমা বিন লাদেন, পাত্রী কে জানেন?

Published by: Tanujit Das |    Posted: August 6, 2018 9:00 pm|    Updated: October 27, 2020 8:21 pm

Hamza bin Laden, the son Osama bin Laden, married the daughter of 9/11 hijacker Mohammed Atta

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বিয়ে করল ৯/১১ মার্কিন হানার অন্যতম মূলচক্রী তথা প্রাক্তন আল-কায়েদা প্রধান ওসামা বিন লাদেনের ছেলে হাজমা বিন লাদেন৷ সঙ্গিনী হিসাবে বেছে নিল, ওই ভয়ংকর জঙ্গি হানারই আরও এক মূলচক্রী ও হামলাকারী একটি বিমানের অপহরণকারী মহম্মদ আট্টার মেয়েকে৷ হাজমার বিয়ের সংবাদে সিলমোহর দিয়েছে লাদেন পরিবারের অন্যান্য সদস্যরা৷ সংবাদ মাধ্যম গার্ডিয়ান সূত্রের খবর, মার্কিন নজর এড়াতে, আফগানিস্তানেই কোনও গোপন ঠিকানায় সম্পন্ন হয়েছে এই বিবাহপর্ব৷

[‘কলকাতার পার্টিতে ইমরান খান মানেই বিরিয়ানি আর সুন্দরীরা’]

২০১১-তে মার্কিন নেভি সিলের অতর্কিতে হানায় পাকিস্তানের অ্যাবোটাবাদে খতম হয় আল-কায়েদার প্রতিষ্ঠাতা ওসামা বিন লাদেন৷ পাক সেনা ঘাঁটি থেকে ঢিল ছোঁড়া দূরত্বে অবস্থিত একটি বিশাল বাড়িতে আত্মগোপন করে সে৷ তখন তার সঙ্গে ছিল তিন স্ত্রী ও তাঁদের সন্তানরা৷ ওই হানায় প্রাণ যায় হাজমা বিন লাদেনের দাদা খালিদের৷ জানা গিয়েছে, হাজমা এখন আল-কায়েদার অন্যতম শীর্ষ নেতা৷ ৯/১১-র পর থেকেই বাবা ও দাদার মৃত্যুর প্রতিশোধ নিতে আমেরিকায় পালটা হামলার ছক কষছে সে৷ ২০১৬ থেকে প্রকাশ্যে এসেছে তার একাধিক হুমকি অডিও৷ যেখানে আমেরিকা-সহ পাশ্চাত্য দেশগুলিতে হামলার হুঁশিয়ারি দিতে শোনা গিয়েছে তাকে৷ গত দু’বছরে আমেরিকা-সহ একাধিক দেশের গোয়েন্দা সংস্থার ব়্যাডারে রয়েছে এই লাদেন পুত্র৷

[মার্কিন হুঁশিয়ারিকে বুড়ো আঙুল! রমরমিয়ে পারমাণবিক পরীক্ষা চালাচ্ছেন কিম]

প্রসঙ্গত, ৯/১১-তে ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টারে হামলা করে দুটি বিমান৷ তারমধ্যে একটি হল আমেরিকান এয়ারলাইন্সের ফ্লাইট নম্বর ১১৷ যেটি অপহরণ করে মিশরের নাগরিক তথা, ওই হামলার অন্যতম মূলচক্রী মহম্মদ আট্টা৷ ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টারের নর্থ টাওয়ারে ধাক্কা মারে সেই বিমান৷ মৃত্যু হয় বিমানে সওয়ার ৯২ জন যাত্রী-সহ ১৬০০ জনের৷ আরও একটি বিমান ধাক্কা মারে ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টারের সাউথ টাওয়ারে৷ বিশ্বের ইতিহাসে অন্যতম ভয়ংকর সন্ত্রাসবাদী হামলা এটি৷ হামলার বীভৎসতার কথা ভাবলেই এখনও কেঁপে ওঠেন অনেকেই৷ এরপর থেকেই আমেরিকার সবচেয়ে বড় শত্রু হিসেবে চিহ্নিত হয় লাদেন৷ দীর্ঘদিন ধরে তার খোঁজ চালান মার্কিন গোয়েন্দারা৷ অবশেষে ২০১১-তে পাকিস্তানের অ্যাবোটাবাদে খতম করা হয় এই সন্ত্রাসী নেতাকে৷

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে