Advertisement
Advertisement
Hezbollah

কমান্ডারের মৃত্যুর বদলা? ইজরায়েলে ২০০-র বেশি রকেট ছুড়ল হেজবোল্লা!

উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে ইজরায়েল-লেবানন সীমান্ত।

Hezbollah fires over 200 rockets at Israel after senior commander killed
Published by: Suchinta Pal Chowdhury
  • Posted:June 13, 2024 12:33 pm
  • Updated:June 13, 2024 8:32 pm

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ইজরায়েলের হামলায় নিহত হয়েছিল হেজবোল্লার এক শীর্ষ কমান্ডার। এবার তারই বদলা নিল লেবাননের সশস্ত্র সংগঠনটি! ইহুদি দেশটিতে অন্তত ২১৫টি রকেট ছুঁড়েছে ইরানের মদতপুষ্ট হেজবোল্লা। এমনটাই অভিযোগ জানিয়েছে, ইজরায়েলি ডিফেন্স ফোর্সেস (আইডিএফ)। ফলে ফের একবার উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে ইজরায়েল-লেবানন সীমান্ত। হামলা পালটা হামলা জারি রয়েছে। গত কয়েকদিন ধরেই সীমান্তে হেজবোল্লা ও ইজরায়েলি সেনার মধ্যে গুলির লড়াই চলছে।

গাজা যুদ্ধে হামাসের পক্ষে রয়েছে ইরানের মদতপুষ্ট হেজবোল্লা গোষ্ঠী। এপ্রিল মাসের মাঝামাঝি ইজরায়েলে অন্তত ১২টি রকেট লেবাননের জঙ্গি সংগঠনটির। যার পালটা দিয়ে লেবাননের অন্তত ৪০টি এলাকা লক্ষ্য করে হামলা চালায় ইজরায়েলি ডিফেন্স ফোর্সেও। সেই আক্রমণে নিকেশ হয় হেজবোল্লার একাধিক নেতা। এএফপি সূত্রে খবর,মঙ্গলবার ফের একবার তাদের ডেরায় হামলা চালায় তেল আভিভ। আর তাতেই নিকেশ হয় হেজবোল্লার এক শীর্ষ কমান্ডার। ইজরায়েলের হামলায় আরও তিনজনের মৃত্যু হয়েছে বলে খবর।

Advertisement

[আরও পড়ুন: ভারতে এসে আপ্লুত ‘চিনপন্থী’ মুইজ্জু, মোদির সঙ্গে বৈঠকের পর কী বললেন মালদ্বীপের প্রেসিডেন্ট?

এই ঘটনার পর লেবানন সেনার একটি সূত্র জানায়, গাজায় যুদ্ধ শুরু হওয়ার পর থেকে এখনও পর্যন্ত হেজবোল্লার বহু সদস্য নিহত হয়েছে। মঙ্গলবারের হামলায় যে নিহত হয়েছে সে এদের মধ্যে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ কমান্ডার ছিল। এর পরই বুধবার সকাল থেকে ইজরায়েলে হামলা চালাতে শুরু করে হেজবোল্লা। একের পর এক রকেট ছোড়ে তারা। যা আছড়ে পড়তে থাকে উত্তর ইজরায়েলের পার্বত্য এলাকায়। রকেটহানার জেরে সাইরেন বাজানো হয়। এবং এই প্রথমবার সেখানকার সাফেদ ও রোশ পিনা শহর থেকে হাজার হাজার বাসিন্দাদের সরিয়ে নেয় ইজরায়েলি ফৌজ। ওই রকেটগুলোর মধ্যে বেশ কয়েকটিকে গুলি করে নামায় ইজরায়েলের বিমানবাহিনী। তবে এই ঘটনায় হতাহতের কোনও খবর নেই বলে জানিয়েছে তেল আভিভ।

Advertisement

উল্লেখ্য, এপ্রিল মাসেই শুরু থেকেই হামলা-পালটা হামলায় অগ্নিগর্ভ হয়ে ওঠে গোটা মধ্যপ্রাচ্য। ইরানের দূতাবাসে ইজরায়েলি হামলার পর থেকে ইরান-ইজরায়েলের একে অপরকে লক্ষ্য করে মিসাইল হামলা চালায়। তার পর আসরে নামে লেবাননের হেজবোল্লাও। গত মে মাসে হুমকি দিয়ে সশস্ত্র সংগঠনটি জানিয়েছিল, বড় ‘সারপ্রাইজ’ নাকি অপেক্ষা করছে ইজরায়েলের জন্য। এবার তারা প্রস্তুত হচ্ছে ফের একবার ইজরায়েলের বুকে ভয়ংকর আঘাত হানার। এবার ফের একবার ইহুদি দেশটির সঙ্গে সংঘাতে জড়িয়েছে হেজবোল্লা।

Sangbad Pratidin News App

খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ